ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

নিজেই হোন একটি শক্তিশালী টেলিস্কোপের মালিক !!!

Telescope-1

ADs by Techtunes ADs

আমার ধারনা এ বিষয়ে আগে একটি টিউন হয়েছিল। কিন্তু আমি একটি বিশেষ আবেদন নিয়ে টিউনারদের কাছে আবার এ বিষয়ে টিউনটি করছি।

আমার এ টিউনটি “মাইক্রোসফটের ওয়ার্ল্ড ওয়াইড টেলিস্কোপ” নিয়ে। সম্পূর্ণ ফ্রি এবং অতি মূল্যবান এ সফটওয়ারটিতে মহাকাশকে এত সুন্দরভাবে ত্রিমাত্রিকভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে তা আমাদের মত সাধারণ মানুষের জন্য কল্পনাতিত। এখানে রয়েছে সৌরজগহের বিস্তারিত একটি ত্রিমাত্রিক মডেল। যা দ্বারা আপনি সবগুলো গ্রহ এবং সূর্যের চারপাশ ত্রিমাত্রিক পরিবেশে বাস্তবের মত ৩৬০ ডিগ্রী ঘুরে দেখতে পারবেন এবং জানতে পারবেন বিস্তারিত। তাছাড়া আকাশের যে ত্রিমাত্রিক একটি উপস্থাপনা এতে রয়েছে তা সত্যিকার অর্থেই অবিশ্বাস্য।

এ টেলিস্কোপটি তৈরী করতে “Microsoft® high performance Visual Experience Engine™” প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। যা আপনাকে নিখুতভাবে এ টেলিস্কোপের মহাকাশে ঘুরে বেড়াতে এবং যেকোন দিক থেকেই যেকোন গ্রহ নক্ষত্রকে জুম করে দেখতে সাহায্য করবে। হাজার হাজার বছর আগে ঘটে যাওয়া সুপানোভার এক্সপ্লোশানের ছবিও এখানে সবচেয়ে ভালোরূপে দেখতে পাবেন।

এর জানা অজানা অসংখ্যা অপশনের মধ্যে কয়েকটি অপশন ব্যাখ্যা না করলেই নয়। এটি হল কালেকশন অপশন।

এর কালেকশন অপশনে আপনি যা দেখতে পারবেন তার একটি সংক্ষিপ্ত তালিকা দেয়ার চেষ্টা করি:

১। অসংখ্যা দুর্লভ নক্ষত্রপুঞ্জ যেমন: এন্ড্রোমিডা, হারকিউলিস, ইন্দাস, এন্টলিয়া, অ্যাপাশ, অ্যাকোয়ারিস, অ্যারিস, ক্যান্সার, জ্যামিনি ইত্যাদি সহ প্রায় ১০১ টি নক্ষত্রপুঞ্জ।

২। সোলার সিস্টেমের সবগুলো গ্রহ উপগ্রহ ৩৬০ ডিগ্রী ঘুরিয়ে বিস্তারিত দেখা সম্ভব।

৩। আপনি ডিজিটাইজড্ স্কাই সার্ভে, লো ফ্রিকোয়েন্সি স্কাই সার্ভে, ৫ বছরের কসমিক ওয়েব ব্যাকগ্রাইন্ডে, ইনফারেড ম্যাপের মাধ্যমে, সিনথেটিক সার্ভের মাধ্যমে, হাইড্রোজেন আলফা ম্যাপে ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের প্রায় ২০ রকম পদ্ধতিতে সমস্ত আকাশ সার্বে করতে পারবেন,। ছবি গুলো আপনাদের চোখ ধাধিয়ে দিবে।

" মোর সার্ভে " নামক আরেকটি অপশনের অধীনে রয়েছে ইনফারেড, এক্সরে, গামা, আলট্রাভায়োলেট ইত্যাদি বিভিন্নভাবে করা প্রায় ৫৮টি সার্ভের ছবি।

ADs by Techtunes ADs

৪।এত রয়েছে বিভিন্ন টেলিস্কোপের মাধ্যমে তোলা অসংখ্য ছবি :

* স্পিটজার টেলিস্কোপের তোলা মহাকাশের ছবি আছে প্রায় ১০৮টি ছবি।

* এতে রয়েছে চন্দ্র টেলিস্কোপের তোলা ছবি আছে প্রায় ৫৯টি ছবি।

* হাবল টেলিস্কোপের তোলা ছবি রয়েছে প্রায় ১৬২টি।

৫। এ সফটওয়াটিতে রয়েছে প্রায় ৭৪টি বিভিন্ন ধরনের এস্ট্রোলজিকাল ছবি।

৭। রেডিও স্টাডির ছবি আছে ৪ টি।

৮।NOAO এর স্টাডির ছবি আছে ৬ টি।

৯। জেমিনি স্টাডীর ছবি রয়েছে ১৮টি।

১০। Messier Catalog আছে প্রায় ১২১টি নক্ষত্রপুঞ্জের।

১১। সৌরজগতের বিভিন্ন গ্রহ এবং উপগ্রহ নিয়ে ছবি আছে প্রায় ২৩টি।

ADs by Techtunes ADs

১২। বিভিন্ন রকম প্রযুক্তির মাধ্যমে তোলা পৃথিবীর ৩৬০ ডিগ্রী ছবি রয়েছে ৬টি। এগুলো দয়া করে একবার দেখবেন। আশ্চর্য হতে হবে।  এত অপূর্ব বর্ণনা করা অসম্ভব।

১৩। এত গতিশীল অবস্থায় তোলা অ্যাপলো মিশন (৮টি), পাথপাইন্ডার (৪টি), স্পিরিট (৩৫টি), অপরচুনিটি (১৩টি), পনিক্স (১টি), Mauna kea (৪টি), মাইক্রোসফট বিল্ডিং (২টি)এর ছবি আছে।

উপরে উল্লেখিত সকল নক্ষত্রপুঞ্জের অভ্যন্তরস্ত সকল গুরুত্বপূর্ণ নক্ষত্রগুলোকেও আলাদাভাবে জুম করে দেখা যাবে।

এছাড়াও এ সফটওয়ারটির একটি অন্যতম উল্লেখযোগ্য এবং মূল্যবান ফীএচার হল এর Guided Tours অপশন। এ অপশনটিতে রয়েছে অসংখ্যা নেবুলা, গ্যালাক্সী, মহাকাশ সার্ভে, গ্রহ, মহাকাশ বিদ্যা, ব্ল্যাক হোল, সুপারনোভা, তারকাপুঞ্জ, বিভিন্ন মহাজাগতিক ঘটনা ইত্যাদি আরো অনেক কিছু নিয়ে বিশ্বের শ্রেষ্ঠ সকল ত্রিমাত্রিক ডকুমেন্টারীগুলোর কালেকশনৱ। আর এগুলো লোড করতে সফটওয়ারটি মাত্র এক থেকে দুই মিনিট সময় লাগে। সবার কাছে অনুরোধ এ অপশনটি একবার পরখ করে দেখুন। আমি ১০০% নিশ্চিত এর জন্য আপনি আমাকে মনে রাখবেন।

এ সফটওয়ারটির সার্চ অপশনের মাধ্যমেও অনেক গ্রহ, নক্ষত্র এবং নক্ষত্রপুঞ্জ সম্পর্কে বিস্তারিত চিত্র পেতে পারেন।

সময়ের স্বল্পতার কারনে এ অপূর্ব সফটওয়ারটির সুবিধাজনক অন্যান্য অপশনগুলোর ব্যাখ্যা করতে পারছিনা বলে দুঃখিত। তবে সফটওয়ারটি ডাউনলোড করার পর আমার ধারনা সেগুলো আপনারা ধীরে ধীরে বুঝতে পারবেন।

নিচে সফটওয়ারটির মাধ্যমে দেখা সম্ভব এমন অসংখ্যা গ্রহ নক্ষত্রের কয়েকটি চিত্রের মাধ্যমে প্রকাশ করা হল :

Hubble-cartwheel

হাবল টেলিস্কোপ থেকে তোলা "কার্টহুইল (ঠেলাগাড়ির চাকা)" নামক একটি গ্যালাক্সি

Cnadra-cat's eye

ADs by Techtunes ADs

চন্দ্র টেলিস্কোপ হতে তোলা "ক্যাটস্ আই নামক নেবুলা"

Spitzer-Helix Nebula

স্পিটজার টেলিস্কোপ থেকে তোলা "হেলিক্স নেবুলা"

Earth

পৃথিবী ৩৬০ ডিগ্রী ছবি

Saturn

শনি গ্রহের ৩৬০ ডিগ্রী একটি ছবি

Ganymede-jupitar

বুহস্প্রতির উপগ্রহ "গ্যানিমেড" এর ৩৬০ ডিগ্রী একটি ছবি

সফটওয়ারটি ডাউনলোড করতে পারবেন নিচের লিংক থেকে:

ADs by Techtunes ADs

http://www.softpedia.com/get/Science-CAD/WorldWide-Telescope.shtml

আমরা জানি, আমাদের দেশের তরুন প্রজন্ম মহাকাশ সম্পর্কে কত প্রচন্ড আগ্রহী। কিন্তু পাঠ্য পুস্তকগুলোতে যেভাবে বিরক্তিকর ভাবে তা উপস্থাপন করা হয়েছে যে, বড় হতে হতে মহাকাশ বিজ্ঞান সম্পর্কে তাদের আগ্রহের মৃত্যু ঘটে।

আসুন আমরা এ সফটওয়ারটির মাধ্যমে মহাকাশ বিজ্ঞান সম্পর্কে তাদের আগ্রহ আরো বাড়িয়ে দেই।

আমার এ টিউনটি কারো ভালো লাগলে দয়া করে মন্তব্য করে জানান।

আপনাদের সকলকে অনেক ধন্যবাদ।

ADs by Techtunes ADs
Level 2

আমি TareqMahbub। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 47 টি টিউন ও 466 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

Programmer at Business Innovation & Incubation Center, Banani. Worked @ Harry & Michael IT Center as a Web Developer. Worked @ Kazi IT Center as a Web Developer, Graphic Designer, Virtual Assistant. Worked @ IQRA MODEL SCHOOL & COLLEGE as a full time teacher & typist. Student at American International...


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

tnx a loat 🙂

আরে ভাই ডাউনলোড লিংকটা যদি সহজেই খুজে না পাই তবে টিউন পড়ে কি লাভ।
আপনাকে আনেক ধন্যবাদ এমন এতটা টিউনের জন্য। তবে লিংকটা দেন।

taslimahmed ভাই আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। উপস্থাপনা নিয়ে এতই ব্যস্থ ছিলাম যে লিংকটি দিতেই ভুলে গেছে।

Great soft….. 🙂

Tareq vai….
tHnx for ur niCe Tune…..

jotil hoecha boooossss…….

    ছাত্র এবং গবেষকদের জন্য এ ফ্রি অথচ মহামূল্যবান সফটওয়ারটি ডেবেলপ করায় Microsoft কে ধন্যবাদ দিন। আমি তো শুধু এটি দ্বারা কি করা যায় তার সামান্য তুলে ধরেছি।

আবারো সেই আমার করা টিউন ফিরে আসে …… নতুনদের জন্যে এই টিউনগুলো আসলেই উপকারে আসবে। কারণ কেউ টেকটিউনসে আর পেছনে ফিরে যায় না । আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

এটা সত্যিই খুব কাকাতলীয়। আপনার পূর্বে করা দুটি টিউনের বিষয় নিয়ে আমি একই দিনে দুটি টিউন করলাম। নাহ, অন্তত আপনার সবগুলো টিউন আমি অবশ্যই পড়ে শেষ করব ভবিষ্যতে যেন আর এমন না হয়।

Level 0

আমি খুবি খুসি জে টেকটুনে আরোকোম বোস লোক আসে

    আমি নিজেও একটি বানান মারাত্মকভাবে ভুল করেছি, তবে তা সম্পূর্ণ অনিচ্ছাকৃত। এজন্য আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থী।