ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

TOR এবং VPN এর মধ্যে পার্থক্য কী? কোনটা Best? কোনটা কখন ব্যবহার করা উচিৎ?

টিউন বিভাগ সাইবার সিকিউরিটি
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 13
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি সবাই ভাল আছেন। বরাবরের মত চলে এসেছি নতুন কোন টিউন নিয়ে। আজকে আমি আলোচনা করব Tor এবং VPN এর মধ্যে পার্থক্য নিয়ে।

ADs by Techtunes ADs

শুরুর কথাঃ

আমরা যারা অনলাইনে Anonymous থাকতে চাই তারা সবাই হয়তো Tor এবং VPN নিয়ে কম হলেও কিছু ধারনা রাখি। অধিকাংশ সময় যা হয় সেটা হল আমরা এই দুটি মেথডে কোন পার্থক্য খুঁজে পাই না অথবা বারবারই কনফিউজড হয়ে যাই। তো আপনার সব কনফিউশন দূর করে দিতেই আজকের এই টিউন।

দুটি টুলের মধ্যে আসলে পার্থক্য কোথায়? এই উত্তর দেয়ার আগে চলুন সহজ ভাবে বিষয় দুটিকে একটু বুঝানো যাক। আমি যদি Anonymous কে একটি জার্নি হিসাবে ধরি তাহলে এর দুটি পরিবহন হতে পারে Tor এবং VPN। VPN কে আপনি বিমানের সাথে তুলনা কর‍তে পারেন যা খুবই দ্রুত এবং মোটামুটি ব্যয়বহুল অন্যদিকে Tor কে আপনি বাসের সাথে তুলনা করতে পারেন যা তুলনামূলক স্লো এবং সস্তা বা ফ্রি।

বাস দিয়ে কোথাও গেলে আপনি বাসার কাছ থেকেই উঠে পড়তে পারেন অন্যদিকে বিমানে যেতে হলে একটু দুরে যেতে হয়, ঠিক তেমনি Tor ফ্রি হওয়াতে যেকোনো সময় এটি ব্যবহার করতে পারেন এবং VPN পেইড হওয়াতে সঠিক VPN টি নির্ধারণ করতে হলে আপনাকে কিছুটা সময় নিয়ে এটি যাচাই বাছাই করতে হয়।

তবে উভয়েরই কাজ হচ্ছে আপনাকে ইন্টারনেটে Anonymous রাখা এবং আপনার ডেটা লোকেশন গোপন রাখা। দুটি মাধ্যমই আপনার আর নেটওয়ার্ক কানেকশনের মধ্যে Middle-man হিসেবে কাজ করে।

কখন Tor ব্যবহার করবেন?

Tor ব্যবহারের প্রধান উদ্দেশ্য হচ্ছে ইন্টারনেটে গোপন থাকা। এটি বেশ কিছু এনক্রিপশন লেয়ারের মাধ্যমে আপনার লোকেশন থার্ড-পার্টি থেকে গোপন করে রাখে। এটি আপনার ডেটা গুলো বারবার Tor নেটওয়ার্ক পাঠায় আবার ফিরিয়ে আনে যাতে করে আপনার নির্দিষ্ট কোন আইপি এড্রেস থাকে না।

একটি বিষয় আপনাকে মনে রাখতে হবে Tor আপনার কানেকশনকে এনক্রিপ্ট করে আপনার ডেটাকে নয়। যদিও শেষ লেয়ারে আপনার কানেকশন এনক্রিপ্ট থেকে ডিক্রিপ্ট হয় তবুও আপনার ডেটা থাকে Unprotected যা যেকেউ চাইলে এক্সেস ও করতে পারে। এজন্য অবশ্য আপনি HTTPS কানেকশন ব্যবহার করতে পারেন।

সুতরাং Tor এর মাধ্যমে আপনার গুরুত্বপূর্ণ ইনফরমেশন যেমন ব্যক্তিগত তথ্য এনক্রিপশন করা ছাড়া পাঠানো থেকে বিরত থাকুন।

ADs by Techtunes ADs

Tor তখন ব্যবহৃত হয় যখন কারো অবস্থান গোপন রাখতে হয়। যখন আপনি কোন কোম্পানির গোপন তথ্য ফাঁস করতে চান এবং আপনি চান কেউ আপনাকে ট্র্যাক করতে না পারুক। একই সাথে আপনি কোথায় বসে কি করছেন সেটা কাউকে না জানাতে চাইলে আপনার জন্য বেস্ট অপশন হচ্ছে Tor।

এর জন্য Tor সর্বাধিক নিরাপদ না হলেও, Tor নেটওয়ার্কে কারো এক্টিভিটি ট্রেস করা খুবই কঠিন। এমনকি National Security Agency এর মত সংস্থা গুলোর পক্ষেও Tor নেটওয়ার্কে কাউকে আইডেনটিফাই করা কঠিন হয়ে দাড়ায়।

আপনার উপস্থিত গোপন করার ক্ষেত্রে Tor ব্যবহার করলে আপনাকে ইন্টারনেট স্পীডের দিকে অবশ্যই ছাড় দিতে হবে। Tor স্বাভাবিক ভাবেই খুবই স্লো হয়। যারা সাধারণত ইন্টারনেট থেকে পাইরেসি কন্টেন্ট ডাউনলোড করে বা টরেন্টিং করে তাদের কাছে Tor কখনোই কোন ভাল অপশন নয়। এর প্রধান কারণ এই ধীর গতির ইন্টারনেট কানেকশন।

স্ট্যাটিক কোন পেজ থেকে তথ্য সংগ্রহ করার ক্ষেত্রে Tor দিয়ে কাজ চালানো যায় কিন্তু ইন্টারনেট থেকে গোপনে মুভি নামাতে অথবা ভিডিও স্ট্রিমিং করতে আপনাকে অবশ্যই VPN ব্যবহার করতে হবে।

কখন VPN ব্যবহার করবেন?

আমার এর আগের VPN সংক্রান্ত টিউন গুলো পড়লে অবশ্যই জানবেন যে, VPN এমন একটি এনক্রিপ্ট কানেকশন তৈরি করে যার মাধ্যমে আপনার ডেটা গুলো নিরাপদে সার্ভার গুলো দিয়ে যায়। বিভিন্ন ক্ষেত্রে পাবলিক কানেকশন গুলো দিয়ে ব্যক্তিগত ডেটা লিক হয়ে যাবার সম্ভাবনা থাকলে এটি প্রতিহত করে VPN।

VPN এর মাধ্যমে আপনি খুব ভালভাবেই হয়ে মুভি ডাউনলোড দিতে পারবেন, ইউটিউবে ভিডিও দেখতে পারবেন এবং টরেন্টিং করতে পারবেন। তবে VPN এর ক্ষেত্রেও একটি বিষয় মনে রাখতে হবে, এর মাধ্যমে আপনার কানেকশন এনক্রিপ্ট হবে আপনার ডেটা নয়। ডেটার নিরাপত্তার জন্য SSL Protocol ব্যবহার করুন।

ফ্রি VPN গুলো আপনার ব্যক্তিগত ডেটা বা Log কালেক্ট করতে পারে যদিও জনপ্রিয় VPN গুলোর দাবী তারা ইউজারের Log সেভ রাখে না। তবে কোন আইনি ক্ষেত্রে তারা আপনার ডেটা দেশের সরকারকে দিতে বাধ্যও থাকতে পারে। এজন্যই VPN কে সর্বোচ্চ মাধ্যম বলা যায় না।

কম ঝুঁকিপূর্ণ সিচুয়েশনে আপনি VPN ব্যবহার করতে পারেন যেমন টরেটিং করা, পাইরেসি কন্টেন্ট ডাউনলোড করা ইত্যাদি। নিজেকে বিভিন্ন ইন্টারনেট ট্র্যাকিং থেকে দূরে রাখতেও VPN ব্যবহার করতে পারেন। অধিকাংশ সময় বিভিন্ন কোম্পানি তাদের কর্মীদের রিমোট ওয়ার্ক এর জন্যও VPN ব্যবহার করে।

নির্দিষ্ট দেশের ব্লক করা ওয়েবসাইট বা ইন্টারনেট সার্ভিস ব্যবহার করতেও অনেকে VPN ব্যবহার করে। কোন দেশের নির্দিষ্ট কিছু ওয়েবসাইট ব্লক করা থাকলে VPN এর মাধ্যমে লোকেশন চেঞ্জ করে সহজেই সেই সমস্ত ওয়েব সাইট গুলোতে এক্সেস পাওয়া যায়।

ADs by Techtunes ADs

শেষ কথাঃ

Tor এবং VPN উভয়েরই সুবিধা অসুবিধা রয়েছে কিন্তু তারা কখনো একে অপরের প্রতিদ্বন্দ্বী নয়। তাদের উভয়কেই একই উদ্দেশ্যে, মানে ইউজারকে Anonymous রাখতে বানানো হয়েছে তাই বলে এই দুটি সার্ভিসকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবা যাবে না। বিভিন্ন ক্ষেত্রেই এরা একে অপরকে ছাড়িয়ে যেতে পারে তাই আমি নির্দিষ্ট ভাবে কোনটি সেরা বলতে পারব না। আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী উভয়ই কাজে লাগতে পারে।

আজকের মত এই পর্যন্তই, পরবর্তী টিউন পর্যন্ত ভাল থাকুন। আল্লাহ হা-ফেজ।

ADs by Techtunes ADs
Level 13

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 1 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 181 টি টিউন ও 179 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 37 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস