ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

Yahoo Mail, Gmail তো অনেক ব্যবহার করলেন! এবার ব্যবহার করুন Yahoo Mail, Gmail এর বিকল্প, জনপ্রিয় ও সেরা ৬ টি ফ্রি ইমেইল সার্ভিস!

টিউন বিভাগ ফ্রিওয়্যার
প্রকাশিত
জোসস করেছেন
Level 13
সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা

টেকটিউনস কমিউনিটি, কেমন আছেন সবাই? আশা করছি সবাই ভাল আছেন। বরাবরের মত আজকেও হাজির হলাম নতুন কিছু নিয়ে। তাহলে চলুন শুরু করি।

ADs by Techtunes ADs

শুরুর কথাঃ

আমরা বর্তমানে অনেকেই ইমেইল মানেই জিমেইলকে চিনি। ২০১২ সালে Hotmail কে পছনে ফেলে Gmail হয়ে উঠে বিশ্বের সব চেয়ে জনপ্রিয় ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডার। যেভাবে নতুন ফিচার যোগ হচ্ছে মনে হয় না এটিকে আর পেছনে ফিরতে হবে বা কখনো অন্য কেউ এটিকে বিট করতে পারবে।

অন্যদিকে আরেকটি জনপ্রিয় ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডার হচ্ছে Yahoo Mail। যদিও Gmail এর তুলনায় এর ব্যবহারকারী খুবই কম যেমন, ২০১৮ সালের শুরুতে এর ব্যবহারকারী ছিল মাত্র ২৫৫ মিলিয়ন। তবুও অন্যতম একটি গ্লোবাল ইমেইল ব্র্যান্ড হিসাবে Gmail এর পর সবাই Yahoo Mail কেই চিনে।

আমরা হয়তো অনেকেই এই দুই ইমেইলেই সীমাবদ্ধ থাকি। কিন্তু আপনি জানেন কি এই দুটি ছাড়াও আরও কিছু ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডার রয়েছে। আজকে আমি আপনাদের জানা অজানা এমন ৬ টি ইমেইল প্রোভাইডারের সাথে পরিচয় করিয়ে দেব যেগুলোর মাধ্যমেও আপনি ফ্রি ইমেইল সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন।

১. Microsoft Outlook

আমরা সবাই জানি মাইক্রোসফট খুব কম সার্ভিস ই ফ্রিতে দেয় যেমন, ফ্রি ইমেইল একাউন্ট, ফ্রি মডার্ন উইন্ডোজ অ্যাপ। সুতরাং আপনার জন্য সুখবর হচ্ছে এটি আপনাকে একটি ফ্রি ইমেইল সার্ভিস ও প্রোভাইড করে। Outlook.com চলে যান এবং সাইন-আপ করে নতুন একটি ইমেইল এড্রেস পেয়ে যাবেন।

Microsoft Outlook

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ Microsoft Outlook

Microsoft Outlook, Yahoo mail কে পেছনে ফেলে বর্তমানে বিশ্বের ২য় জনপ্রিয় ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডার। ২০১৬ সালের মাঝামাঝি সময় তারা জানায় Microsoft Outlook এর একটিভ ইউজারের সংখ্যা ৪৫০ মিলিয়নের বেশি।

একটি Outlook একাউন্ট ইউজারকে নানা ধরনের সুবিধা দেয় যেমন, এটি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের সাথে কানেক্ট হয়ে সকল কাজ করতে পারে, মাইক্রোসফট অ্যাপ স্টোরে কানেক্ট হতে ও এটি ব্যবহৃত হয় এবং Office 365 অ্যাপ এ কাজ করে।

ADs by Techtunes ADs

আপনি চাইলে Microsoft Outlook এর ওয়েব অ্যাপ এবং উইন্ডোজ ক্লায়েন্ট অ্যাপ দুটি ব্যবহার করেই ফ্রি ইমেইল সেবা পেতে পারেন।

২. GMX Mail

GMX হল United internet এর একটি সহায়ক সংস্থা এবং জার্মানির সর্ববৃহৎ ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার। ১৯৯৭ সাল থেকে এই ফ্রি ইমেইল সার্ভিস থাকলেও এটি লাস্ট কিছু বছর ধরে দারুণ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।

GMX Mail

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ GMX Mail

প্রতিমাসে মাত্র ১১ মিলিয়ন একটিভ ইউজার থাকলেও, ইউজার বিবেচনায় GMX Mail সেরা দশ ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডারের একটি। আশ্চর্যজনক ভাবে একটি পরিসংখ্যানে উঠে এসেছে এর জনপ্রিয়তা প্রায় Gmail, Yahoo Mail, Outlook এর মতই বেড়ে যাচ্ছে।

যদি GMX Mail এর ফিচার নিয়ে কথা বলি, এখানে আপনি ১ জিবি স্টোরেজ পাবেন, ৫০ এম্বি Attachment লিমিট, এবং IMAP, Pop দুটিই সাপোর্ট করে। GMX Mail এর দারুণ আরেকটি ফিচার হচ্ছে এটি ৬৫ জিবি ইমেইল স্টোরেজ প্রদান করে যা একজন ব্যবহারকারীর জন্য যথেষ্ট বলে মনে করছি। তবে এর একটি অসুবিধা হচ্ছে এখানে RSS Reader এবং Conversation View নেই।

৩. Zoho Mail

এই লিস্টের তরুণ একটি ইমেইল প্রোভাইডার হচ্ছে Zoho Mail যা ২০০৮ সালের অক্টোবর থেকে যাত্রা শুরু করে।

Zoho Mail

ADs by Techtunes ADs

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ Zoho Mail

Zoho Mail এই কম সময়ের মধ্যেই Gmail, Yahoo Mail, Outlooks এর বাইরে নিজেকে সেরা ফ্রি ইমেইল সার্ভিস হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। এটি একটি এড-ফ্রি ওয়েব-ক্লায়েন্ট প্রোভাইড করে, এমনকি ফ্রি ইউজারদের জন্যও। Zoho Mail  নয় বছরে ১০ মিলিয়নেরও বেশি একটিভ ইউজার বাড়াতে সক্ষম হয়েছে।

Zoho Mail অ্যাপটিতে আপনি অন্য সকল ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডাদের মতই সেবা পেতে পারেন যেমন, মাল্টি লেভেল ফোল্ডার, কনভারসেশন ভিউ, ড্রাগ এন্ড ড্রপ ইন-বক্স সাজানো, এবং ফিল্টারিং। আপনি চাইলে ফ্রিতে নিজের ডোমেইনেও এই ইমেইল সার্ভিস সেট করে নিতে পারেন। তবে এখানে কোন ইন্টিগ্রেটেড ভিডিও চ্যাট পাবেন না।

অফিস ম্যানেজমেন্ট টুলের অন্যতম একটি অংশ এই Zoho mail। এটি Microsoft Office এর অন্যতম বিকল্প "Zoho Docs" এর সাথে সংযুক্ত থাকে। এখানে বলে রাখা ভাল Zoho Docs একটি অফিস ম্যানেজমেন্ট টুল যা দিয়ে টেক্স ফাইল, প্রেজেন্টেশন, স্প্রেডশিট ডকুমেন্ট ইত্যাদি তৈরি, এডিট, এবং কোলাবোরেট করা যায়।

৪. iCloud

Apple এর একটি ফ্রি ইমেইল সার্ভিস হচ্ছে iCloud। অধিকা Mac, iPad, iPhone ইউজারদের একটি একাউন্ট থাকে। এই iCloud হচ্ছে Apple এর ক্লাউড সার্ভিস। এর মাধ্যমে Apple এর মত সার্ভিস গুলো পরিচালিত হয়। ফ্রি ইমেইল সার্ভিস এরই একটি অংশ।

iCloud

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ iCloud

এই iCloud অ্যাপ টি গর্বের সাথে ৭২০ মিলিয়ন ইউজার ধারণ করে তবে এখানে এটি পরিষ্কার নয় ঠিক কত জন তাদের @icloud.com ইমেইল এড্রেসটি আলাদা ভাবে ব্যবহার করে।

মাইক্রোসফটের এর Outlook এর মতই iCloud এর Mac এবং iOs ইউজারদের জন্যও ইন্টিগ্রেটেড মেইল ক্লায়েন্ট রয়েছে। এর মোবাইলে অ্যাপ এ আপনি যেকোনো ইমেইল প্রোভাইডার এড করতে পারলেও, ওয়েব ক্লায়েন্টে শুধু মাত্র @icloud.com ব্যবহার করার সুযোগ পাবেন।

ADs by Techtunes ADs

সকল iCloud ইউজাররা ফ্রিতে ৫ জিবি স্টোরেজ পাবেন। তবে এখানে বিভিন্ন ডকুমেন্ট, ফটো, এবং অন্যান্য ইমেইল লিমিট ছাড়াই ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি স্টোরেজ বাড়াতে চান তাহলে নির্ধারিত পেমেন্ট করে সেটা বাড়িয়ে নিতে পারেন।

৫. AOL Mail

বলতে গেলে সকল ফ্রি ইমেইলের দাদু হচ্ছে এই AOL Mail। এটি যাত্রা শুরু করে ১৯৯৩ সালের মার্চে যার Hotmail থেকে ৩ বছর, Yahoo Mail থেকে ৪ বছর, এবং Gmail থেকে প্রায় ১০ বছরের বড়।

AOL Mail

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ AOL Mail

সবচেয়ে পুরাতন হওয়াতে AOL Mail এর বিশাল ইউজার বেজ রয়েছে। যদিও লাস্ট কিছু বছর যাবত এর ব্যবহারকারী কিছু কমেছে। ২০০৬ সালে এর মাসিক একটিভ মেম্বার ছিল ৫০ মিলিয়ন। বর্তমানে AOL Mail এর একটিভ ইউজার সংখ্যা প্রায় ২৫ মিলিয়ন।

তবে এখানে একটি বিষয় লক্ষণীয় যে,  AOL Mail অন্যতম পরিচিত ইমেইল ব্র্যান্ড হলেও এমন নয় যে আপনি অন্য ইমেইল না ব্যবহার করে এটিই করবেন। সম্প্রতি বিভিন্ন রিসার্চে ইমেইল পক্ষপাতিত্ব বিষয়টি উঠে এসেছে। বর্তমানে কোন অর্গানাইজেশনের কর্মী নিয়োগে যারা AOL অথবা Hotmail ব্যবহার করে তাদের তুলনামূলক কম নিয়োগ দেয়া হয়। ধারনা হয়ে যারা এই মেইল গুলো ব্যবহার করে তারা সেই ১৯৯৬ সালেই আটকে আছে।

৬. ProtonMail

ProtonMail ইমেইল দুনিয়ায় একদম বাচ্চা হলেও এটি দ্রুত জনপ্রিয়তা পেয়ে যাচ্ছে। সংস্থাটি ২০১৪ সালে সুইজারল্যান্ডে প্রতিষ্ঠিত হয় এবং বর্তমানে সেখানেই পরিচালিত হচ্ছে। এটি সুইজারল্যান্ডের  Federal Data Protection Act এবং Federal Data Protection Ordinance এর সহয়তায় বিশ্বের সব চেয়ে শক্তিশালী ইউজার প্রাইভেসি নিরাপত্তা প্রদান করছে।

ProtonMail

ADs by Techtunes ADs

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট @ ProtonMail

ProtonMail এর গুরুত্বপূর্ণ একটি দিক হল, এটি ব্যবহারকারীর কন্টেন্ট এর সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিতে ক্লায়েন্ট সাইড এনক্রিপশন ব্যবহার করে। এর মানে হচ্ছে ProtonMail এমন ভাবে ডেভেলপ করা যা কোম্পানির পক্ষেও যেকোনো ইউজারের ইমেইল চেক করার ক্ষমতা  নেই। সুতরাং থার্ড-পার্টির কাছে আপনার তথ্য চলে যাবার কোন সুযোগই থাকে না। আর এই সুবিধাটিই অন্য ইমেইল যেমন, Gmail, Hotmail থেকে ProtonMail কে আলাদাভাবে পরিচিত করেছে।

অন্যান্য ফিচারের কথা বললে, এর সাইন-আপ এর জন্য খুব কম তথ্যের দরকার হয়, ইমেইল ট্র্যাকিং হবে না, লগইন সেশন সেভ হবে না, এবং এতে রয়েছে Self-destructing মেসেজ।

শেষ কথাঃ

Gmail, Yahoo Mail ছাড়াও আরও ছয়টি ফ্রি ইমেইল সার্ভিস নিয়ে আলোচনা করলাম। অনেক ইউজারই  বর্তমানে এই মেইল গুলো ব্যবহার করছে তবে হতে পারে আপনি আজকেই জানলেন তাই কখনো ব্যবহার করা হয় নি। আশা করছি ব্যবহার করে দেখবেন।

কেমন হল আজকের টিউন জানাতে অবশ্যই টিউমেন্ট করুন। আমাদের জানান কোন ইমেইলটি আপনার কাছে সেরা মনে হয়েছে।

ADs by Techtunes ADs
Level 13

আমি সোহানুর রহমান। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস, ঢাকা। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 2 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 191 টি টিউন ও 184 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 41 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

কখনো কখনো প্রজাপতির ডানা ঝাপটানোর মত ঘটনা পুরো পৃথিবী বদলে দিতে পারে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস