ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

কীভাবে আপনি হ্যাকিং লাইফ শুরু করবেন? (টিন হ্যাকার) “হট টিউন”

হ্যালো টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? প্রযুক্তির বেড়াজালে আশা করি ভালোই আছেন। কিন্তু আপনি হয়তো আরও ভালো হয়ে যাবেন আজকের টিউন পড়ে। এই লেখালেখি জীবনে অনেকে অনেক টিউনের জন্য রিকুয়েস্ট করে। কিন্তু আমার জানার সাধ্যে না গেলে "না" বলে দেয়, কিন্তু অনেক সময় অনেকে নাছোড় বান্দা হয়ে যায়। আবার অনেক সময় এমন কোন টিউনের রিকুয়েস্ট করে যা আমি জানি না বা সামান্য যা জানি তা দিয়ে একটা টিউন করা কষ্ট হয়ে যায়।

ADs by Techtunes ADs

ঠিক এরকমই একটি টপিকস হ্যাকিং। আমি নিজে এভাবে হ্যাকিং নিয়ে পড়াশুনা করিনি। তবে কিছু হ্যাকার ভাইয়ের সাথে মাঝে মাঝে অনলাইনে উঠা-বসা। তাদের কাছ থেকে আমি আমার মনের কিছু আকাঙ্ক্ষিত কথা তাদের কাছ থেকে জেনে নেওয়ার চেষ্টা করি।

সেই জানা-অজানার ভিড়ে আজ আমি হ্যাকিং নিয়ে টিউন করতে বসলাম। যারা খুব বেশি দক্ষ তারা পরামর্শ দিয়ে টিউনকে সাফল্য মণ্ডিত করবেন আশা করি। এই হ্যাকিং শেখার টিউন হয়তো খুব বেশি হলে ২ পর্বে হবে।  🙄

আজকে থাকছে প্রথম পর্ব যেখানে আমরা টিন (Teen) হ্যাকার অর্থাৎ হ্যাকার (হ্যাকার বললে অভিজ্ঞরা কষ্ট পাবে, না বলে শিক্ষনোবিশ বললে ভালো হবে) হবেন হওয়ার শুরুর কথা। । অর্থাৎ আপনি হ্যাকিং শিখতে চাচ্ছেন কিন্তু আগা মাথা কিছু জানেন না বা কম্পিউটারেই নতুন। তারা কীভাবে শুরু করবেন তাদের কিছু টিপস থাকবে এই প্রথম টিউনে।  😎

হ্যাকার কতো প্রকারঃ

হ্যাকার আসলে মুখে মুখে অনেকে বলেন কিন্তু প্রকৃত হ্যাকার কতো ধরণের তা একটি ইংলিশ ব্লগে একবার পড়ছিলাম। সেখান থেকে আমি নিজে কিছু নিয়ে আসলাম।

(এটাকে প্রকার না বলে এক লেখকের মতে কিছুটা ভাগ করার চেষ্টা ভাবতে পারেন)

হ্যাকার মোটামুটি ৬ ধরণের-

১) রকি হ্যাকার (rookie hacker)

এই ধরণের হ্যাকারকে আসলে হ্যাকার বলা কঠিন। এরা টেকনোলজির প্রতি অধিক আগ্রহ থেকে এই কাজে নতুন। তারা ছোট খাটো অনলাইন কিছু একাউন্ট হ্যাক করতে পারে আরকি। তবে সব সময় সফল ভাবে কোনটাই হ্যাক করতে পারে না। অধিক দুর্বলতা থেকে তারা এই কাজগুলো করতে সক্ষম হয়।

২) বিগেনার (beginner)

বিগেনার হ্যাকাররা মোটামুটি কম্পিউটার নলেজ ভালো, হালকা-পাতলা প্রোগ্রাম সল্ভ করতে পারে। হ্যাকিং এর কাজে এরা সফল হয় বটে তবে ছোট থেকে বড় ধরণের ভুলটাই বেশি করে।

ADs by Techtunes ADs

৩) ইন্টারমিডিয়েট হ্যাকার (intermediate hacker)

বিগেনার লেভেল থেকে অনেক উন্নত। বেশির ভাগই মোবাইল, ট্যাবলেট বা পিসি সব ধরণের ডিভাইস নিয়ে তারা গবেষণা করে আর প্রোগ্রাম সল্ভে তারা মোটামুটি ভালোই দক্ষ। নিজেদের পার্সোনাল নেটওয়ার্ক করার চেষ্টা থাকে।

৪) এক্সপার্ট হ্যাকার (expert hacker)

আগের হ্যাকারদের বস বলতে গেলে। সব ধরণের সফটওয়্যার বা হার্ডওয়্যার হ্যাকিং এর সাথে তারা জড়িত। তবে এই লেভেলের হ্যাকার যে সব কিছুতে দক্ষ তবে যে সব পথ চেনা তেমন নয়। সেজন্য এক্সপার্ট হ্যাকাররা চেষ্টা অনেক বেশি পড়াশুনা করে এবং নিজেকে আরও উন্নত করার চেষ্টার জন্য ডেডিকেশনতো থাকেই।

৫) বিজনেস হ্যাকার (Business hacker)

এই লেভেলের হ্যাকাররা দেশের উপকার করে বা নিজে প্রোগ্রাম সল্ভের মাধ্যমে নিজে ক্যাশ ম্যানেজ করতে সক্ষম থাকে। হ্যাকিং এবং প্রোগ্রামিং এ খুব দক্ষ তারা। তবে অন্যের ক্ষতির খুব বেশি কারণ তারা হয় না।

৬) ইলিগ্যাল হ্যাকার (illegal hacker)

এই হ্যাকার অনেক সময় ক্র্যা-কারস (crackers) নামে পরিচিত। ব্যাংক ডাকাতি বা অন্যান্য অনলাইন অপরাধ চক্রের সাথেও তাদের থাকে ভালো উঠাবসা।

তবে আমরা হ্যাকিং শিখবো ৫ নম্বর পর্যন্ত উঠে আসার জন্য। আমরা দেশের সম্পদ হবো, মানুষকে হেল্প করবো। এই লেভেলে আমাদের অনুপ্রবেশ থাকবে না!! কি বলেন?  😈

আরও একটি স্পেশাল হ্যাকিং টিউন আপনাদের জন্য-

তাহলে হ্যাকিং লাইফ শুরু করতে কীভাবে শুরু করবেন-

১) কম্পিউটারের বেসিক সব কিছু সম্পর্কে ধারণা তৈরি করুন।

২) বিভিন্ন ধরণের সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যারের খুঁটিনাটি জানতে থাকুন। মনে রাখবেন হ্যাকিং একটি আর্ট, সেহেতু এই আর্ট আয়ত্ত করতে আপনাকে বেশ পরিশ্রম করতে হবে বৈকি।

ADs by Techtunes ADs

৩) তবে একটা পর্যায়ে আপনাকে সফটওয়্যার এবং হার্ডওয়্যারের মধ্যে যেকোনো একটি পার্টকেই বেঁছে নিতে হবে। তাহলে আপনার দক্ষতা বাড়বে একটি বিষয়ে।

৪) কম্পিউটারের সকল পার্ট, ফাংশন সম্পর্কে জানার চেষ্টা করুন। যতো পারুন গভীরে।

৫) কম্পিউটার প্রোগ্রাম বা অপারেট নিয়ে যা পাবেন পড়তে থাকুন এবং আগের বিষয়গুলো যতো পারেন রিপিট করুন। তাহলে আপনার বেসিক অনেক ভালো হবে।

৬) কীভাবে একটি কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার বা সফটওয়্যার কমান্ডের মাধ্যমে কাজ করে জানতে চেষ্টা করুন। মনের ভেতর শুধু প্রশ্ন তৈরি করবেন। সাথে সাথে তা বের করার সকল পদ্ধতি।

৭) এবার আসুন আসল জায়গায়। অর্থাৎ প্রোগ্রামিং শেখা শুরু করুন। একজন রিয়েল হ্যাকার একজন ভালো মানের প্রোগ্রামার। সেহেতু C, C++, Java অথবা BASIC এ ধরণের ভালো মানের কোন প্রোগ্রামিং শিখতে থাকুন। (86 প্লাটফর্মে) সাথে পার্ল (Perl) এর মতো কোন স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজও শিখতে থাকুন। ব্যাচ (Batch) এ স্ক্রিপ্টিং শেখা আরও উপকারী। কারণ এটি উইন্ডোজে খুব কাজে দিবে।  🙄

হ্যাকিং সম্পর্কে আমার জ্ঞান খুবই কম। সেহেতু কারো কোন পরামর্শ থাকলে আমাকে টিউমেন্টে জানাতে পারেন। আর সব সময় মনে রাখবেন হ্যাকিং একটি আর্ট। সেহেতু আপনাকে জানতে হবে অনেক বেশি এবং নতুন সব শেখার প্রতি থাকতে হবে প্রবল আগ্রহ।

ADs by Techtunes ADs

(শুধু মাত্র নতুনদের জন্য)

আপনাদের প্রোগ্রামিং লাইফ আরও সুন্দর হোক এই কামনায় আজ এখানেই শেষ করছি।

ধন্যবাদ সবাইকে।  😆

প্রোগ্রামিং ইচ্ছুকদের জন্য আরও একটি ফিচারড টিউনঃ

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি আইটি সরদার। Web Programmer, iCode বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 264 টি টিউন ও 1758 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 20 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি ইমরান তপু সরদার (আইটি সরদার),পড়াশুনা শেষ করছি কম্পিউটার প্রযুক্তিতে (২০১৮); পেশা প্রোগ্রামার। লেখালেখি করি নেশা থেকে ফেব্রুয়ারি ২০১৩ থেকে। লেখালেখির প্রতি শৈশব থেকেই কেন জানি অন্যরকম একটা মমতা কাজ করে। আর প্রযুক্তি সেটা তো একাডেমিকভাবেই রক্তে মিশিয়ে দিয়েছে। ফলস্বরুপ এখন আমার ধ্যান, জ্ঞান, নেশা সবকিছু প্রোগ্রামিং এবং লেখালেখি নিয়ে।...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভাল লাগল

ভাই টিউনসটি আমার খুব ভাল লেগেছে। তাই বিডিটিউনস এ শেয়ার না করে পারলাম না
ভাই আপনার ক্রেডিট সহ শেয়ার করেছি দেখতে চাইলে goo.gl/ YbRwlc জান।

ধন্যবাদ

Thanks a lot. Something should be learned from here.

ডিয়ার সরদার ভাইয়া,আপনি যদিও একজন হ্যাকার নন,তবুও কিছু জিনিস এখানে মিস করেছেন।আপনি যে হ্যাকারদের নানা শ্রেণী বিভাগ লিখেছেন,আপনি তো মূল তিন ধরনের হ্যাকার(Black Hat,White Hat,Grey Hat)এটা বলতে ভুলে গেছেন।আবার আপনি যারা হ্যাকিং শিখতে চায়,তাঁদের জন্য কিছু হেল্পফুল ওয়েবসাইটের লিঙ্ক দিতে পারতেন।আবার বাংলাদেশের কিছু নামকরা হ্যাকিং সংগঠনের কথা উল্লেখ করতে পারবেন।
তবে ভাইয়া আপনি গুছিয়ে লিখেছেন।এর জন্য ধন্যবাদ।

    @hey: আমি দক্ষতার ভিত্তিতে ভাগ করার চেষ্টা করছি বৈকি, ভাই। নেক্সট টিউনে চেষ্টা করবো বাকি বিষয়গুলা উঠানোর। আর কোন পরামর্শ থাকলে জানাতে ভুলবেন না!! 🙂