ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট লক ফিচার ব্যবহার করে ফোন আনলক করুণ ফোনে হাত না লাগিয়ে!

আপনি যদি অনেক ব্যস্ত থাকেন আর চটপট কোন মেইল চেক করতে চাচ্ছেন, সেই সময় লম্বা পাসওয়ার্ড টাইপ করে ফোন আনলক করা অনেক বিরক্তিকর ব্যাপার হিসেবে প্রমানিত হতে পারে। ফোন আনলক করা এমন একটি কাজ, যেটি আমরা দিনে ১০০ বারের উপর করে থাকি, কখনো প্রয়োজনে আবার কখনো অপ্রয়োজনে। আবার ফোনকে পাসওয়ার্ড ছাড়াও ব্যবহার করা যাবে না।

ADs by Techtunes ADs

একজন সিকিউরিটি ফোকাস টেক রাইটার হিসেবে আমি কখনোই আপনাকে পাসকোড ছাড়া ফোন ব্যবহার করার জন্য রেকোমেন্ড করবো না। তাহলে কিভাবে আরো সহজে ফোন আনলক করা সম্ভব হবে? সৌভাগ্যবসত এখনকার অনেক স্মার্টফোনে ট্যাচ আইডি রয়েছে, মানে আপনার হাতের স্পর্শে ফোন আনলক করতে পারবেন। কিন্তু আপনার ফোনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর না থাকলে বা ট্যাচ করে আনলক করাকেউ বোরিং লাগলে আপনি কি করবেন?

সৌভাগ্যবশত, অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে রয়েছে স্মার্ট লক/আনলক ফিচার, যেখানে ইউজার কয়েক প্রকারের পদ্ধতি ব্যবহার করে তাদের ফোন লক এবং আনলক করতে পারবে। এই টিউনে অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট লক সেটআপ করা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।

স্মার্ট লক

যদি আপনি ললিপপ বা তারপরের ভার্সনের অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করেন, তবে অবশ্যই আপনার ফোনে স্মার্ট লক ফিচারটি রয়েছে। যেটার মাধ্যমে আপনি ট্র্যাস্টেড ডিভাইজ, ট্র্যাস্টেড প্লেস, ট্র্যাস্টেড ফেস, ট্র্যাস্টেড ভয়েজ, এবং আপনার শরীর ডিটেক্ট করে আপনার ফোন আনলক করা সম্ভব হবে। এখান থেকে শুধু যেকোনো একটি ম্যাথড আপনাকে পছন্দ করতে হবে আর সেই অনুসারে সেটআপ করে নিতে হবে। ফাইনালি এবার পাসওয়ার্ড প্রবেশ করিয়ে ফোন আনলক করাকে বলুন, "টাটা বাই বাই!"

যদি আপনি প্রথমবারের মতো স্মার্ট লক ফিচারটি ব্যবহার করতে চান, সেক্ষেত্রে আপনাকে সেটিং অপশনে যেতে হবে। সিকিউরিটি অপশনে আপনি স্মার্ট লক অপশনটি পেয়ে যাবেন। কিন্তু তার আগে আপনার ডিভাইজে প্যাটার্ন বা পাসকোড লক সেটআপ করে নিন। এবার স্মার্ট লক অপশনে ট্যাপ করুণ, দেখবেন ট্র্যাস্টেড ডিভাইজ, ট্র্যাস্টেড প্লেস, ট্র্যাস্টেড ফেস, ট্র্যাস্টেড ভয়েজ ইত্যাদি অপশন গুলো বেড় হয়ে আসবে — আমরা প্রথমে ট্র্যাস্টেড ডিভাইজ থেকে সেটআপ দেখানো শুরু করবো!

এই ফিচারটি ব্যবহার করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি বিশ্বস্ত ডিভাইজ এড করে নিতে হবে। ধরুন আপনি আপনার ব্লুটুথ হেডসেট'কে এখানে এড করে নিলেন কিংবা আপনার কারের সাথে আপনার ফোনকে এড করে নিলেন, এতে আপনি যখন ঐ বিশ্বস্ত ডিভাইজটির সাথে কানেক্টেড থাকবেন, আপনাকে আর পাসওয়ার্ড প্রবেশ করিয়ে আপনার ফোনকে ম্যানুয়ালি আনলক করতে হবে না। আপনার ফোন স্বয়ংক্রিয়ভাবে আনলক হয়ে যাবে।

বিশ্বস্ত জায়গা এড করার ক্ষেত্রেও একই ব্যাপার। আপনি বর্তমান প্লেস'কেই সিলেক্ট করে রাখতে পারেন, কিংবা ম্যাপ থেকে যেকোনো জায়গাকে সিলেক্ট করে রাখতে পারেন। তারপরে সেই জায়গাতে যখন আপনি অবস্থান করবেন, আপনার ফোনে আর পাসওয়ার্ড প্রবেশ করিয়ে আনলক করতে হবে না। ট্র্যাস্টেড ফেস অপশনটি সেটআপ করতে আপনার ফোনকে আপনার ফেস দেখিয়ে দিতে হবে, তারপরে আপনার ফোন আপনার ফেস থেকে কিছু তথ্য কালেক্ট করে সেভ করে রাখবে।

পরবর্তী সময় ফোন আনলক করার ক্ষেত্রে আপনার ফেস'কে ফোনে দেখাতে হবে আপনার ফোন ফেস রিকোগ্নাইজ করার পরে ফোনটি আনলক হয়ে যাবে। কিন্তু আমি ট্র্যাস্টেড ফেস অপশনটি ব্যবহার করার জন্য রেকমেন্ড করবো না, এটি মোস্ট সিকিউর পন্থা নয়। অনেক সময় আপনার ছবি দেখিয়েও আপনার ফোন আনলক করা যেতে পারে। যদি এক্সপেরিয়েন্স করার জন্য এটি ব্যবহার করতে চান তো ঠিক আছে, কিন্তু ফোনের প্রাইমারি সিকিউরিটি আনলক সিস্টেম হিসেবে ট্র্য্যাস্টেড ফেস ব্যবহার না করায় ভালো।

ADs by Techtunes ADs

অন-বডি ডিটেকশন —এই ফিচারটি ব্যবহার করার জন্য তেমন কোন সেটআপ করার প্রয়োজনীয়তা নেই, জাস্ট ট্যাপ করে অপশনটিকে এনাবল করে দিতে পারেন, যদি এই ফিচারটি ব্যবহার করতে চান, এর পরে আপনার ফোন আপনার মুভমেন্ট মনে রাখবে আর আপনাকে চিনে নেবে। তারপরে আপনি যতক্ষণ মুভিং করতে থাকবেন, আপনার ফোন আনলক করার জন্য পাসওয়ার্ড প্রবেশ করানোর প্তয়জন পড়বে না।

ট্র্যাস্টেড ভয়েজ আনলকিং সিস্টেমে আপনার ফোনকে প্রথমে আপনার ভয়েজ শুনিয়ে ট্রেইন করতে হবে। এর পরে আপনার ফোন আপনার ভয়েজ মনে রাখবে, তারপরে জাস্ট ফোনের সামনে বলুন, "ওকে গুগল" —ব্যাস আপনার ফোন আনলক হয়ে যাবে। তো দেখলেন, কিভাবে আপনার ফোন আনলক করাতে পারবেন, ফোনে হাত না লাগিয়ে!

স্মার্ট লক কতোটা সিকিউর?

গুগল স্মার্ট লক ফিচারটি সত্যিই চমৎকার, বিশেষ করে তাদের জন্য, যারা ফোন আনলক করার জন্য অনেক দ্রুততম পদ্ধতি খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করে। উপরের প্যারাগ্রাফ গুলোতে আমরা দেখেছি, কিভাবে এই ফিচার ফোনে স্পর্শ না করেও আপনার ফোন আনলক করতে সাহায্য করে। কিন্তু এখানে প্রশ্ন হচ্ছে এই স্মার্ট লক ফিচারটি কতোটা শক্তিশালী বা সিকিউর?

দেখুন টেকনোলজি যতোটা উন্নত হয়ে যায় বা টেকনলজি থেকে আমরা যতোটা বেশি সুবিধা পেতে চাই, সেই টেকনোলজি সিকিউরিটির দিক থেকেও ততোটা বেশি দুর্বল হয়ে যায়। তারের টেলিফোন'কে হ্যাক করা অনেক কঠিন ব্যাপার যতোটা সহজে ওয়াইফাই বা মোবাইল ফোনকে হ্যাক করা যায়। তো হ্যাঁ, অবশ্যই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করার মতো বা ট্যাচ আইডি ব্যবহার করার মতো স্মার্ট লক এতোটা সিকিউর নয়।

গুগল স্মার্ট লক ফিচারকে হ্যাক করা সম্ভব, অনেক সময় তো কম্পিউটারে না লাগিয়েই আপনার ফোনের লক হ্যাক করা সম্ভব হবে। ধরুন আপনি ট্র্যাস্টেড ডিভাইজ হিসেবে আপনার ব্লুটুথ হেডসেটকে সেট করে রেখেছেন, তো কেউ যদি আপনার ফোন আর হেডসেট একসাথে চুরি করে নিয়ে যায়, তো আরামে আপনার ডিভাইজ আনলক করে ফেলবে। আর এখানে যেহেতু আপনার ফোনের চাবি কোন ফিজিক্যাল ডিভাইজ তাই সেটাকে হ্যাক করা অনেক বেশি সহজ।


তো বন্ধুরা আমাকে নিচে টিউমেন্ট করে জানান, আপনি কোন টাইপের স্মার্ট লক ব্যবহার করতে আগ্রহী, নাকি পাসকোড ব্যবহার করেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। যদিও স্মার্ট লক হ্যাক করা যেতে পারে কিন্তু সেটা পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে। যেমন ধরুন, আপনি কোন ডিভাইজ'কে ট্র্যাস্টেড ডিভাইজ হিসেবে সেট করে রেখেছেন, সেটা কিন্তু কেউ জানেন না। সেই ক্ষেত্রে হ্যাক করা সম্ভব হবে না। আমাকে টিউমেন্ট করে আরো জানান, স্মার্ট লক সিকিউরিটি নিয়ে আপনার কি টিউমেন্ট রয়েছে। আমি আপনাদের টিউমেন্টের অপেক্ষায় রইলাম!

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 6

আমি তাহমিদ বোরহান। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 5 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 178 টি টিউন ও 682 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 31 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

আমি তাহমিদ বোরহান। টেক নিয়ে সারাদিন পড়ে থাকতে ভালোবাসি। টেকটিউন্স সহ নিজের কিছু টেক ব্লগ লিখি। TecHubs ব্লগ এবং TecHubs TV ইউটিউব চ্যানেল হলো আমার প্যাশন, তাই এখানে কিছু অসাধারণ করারই চেষ্টা করি!


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আমার প্রশ্ন হল https://www.bdstall.com/biometrics-sensor/ এই ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর গুল কি ল্যাপটপ এ ব্যাবহার করা যাই?? জানালে উপকৃত হব