ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

অনলাইন আয়ে লাভ-ক্ষতির সহজ সমীকরন, আলোচনার গোল টেবিলে ঘুরে ফিরে পিটিসি !! প্রযুক্তির নতুন নতুন শব্দ ফাদে সাধারণ মানুষ, নিস্তার পেতে আমাদের করনীয়!!!

পিটিসি নিয়ে টিটিতে দারুন এক নিবার্চিতটিউন, কথাগুলি দারুন গোছালো হৃদয় ছুয়ে যাবার মত, প্রতিটি লাইন খুব মনোযোগ দিয়ে পড়লাম, তারপর মন্তব্য গুলিতে চোখ বুলিয়ে ভালই লাগল। আমরা যে এখানে বার বার ঘুরে ফিরে আসছি, এ নিয়ে আমার টিটিতে একটা টিউন ছিল "**************ক্লিকের ধুম" অনেকই হয়ত পড়েছেন। পাঠকের তালিকা কম ছিলনা। সে দিনও প্রতিবাদ করার জন্য অনেকেই আওয়াজ দিয়েছেন আমার সাথে।

ADs by Techtunes ADs

ভাইয়ে আজকের সেরা টিউনটি ফ্রিল্যান্সিং এর টাইটেল লাগিয়ে আর কত প্রতারনা করবেন !!! সত্যিই দারুন এককথা বেশ চমকপ্রদ। প্রযুক্তিগত কিছু কিছু শব্দ আমাদের বাংলাভাষায় যোগ হয়েছে যে গুলির বাংলা সত্যিকার অর্থ খুজে পাওয়া যায়না অভিধানে। তাই সহজ সমাধান ইংরেজী শব্দ ভান্ডারের শব্দগুলিকে বাংলা হিসাবে চালিয়ে যাচ্ছি আমরা। ফ্রিল্যান্সার মানে বলতে আমি বাংলাঅনুবাদ পেয়েছি- ফ্রিল্যান্সার (গুগোল থেকে)। যা হবার তাই আমার সাধারণ মাথায় আমি সাধারন ভাবঅর্থ যা বুঝি তা নিয়ে কাজ চালাতে হবে আমার পাঠকের, “ ফ্রিল্যান্সার” মানে- যে কোন প্রতিষ্ঠানে স্বাধীন ভাবে কাজ করা, যে কাজটিতে নির্ধারণ মাসিক বেতন সাধারণত থাকে না, কাজের গুরুত্ব/মান অনুযায়ী দরের সীমানা বলে দেয়া থাকে সেখানে বিড করে ভাল রেটে কাজ করা হয় উভয়ে সম্মতিক্রমে। অর্থ দাড়ালো এখানে কর্মচারী একজন, মালিক অসংখ্, আপত দৃষ্টিতে চাকুরীর বিপরীত তাইনা? এখানে যে কোন ধরনের কাজই আপনি করার যোগ্যতা থাকলে বিড করে বায়ার সম্মত হলে করতে পারেন, এক্ষেত্রে যে প্রতিষ্ঠান আপনার মিডিয়া হবে সে কিছু টাকা কমিশন আপনার কাছ থেকে নেবে, দেশের সরকার/প্রশাসন, অর্থ প্রদানকারি প্রতিষ্ঠানও কিছু টাকা কমিশন বাবদ কর্তন করবেন। অবশেষে যা থাকবে তাই হলো আপনার অর্জিত আয়। আমি জানিনা আমার পাঠক এ ধরনের সংগা মেনে নেবেন কিনা। ফ্রিল্যান্সিং এর অনেক প্রতিষ্ঠানই মেটামুটি এধরনের কাজ করিয়ে থাকেন।

পিটিসি- এটা কি ধরনের কাজ? একটা উদাহরণ সহ বলার চেষ্টা করি, আমরা প্রতিনিয়ত টেলিভিষন দেখি, অনেক সুন্দর সুন্দর কোট বা বাক্য মন ছুয়ে যায় তার মধ্যে আমার কানে ভাসছে একটা কোট "তোমাকে দিয়ে কিছু হবেনা, জীবনে এমন কথা শোনে নাই তেমন সৌভাগ্যবান ব্যক্তি পাওয়া যায় না।" অসাধারণ একটা কোটেশন। আসলে আমাকে দিয়ে কিছু হবেনা এটা আমি নিজেও বুঝি তাই হয়তো আমার কথাটি খুব ভাল লেগেছে। এখানে আমার ভাল লাগার কথা ঐ নির্দিষ্ট কোম্পানী জানে না। কিন্তু আমি কোন পিটিসি সাইটের মাধ্যমে এই কথা ভাল লাগলে লাইক দিয়ে বা ক্লিক করে সাড়া দিলে ঐ কোম্পানী অবশ্যই জানতে পারবে। কোম্পানী খুশি হয়ে আমার পিছনে টাকা খরচ করবে, মধ্য সত্তার মাধ্যমে। তাহলে আমরা অন্তত এটা বুঝি যে পিটিসি বলে কিছু থাকার সম্ভাবনা আছে। আদি ও বর্তমান সময় একটা বিষয় স্পষ্ট যে পৃথিবীতে প্রায় সব ক্ষেত্রেই প্রতিটি দান প্রতিদান চায়। আমি বিজ্ঞাপন দেখে কিছু পেলে মন্দ হয়না তাইনা। অর্থ দাড়ালো পিটিসি সাইট থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায়না। অনেকে টাকা তুলেছেন বিদেশী পিটিসি সাইট থেকে (যদিও আমাদের দেশে প্রচলিত পিটিসি সাইটের তুলনায় কাজের পরিশ্রমিক অনেক কম) তারা আমার চেয়ে ভাল বুঝাতে পারবেন এই বিষয়টি।

ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ যারা রাত জেগে করেন। অল্প বিস্তর আয় করেছেন এর মাধ্যমে টিটিতে এমন অনেক সদস্য আছেন আমি জানি, আমাদের দেশে পিটিসি সাইটে কাজ করলেই মানুষ খারাপ ভাবছে আজ টিটির কিছু টিউন ও মন্তব্য পড়ে স্পষ্ট প্রমান হয়েছে বলে আমার মনে হয়। আমি আমার টিউনেও বলে লিছলাম মেধাবীদের জায়গা এটা নয়। একজন সুশিক্ষিত মানুষ দিন মজুরীর কাজ করলে আমারা বাকা চোখে তাকাবোই এতে সন্দেহ নাই কেননা আমরা আর কিছু না পারলে সমালচনা করতে খুব ভাল পরি যার জন্যই আমরা দ্রুত সফল হতে পারি জাতি হিসাবে। আমাদের কাজ সমালোচনার মাধ্যমে দারুন ভাবে মুল্যায়িত হয়। আমি কি করছি তার চেয়ে আমাদের ভাবনা আমার প্রতিবেশী কি করছে এটাতেই।

আমাদের দেশে বেকারত্বর হার বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রতিনিয়ত, মাথা পিছু কর্মসংস্থান পৌছেছে শুন্যের কোঠায় (যদি কোন কোটা, রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ার বহিরভুত হন), ঘর পরিবার প্রিয়জন সব ছেড়ে বিদেশে রোজগারের জন্য গিয়েও সেখানে নিজেদের নিরাপত্তা পাওয়া কঠিন হয়ে উঠছে দিন দিন। বৈদেশিক বাজার দিনে দিনে আমাদের জন্য নষ্ট হতেই আছে। হুমকীর মুখে পড়ছে জন জীবন, সুস্থ্ মানসিক বিকাশ এখন স্বপ্ন মাত্র। ঘরে, পথে কোথাও নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়না সাধারণ মানুষের, প্রতিদিন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় ডজন উর্ধ অপমৃত্যুর সংবাদ দিয়ে দিন শেষ হয়। পরবর্তী প্রজন্মকে ভাল কিছু উপহার দেয়া দুরসাধ্য হয়ে উঠেছে। দ্রব্য মুল্য উর্দ্ধগতি, জন জীবন হয়ে উঠেছে দুর্বিষহ,  সত পথে নির্ধারিত আয়ের সুযোগ না থাকায় মানুষ যে ভাবে পারছে শুধু আয়ের কথা ভাবছে, তাতে কার কি ক্ষতি হবে সে বিষয় ভাবার খুব কম লোকেরই সময় আছে। তবু স্বপ্ন দেখতে মানা নেই কেননা স্বপ্নর মধ্যেই বাচে মানুষ, সুন্দর স্বপ্ন আছে বলে আমরা বেচে আছি।  আমাদের দেশের শাসক ও শোষিতের মধ্যে ব্যবধান দিন দিন গানিতিক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। শাসক শ্রেনীর মানুষগুলো সাধারণ মানুষের জন্ম থেকে মৃত্যু অবধী শোষন করে তার জীবনের সুখ, স্বাচ্ছন্দও সাধারণ জীবনকে। সাধারণ মানুষ, তার জীবন, অর্থ, সামাজিকতা, পেশা, বৃত্তি সকল স্তরেই রাজনীতির স্বীকার হয়। আমাদের দারিদ্র, ক্ষুধা, অসহায়ত্বকে পুজি করে চলে সংসদ এখানে জীবনের মৌলিক চাহিদা মেটাতে আমরা অক্ষম কিন্তু বড় বাবুদের মারসিডিজ, ফেরারীর আথবা আরও উন্নত টায়ারে পিসছে আমাদের মস্তক, শরীর, জীবন। আমাদের কাদতেও মানা। প্রতিবাদ করলে লাঠি পেটা হয়রানি জেল সইতে হয় বিচারের নামে প্রহশনের ফাদে পড়ে।

আজ পিটিসি সাইটের বিরুদ্ধে গণ সচেতনতার প্রয়োজনীতা অনুভব করছি টিটির পাঠক কিন্তু এর নজরদারীর জন্য আমরা সরকারকে ভ্যাট, ট্যাক্স উতসেকর সহ নানাবিধ ভাবে অর্থ ও সমর্থন দিয়ে আসছি। বিলাস বহুল জীবন যাপন করে আমলাগণ আমাদের কষ্টার্জিত টাকাগুলি তারা ধুলায়, অথবা বাতাসে উড়ায় কেউবা দেশে না রেখে বিদেশে বিলাসবহুল হোটেল, ইন্ডাষ্ট্রি তৌরী করে। আমি আপনি কাজের অভাবে ভুভুক্ষা হয়ে পড়ে থাকি রাস্তার পাশে।

আমি ডুল্যান্সার বা কোন সাইটের পক্ষে বলছি না। আমাদের সচেতন হতে হবে এতে কোন সন্দেহ নেই যারা আমাদের মানুষ না ভেবে পন্য ভাবে তাদের নাকের ডগায় এমন অনেক কম্পানীই ট্যাক্স দিয়ে আমাদের কষ্টার্জিত টাকায় আরাম আয়েশ করে। কালো টাকা গুলি সাদা হয়ে যায়, ট্যাক্স জমা দিয়েই (কি সুন্দর নিয়ম)। ভাই যাদের দায়িত্ব তারা বিষয়টি ভাবলে আমি আপনি প্রতারিত হওয়ার কথা চিন্তাও করতাম না।

ফ্রিল্যাসিং ও পিটিসিতে কাজ প্রায় কাছাকাছি যায়গায় অবস্থান তবে অবশ্যই কিছু মৌলিক ব্যবধান যেমন রয়েছে তেমনি আছে অন্তমিলও। যদি কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান প্রতারক হয় সে ক্ষেত্রে দেশের সরকার, আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা, নিবন্ধন কর্তৃপক্ষ, অর্থ আদানপ্রদান কারী সংস্থা / প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি মালিকানায় স্থানীয় ভাবে পরিচালিত অফিস, অনলাইন নজরদারী প্রতিষ্ঠান, গোয়েন্দা বিভাগ সহ অরও অনেক সরকারী ও বেসরকারী সংস্থা বা প্রতিষ্ঠান চোখ খুলে ঘুমাচ্ছে। আমি/আপনি সচেতন হলে কতটা রক্ষা পাব জানিনা। তবে আমার কাছে মনে হচ্ছে আমার সামনে একটা ৩০টন পন্যবাহী ট্রাক আমাকে চাপা দিতে আসছে, আমি দেখছি খুব সচেতন ভাবে ফুটপাত দিয়ে হাটছি, চিতকার করছি আমাকে মেরনা আমাকে মেরনা, ট্রাক চালক খুব সচেতন ছিল ব্রেকে পা দিয়ে ভাবল মরলে ২০,০০০/= টাকা যাবে, ব্রেক কষার দরকার নাই। আমার সচেতনতার মুল্য কি?!!!!!!। এখানে শুধু আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সচেতন হলেই আমার জীবন বাচত, সত্যিকি তাই নয়? আসুন তারচেয়ে যাদের সচেতনতার দরকার তাদের বোধউদয় হোক সেই দোয়া করি। আর কেউ যদি আয় করার বৈধ উপায় পায় তাকে সহায়তা করি। ও হ্যা এমএলএম সম্রাট আমাদের কতকিছু দিয়েছে !!!! ডায়মন্ড, ডায়মন্ড, ডায়মন্ড হবই।...? কতটাকা দিলেন জনগনের ডয়মন্ড হবার জন্য একবার ভেবে দেখুন, আমাদের বড় এ্যাচিভমেন্ট শাহারুক খানকে দেখছি। প্রতি টিকিটের মুল্য ৳............!!! ছিল, আমাদের কোম্পানীর গাড়ির ফ্যাক্টরী আছে, বিমান বানায়, হাউসিং প্রোজেক্ট আছে, গাছ লাগায়, (গাছ কৈ ভাই?- ছাগলে খাইছে) বাংলাদেশই ছিল না, দেশই বানায় ফালাইছি, দেখেন না কি করি, বাড়ি বেচব, গরু বেচব, বাপের টাকা যা আছে সব দেব ডায়মন্ড হবই ডায়মন্ড হব....। সম্রাট যে কি দেবে(!)। কে দেখবে আমাদের ভাই সরকার, না সরকারকে আমরা। খালি ভোট চাই সংসদে অসালিন ভাষা, আমরা বাহাবা দেই। আজ ......... আপায় যা দিছে না, স্পিকার ও লজ্জা পাইছে( সে লজ্জা পাই নাই)। আমাদের ভাল অভিভাবক চাই। শুধু পিটিসি তাড়ালে হবে না পিটিসির সহায়তাকারীদের তাড়ান তাহলেই, ঠাকুর ঘরে কে রে? প্রশ্ন করলে কলা খাইনি উত্তর পাবেন না। টিটির সকল পাঠকের জন্য রইল শুভকামনা.........

(বি:দ্র: এই টিউনটি কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে উদ্দেশ্য করে লেখা হয় নাই, টিউনটি জনসচেতনতা মুলক বিধায় টিউনটি টিটির সচেতন টিউনারদের উতসর্গ করা হলো)

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মনির শিকদার। Programmer, Rabeya Jute Mills, Chapainawabganj। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 11 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 88 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 2 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

I am working as a programmer at Rabeya Jute Mills, Chapainawabganj, Bangladesh. Expert in Visual Basic, HTML, PHP, MySql, Wordpress, SEO, Webdesign, Web development, Basic Computer Troubleshooting, Database maintenance, Photoshop etc. Interested to help others.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আজকে এক বড় ভাইয়ের সাথে কথা হলো তার কাছের বন্ধু নিজে একটা পিটিসি সাইট খুলে বেশ আয় করছে, আর বন্ধুদের সাইটগুলো ক্লিক করিয়ে বন্ধুত্ব পালন করছে!!! এরকম নি:স্বার্থ বন্ধু থাকার পরও আমি ওই সাইটে আইডি খুলবার কথা বললে বড় ভাই নিজ থেকে নিষেধ করলেন!!!!

এথেকে পিটিসি সাইট সম্পর্কে আমি ভালোই ধারণা পেলাম!!!
বি দ্র : বড় ভাই টেকটিউনস এর ভক্ত তাই সাইটটার নাম উল্লেখ করলাম না!!!!
নইলে পরে আমার খবর আছে!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

খুব ভাল লাগছে ভাই।প্রাণ খুইলা দুইটা কথা কইসেন।

লালন বলে গেছেন সত্য কথায় কেউ নয় রাজি! সবাই বলে তা-না-না-না। ভাই আপনি সত্য বলার সাহস পাইলেন কই? আমলারে খ্যাপাইলে খবর আছে!!!!!!!!!!!

P T C সাইট কি ১০০% ই ভুয়া ?এ যাবত যে কয়টি পোষ্ট পড়েছি সবাই বলেছে ৯৯% ভুয়া, যদি ৯৯% ভুয়া হয়,তবে ১% এর ঠিকানা টা দিন।

সব ব্ব ভহগ্যফহ ঘ্যগ

ধন্যবাদ আজিজুল ইসলাম।
ফ্রিল্যান্সিং এ যাদের নূন্যতম জ্ঞান রাখেন তারাও জানেন সব পিটিসি সাইট ই স্ক্যাম নয়। কিছু কিছু পিটিসি সাইট আছে তারা সত্যি সত্যি পেমেন্ট করে(গত ৩/৪ বছর যাবত সবসময় টাকা পেমেন্ট করছে), এবং আমি পেমেন্ট প্রুফ সহ অনেক কষ্ট করে ২ টা পোষ্ট দিয়েছিলাম কিন্ত এডমিন মহোদয়ের মনপুতঃ হয়ত বা হয় নাই। যারা ১০০% পেমেন্ট করে আমি চেয়েছিলাম যারা একেবারেই কাজ পারে না তারা অন্তত পক্ষে অন্য যেকোন কাজের পাশাপাপাশি যাতে পিটিসি সাইটে কাজ করতে পারে এতে তার কিছুটা হলেও লাভ হত।
আপনারা যারা সত্যি সত্যি পিটিসি থেকে কিছু ডলার আয় করতে চান তারা গুগলে “বার্ণসিল” (অবশ্যই বাংলায়) লিখে খোঁজ করুন। বিভিন্ন ব্লগে আমার লেখা কিছু পোস্ট দেখতে পারবেন।
বি:দ্র: আমনাদের সবার প্রতি আমার অনুরোধ শুধু পিটিসি সাইটে কাজ করে খুব ভাল আয় করতে পারবেন না এবং আয় করতে হলে নূন্যতম ৩/৪ মাস সময় দিতে হবে।
## আমি চাইব আপনারা পিটিসি পাশাপাশি অনলাইনে যেকোন কাজ(গ্রফিক্স,এসইও…….) শিখুন তাহলে আপনি দেখবেন ৫/৬ মাসের মাঝে একটা সম্মানজনক পর্য়ায়ে পৌছাতে পারবেন বলে আমার বিশ্বাস।

Level 0

vai valo onek ptc site ase. majhe majhe kaj korle besi somoy lage na.

barnsil & ank bhai,apnara website ar address ta dia den.tahole amra o dekhte parbo…