ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

কম্পিউটার ক্লিন করার জন্য দীর্ঘদিনের পরিচিত CCleaner এর দিন শেষ! আজ থেকে ব্যবহার করুন এডভান্স nCleaner! অগ্রগতির এই যুগে পিছিয়ে থাকলে কি চলবে?

————————–— بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ ————————–—

সুপ্রিয় টেকটিউনস কম্পিউনিটি, সবাইকে আমার আন্তরিক সালাম এবং শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি কম্পিউটার ক্লিন করার জন্য সর্বাধিক কার্যকর সফটওয়্যার নিয়ে আমার আজকের টিউন।

ADs by Techtunes ADs

কম্পিউটারকে সব সময় দ্রুতগতির এবং পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য আমরা সাধারনত বিভিন্ন ইউটিলিটি সফটওয়্যার কিংবা সিস্টেম ক্লিনার সফটওয়্যার ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু অনেক কম্পিউটার এক্সপার্টদের মতামত হলো তথাকথিত ইউটিলিটি সফটওয়্যারগুলো কম্পিউটারকে ফাস্ট করার পরিবর্তে উল্টা কম্পিউটারকে স্লো করে ফেলে। যে কারনে ইউটিলিটি সফটওয়্যারগুলো এক্সপার্টদের কম্পিউটার হতে বিতাড়িতই বলা চলে। তাহলে প্রশ্ন আসতে পারে, এক্সপার্টরা তাহলে কী ব্যবহার করে? নাকি তাদের কম্পিউটার জঞ্জালে ভর্তি!

কম্পিউটারকে ক্লিন রাখার জন্য প্রাথমিক লেভেলের ব্যবহারকারী থেকে শুরু করে এক্সপার্ট পর্যন্ত সবাই যে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে সেটা হলো বহুল ব্যবহৃত এবং সর্বজন প্রিয় CCleaner। কথায় আছে, ভালোর কোন শেষ। মানুষের কাঙ্খিত শেষ আশ্রয়স্থল হিসাবে আমরা যে বেহেস্তের কথা জানি সেখানেও কিন্তু আটটি পর্যায় আছে।

যাহোক, কম্পিউটার ক্লিন করার জন্য আমরা যতো সফটওয়্যার দেখি তাদের মাঝে CCleaner এর কথা আমরা সবাই জানলেও অজ্ঞতার কারনে বাদ পড়ে গেছে CCleaner এর চেয়েও র‍্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা nCleaner! যেটাতে আমরা অন্য যেকোন ক্লিনিং সফটওয়্যারের চেয়ে বেশি সুবিধা পাবো। তবে আর কথা না বাড়িয়ে চলুন nCleaner সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

nCleaner – কম্পিউটার ক্লিন করার সর্বাধিক কার্যকর সফটওয়্যার

nCleaner সফটওয়্যারটির কার্যকারীতা এবং প্রায়োগিক ক্ষেত্র এতোটাই ব্যাপক যে এটা নিয়ে বিস্তারিত বলতে গেলে টিউনের শিরোনামের পাশে তৃতীয় বন্ধনির মাঝে টেরাটিউন কথাটি লিখে দিতে হবে। তবে কাজের ক্ষেত্র যতোটাই বিশাল হোক না কেন ব্যবহার পদ্ধতি কিন্তু একদম প্রাথমিক লেভেলের। তার মানে একটা বাচ্চা ছেলের মা’কেও যদি সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে বলা হয় তাহলে সে অনায়াসেই দক্ষতার সাথে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করতে পারবে। যাহোক, অহেতুক অনেক কথা বলে ফেলেছি এবার কাজের কথায় আসি। মানে চলুন জেনে আসি সফটওয়্যারটি দিয়ে কী কী কাজ করা যায়।

১. সিস্টেম এবং রেজিস্ট্রি ক্লিন করে পিসির পারমেন্স বৃদ্ধি

সফটওয়্যারটিতে রয়েছে সিস্টেম ক্লিনিং এর জন্য এডভান্স টুলস। এর ফলে ব্রাউজার, বিভিন্ন সফটওয়্যার এবং কম্পিউটারের অন্যন্য প্রোগ্রাম কর্তৃক তৈরী হওয়া অপ্রয়োজনীয় ফাইলগুলো খুব সহজেই স্থায়ীভাবে ডিলেট হয়ে যায়। এছাড়াও কম্পিউটারের ইনভেলিট রেজিস্ট্রি ফাইল কিংবা ত্রুটিপূর্ণ রেজিস্ট্রি ফাইলগুলো ক্লিন করতেও সফটওয়্যারটির জুড়ি নেই। যেখানে এই কাজগুলো করতে আলাদা আলাদা সফটওয়্যারের প্রয়োজন হতো সেখানে এই একটি মাত্র সফটওয়্যারটিই সব কাজের জন্য যথেষ্ট।

২. জাঙ্ক ফাইল অপসারন করে

কম্পিউটারের জাঙ্ক ফাইল – ইনভেলিট শর্টকাট, খালি ফোল্ডার, জমা হওয়া টেমপোরারি ফাইল অপ্রয়োজনীয় ব্যাক আপ ফাইল ইত্যাদি নিখুঁতভাবে স্ক্যান করে সেগুলো সিস্টেম থেকে স্থায়ীভাবে ডিলেট করে সিস্টেমকে করে তুলে দ্রুত গতির।

ADs by Techtunes ADs

৩. কম্পিউটারের পারফরমেন্স বাড়াতে সিস্টেম সেটিংস এবং সার্ভিস মডিফিকেশন

একজন সাধারন কম্পিউটার ব্যবহারকারীর সিস্টেমের সব প্রোগ্রাম ব্যবহার করার দরকার হয় না। কিন্তু ব্যবহারকারীদের দরকার হোক বা না হোক সার্ভিসগুলো কিন্তু ঠিকই পিসিতে চলে। কম্পিউটারের পারফরমেন্স বাড়াতে আপনি অপ্রয়োজনীয় সেটিংস গুলো মডিফাই করে সিস্টেমকে আরও দ্রুতগতির করতে পারেন। স্পর্শকাতর প্রোগ্রামগুলো লিস্টে আনা হয়নি।

৪. বুট টাইম কমাতে স্টার্টআপ প্রোগ্রাম মোডিফিকেশন

অনেক এক্সপার্টগণ কম্পিউটার চালু হওয়ার সময় কমাতে সব ধরনের স্টার্টআপ প্রোগ্রামকে বন্ধ রাখার পরামর্শ দেন। কিন্তু এমন কিছু প্রোগ্রাম আছে সেগুলো কম্পিউটার স্টার্ট হওয়ামাত্রই চালু হওয়া দরকার। সেক্ষেত্রে কম্পিউটারকে নিরাপদে ব্যবহার করার জন্য এবং ইফেক্টিভ সিস্টেম স্টার্টআপের জন্য সফটওয়্যারটিতে রয়েছে এডভান্স স্টার্ট আপ ম্যানেজার। যার সাহায্যে আপনি স্টার্টআপ প্রোগ্রামগুলোকে প্রয়োজন অনুযায়ী ম্যানেজ করে কম্পিউটারের স্টার্টআপ টাইম কমিয়ে ফেলতে পারবেন।

৫. সিস্টেম মনিটরিং এবং স্পেইস ফ্রি করতে

কম্পিউটারের সার্বক্ষণিক সিস্টেম মনিটরিং, র‍্যাম এবং কম্পিউটারের স্পেইস ফ্রি করতে, অপ্রয়োজনীয় সফটওয়্যার এবং ম্যালওয়্যার থেকে সিস্টেম সুরক্ষিত রাখতে এতে রয়েছে আরও অত্যাধুনিক কিছু সুবিধা।

সব মিলিয়ে কম্পিউটার থাকবে সুপার ক্লিন। তবে সফটওয়্যারটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে অনুগ্রহ করে এখানে ক্লিক করে সফটওয়্যারটির অফিশিয়াল সাইট ভিজিট করুন।

ডাউনলোড

সফটওয়্যারটির সংক্ষিপ্ত ফিচারগুলো তো আপনারা দেখলেন। এবার বলুন এর চেয়ে কম সুবিধা সম্পন্ন CCleaner যদি এতো দামী সফটওয়্যার হয় তাহলে এটি আরও কতো দামী হবে? আর এর সাইজ কতো বিশাল হবে? আপনার কল্পনা যেখানেই যাক না কেন আপনাদের আজ অবাক হওয়ার পালা।

কারন এতো সুবিধা সম্পন্ন এই সফটওয়্যারটি সম্পূর্ণ ফ্রি। আর সাইজ মাত্র 0.87MB। এতো ছোট সাইজের একটি সফটওয়্যারের এতো বিশাল কাজ দেখে আপনারা নিশ্চয় ডাউনলোড করার লোভ সামলাতে পারছেন না? তাহলে আর দেরি না করে নিচের ডাউনলোড লিংক থেকে এখনি ঝটপট অসাধারন এই সফটওয়্যারটি নামিয়ে নিন।

ADs by Techtunes ADs

ডাউনলোড শেষ করে থাকলে শুধু ডাবল ক্লিক করে ইনস্টল করে নিন। এতে লুকানো কোন এডওয়্যার নাই। তাই চোখ বন্ধ করে শুধু নেক্সট নেক্সট আর নেক্সট চেপে ইনস্টল করে নিলেই সফটওয়্যারটি আপনাকে তার সর্বোচ্চ সেবা দিতে প্রস্তুত হয়ে যাবে। তবে আর বাকি থাকলো কী?

শেষ কথা

টিউনটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অথবা বুঝতে যদি কোন রকম সমস্যা হয় তাহলে আমাকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। কারন আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের টিউন করতে উৎসাহিত করবে। সর্বশেষ যে কথাটি বলবো সেটা হলো, আশাকরি এবং অপরকেও কপি পেস্ট টিউন করতে নিরুৎসাহিত করি। সবার সর্বাঙ্গিন মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি। দেখা হবে আগামী টিউনে।

আপনাদের জন্য » সানিম মাহবীর ফাহাদ

ADs by Techtunes ADs
Level 6

আমি সানিম মাহবীর ফাহাদ। Supreme Tuner, Techtunes বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 179 টি টিউন ও 3526 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 119 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

অন্য আর দশটা মানুষের মতোই একদিন এই পৃথিবীতে আসছিলাম। তারপর থেকে নিজের মতো করেই নিজের পৃথিবীতে বেঁচে আছি। এরপর একদিন টুপ করে জীবন্ত পৃথিবী থেকে ঝরে পড়বো। জীবনতো এটাই, তাই না?


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

এতোদিন CC Cleaner ব্যবহার করতাম.আজ থেকে nCleaner ধন্যবাদ ভাই আপনাকে ।

    জ্বি ভাই, দীর্ঘদিন ধরে একটা সফটওয়্যার ব্যবহার করতে করতে যেন শেকড় না গজায় সেজন্যই এই সফটওয়্যার। নতুনকে স্বাগত জানানোর জন্য ধইন্যা 🙂

আচ্ছা গতকাল যে system কি যেন ভুলে গেলাম তো 😛 সেরা দশ এর ১১ নং টিউনে যেটা নিয়ে আলোচনা করলেন সেটার কাজ আর এটার কাজ কি এক????

    না ভাই, গতকাল যেটা দিয়েছিলাম সেটা হলো সিস্টেম ইউটিলিটি সফটওয়্যার। কিন্তু আজকেরটা সিস্টেম ক্লিনার সফটওয়্যার। ইউটিলিটি সফটওয়্যারগুলো মুলত একই সাথে অনেক গুলো সফটওয়্যারের কাছ করে। তবে আজকের সফটওয়্যারটি ক্লিনার হলেও এটাও একটা ইউটিলিটি সফটওয়্যার।

অাসলে কাজের

সিস্টেম ইউটিলিটি সফটওয়্যার থেকে সিস্টেম ক্লিনার সফটওয়্যার অনেক ভালো।সিস্টেম ইউটিলিটি সফটওয়্যার কাজের থেকে অকাজ করে বেশি।

    কথা সত্য! আগে টিউন আপ ইউটিলিটি, সিস্টেম কেয়ার প্রো কতোকিছু ব্যবহার করতাম। এখন তার একটাও করিনা। আমি তো এন্টিভাইরাসও ব্যবহার করিনা। ভালোই আছি 🙂

ভাই আমি মাইক্রোসফট অফিস 2007 ইনস্টল
করব।নেটে অনেক খুজাখুজি করে 388.mb
exe একটা ফাইল downlod করে ইনস্টাল
দিলাম।কিন্তুু এটা প্রোডাক্ট কি
চাচ্ছে।তাছাড়া ব্যবহারও করতে
পারছি না। এখন কি করব? আমাকে একটা
ভাল মানের ২০০৭ এর ডাউনলোড
লিংক দেওয়ার অনুরুধ করছি।

    VBWYT-BBWKV-P86YX-G642C-3C3D3 ////////////2007 এটা দেন ok হবে। ধন্যবাদ

    Product Key and Serial Key Of MS Office 2007

    VBWYT-BBWKV-P86YX-G642C-3C3D3

    DQDV2-3TV93-3WW78-2CMV4-86QD3

    WP6B2-Y9FR6-WG2R6-KH2Q7-P9T33

    H7G9G-HQ46M-BKFG7-MPFF4-TMVYD

    F3DFQ-BGD6J-87QWY-TMXCV-8B2HQ

    RHMX7-M3T4C-2JF7R-VTDJV-KPBMB

    FR6D9-89FTC-87WC6-MM4PB-G6VYB

    GMG3P-FHGXW-VTQ94-4QW8F-VG2HM

    KJYPC-VDYR6-82242-PFR9R-688VM

    কামাল ভাইয়ের সিরিয়াল নাম্বারগুলো কাজে লাগান। আর টরেন্ট ডাউনলোডের সুযোগ থাকলে টরেন্ট থেকে একটা নামিয়ে ফেলতে পারেন। সর্বোচ্চ ৭০০ মেগাবাইট ডাটা খরচ হতে পারে।

ধইন্যার বস্তা walcame

খুব কাজ এর সফটওয়্যার, ধন্যবাদ ফাহাদ ভাইয়া,

কামাল হোসেন@ ভাই ওপেন হইছে কিন্তুু কোন কিছু টাইপ করা যাচ্ছে না।কেমন সাদা সাদা হয়ে আছে।কি করব?

ফাহাদ ভাই ওনার দরকার আমার কাছে ছিল তাই দিলাম মনে কট্শ নিবেন না ।চাইছে তো আপনার কাছে দিয়েছি আমি ।

    কি যে বলেন? আপনি তো আমারই অনেক সুবিধা করে দিলেন। আমারই উচিত ছিলো আপনাকে ধন্যবাদ দেওয়া। দেরিতে হলেও আপনাকে ৫ কেজি ধন্যবাদ।

ব্রাউজারে আক্রমন করা ম্যলওয়ার ক্লিন করতে পারে কি? এইসব ক্লিনারগুলোর একটা অসুবিধা হল কাজের জন্য আগে থেকে করে রাখা সেটিংসগুলোকেও ক্লিন করে দেয় যার ফলে ক্লিনার চালাবার পর আবার ভেবে ভেবে সেটিংসগুলো করতে হয়।

    জ্বি ভাই, ম্যালওয়্যারও ক্লিন করে। তবে ক্লিনিং এর আগে দেখে নিতে পারবেন যে কী কী ক্লিন করা হচ্ছে।
    বেসিক ক্লিনিংগুলো কিন্তু শতভাগ নিরাপদ। সুতরাং নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন। আর টিউমেন্টের জন্য ধইন্যা 🙂

Level New

ইউজার ইন্টারফেস তো মনে হয় সিক্লিনারের-ই ভালো। তবে এটা আর বেশি কার্যকর , যাই হোক, শেয়ার করার জন্য ধইন্যা

    ইন্টারফেইস এর চেয়ে কার্যকারীতা বেশি গুরুত্বপূর্ণ। তবে নিঃসন্দেহে এটি সিক্লিনারের চেয়ে বেশি ফিচার সমৃদ্ধ। ফাইনালি সহমতের জন্য ধইন্যা 🙂

সিসি ক্লিনার থেকে অনেক বেশী ইন্টারফেস ভেজাল যুক্ত, ভুল ভাল কিছু তে চাপ পরলেই ডাটা লস হয়ে যাবে।

    বেসিক ফিচারগুলো কোন সমস্যা হবে না। তবে এডভান্স ইউজ করতে গেলে তো এডভান্স কেয়ারফুল থাকতেই হবে। আপনি কি বলেন?

আমারও তাই মনে হচ্ছে, আশিকুর রহমান ভাই। তবে Try করে দেখলাম, বেশ Effective.

    বেশি সুবিধা থাকলে একটু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকবেই। তবে সতর্ক থাকতে হবে।

ধন্যবাদ ভাই !

ফাহাদ ভাইয়ের টিউনের জুরি নাই.. ধন্যবাদ ভাই।।

সাইজে ছোট তাই ডাউনলোড করলাম এবং ব্যবহারও করব ধন্যবাদ।

    আশা করি ডাউনলোড করার পর কিলোবাইটের অপচয়ও হবে না। টিউমেন্টের জন্য ধন্যবাদ 🙂

আহা মনটাই ভালো হয়ে গেল……আমার মতো “জগদ্বিখ্যাত অলসদের” জন্য এ যে আশীর্বাদ……ভিতরে বেশী না ঘেঁটে পিসি ক্লিন করতে তো আমার দুর্দান্ত লাগে :mrgreen: তবে ঝাড়ুদারের প্রমাণ কিন্তু তার ঝাড় দেয়াতেই – তাই অবশ্যই নামিয়ে ফেলব পরখ করতে 🙂

Off Topic: Revo Uninstaller Pro নামে এক বান্দাকে স্থাপন করেছি কিছুদিন গত হয়েছে- এটার একটা ফিচার হচ্ছে Evidence Remover- খাস বাংলায় “যাবতীয় কর্ম-অকর্মের ঝাড়ুদার” 😆 পিসির ডিলিটেড ফাইলও কিন্তু রিকভারি সফটওয়্যার দিয়ে রিকভার করা যায়, আর এই ফিচারটা এইসব ফাইলও ডিপলি ডিলিট করে দেয়- বেশ সময় লাগে যেকোন ড্রাইভ নিয়ে কাজ করতে!! জিনিসটা খারাপ না……
তো কইনচেন দেহি, আসলেই এই কাজটা কি ঘটে থাকে? মানে বিশ্বাসযোগ্যতা কতটুকু? এই অলসকে এই ভ্রান্তির হাত থেকে বাঁচিয়ে কৃতজ্ঞতাপাশে আবদ্ধ করুন- দরকার হলে টিউনও করেন- নু ফ্রবলেম 😛

*******টাইপো: স্প্যাস->স্পেইস……এই জামিন অযোগ্য ভুলটা কেমনে করলেন ❓ অনতিবিলম্বে জবাব দেন!!

    ঝাড়ুদার হিসাবে একেবারে খারাপ কাজ করবে বলে মনে হয় না। এডভান্স ফিচারগুলো এডভান্স ইউজার হিসাবে ব্যবহার করে দেখতে পারেন।
    সাধারনত ফাইল শ্রেডারের মাধ্যমে ফাইলগুলোকে চিরতরে ডিলিট করে দেওয়া যায়। আগের কোন এক টিউনে বিষয়টা মনে হয় বলেছিলাম।

    ইংরেজি বানানগুলো পড়তে সমস্যা না হলেও মাঝে মাঝে মনের ভুলে সঠিক উচ্চারণ অনুসারে লেখা হয় না। তবে এ জাতীয় ব্যাপারগুলো সাধারনত আমার চোখে পড়ে। তবে টিউনটি তাড়াহুড়া করে রাত বারোটার আগে পাবলিশড করতে গিয়ে ভুলটা চোখে পড়েনি। সংশোধন করে দিয়েছি, আর শোধরে দেওয়ার জন্য ধইন্যার পরিমাণটা একটু বাড়িয়ে দিলাম। চেটেপুটে খাবেন আশা করি 🙂

ডাউনলোড করলাম ভাই ব্যাবহার করে দেখি কেমন

vai, http://www.virustotal.com e to etake trojan hisabe dhorce,,,,, ekto check kore dekhben please!!

Thanks, jodio akta antivirus trojan hisabe dekhiyece, tobo ami mone kori nirapod,,,,

    এটা এন্টিভাইরাস বিষয়ে ফলস পজিটিভ এলার্ট। আপনি ব্যবহার করতে থাকুন, শতভাগ নিরাপদ।

Outstanding !
Size দেখে তো বিশ্বাসই করা যায় না …………………………………… কিছু বলার নেই ।

আমি Quick Heal ব্যাবহার করি তারপরেও কি এটা ব্যবহার করার দরকার আছে ফাহাদ ভাই ?

    ব্যবহার করে দেখতে পারেন। তাহলে তুলনামুলক সুবিধাগুলো বুঝতে পারবেন। ধন্যবাদ 🙂

download to hoy na