ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

জুলিয়া, আমি তোমারে ন ভুলিবারে চাই

এই যে টিউনটি লিখছি, এটা লিখছি জুলিয়া দিয়ে, ওপেন অফিস ব্যাবহার করে। সো, আমি যে একজন লিনাক্স ইউজার তা সকলেই বুঝতে পারছেন। প্রকৃত অর্থে আমি একজন লার্নার। লিনাক্স কিভাবে ইউজ করতে হয় তা শিখছি। প্রতিদিন নতুন নতুন কিছু শিখছিও। প্রায় এক-দেড় মাস ধরে (সময়টা অনেকের কাছে কম মনে হবে) লিনাক্স ব্যাবহার করছি আর শিখছি। অনেক কিছুই যখন প্রথম প্রথম বুঝতাম না, ভাবতাম এটা বোধহয় লিনাক্সের ড্র-ব্যাক। তবে এখন শিখতে শিখেছি।

ADs by Techtunes ADs

যাইহোক, এখন একটু কম্পেয়ারে আসি। তার আগে বলে নেই, আমি একজন জেনারেল হোম ইউজার মাত্র। প্রথমেই বলি আউটলুক এর কথা। জুলিয়া ডার্লিং রে ইনষ্টল করার পর এর ক্ষেতিস মার্কা চেহারা দেখে ভয়ে দৌড়ে পালানোর অবস্থা হয়েছিলো। আস্তে আস্তে থিম কাস্টমাইজ করা, নতুন নতুন থিম ইনষ্টল দেয়া সহ আরও অনেক কিছু শিখেছি, আর বুঝেছি, অমন অরুপ রুপ, জুলিয়া ছাড়া আর কার হতে পারে? এই বিচারে অন্তত, জানালা ছেড়ে আমি দরজার সাক্ষাৎ পেয়েছি।

আগেই বলেছি, আমি হোম ইউজার। তাই ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কিছু কাস্টমাইজেশান আমি খুব পছন্দ করি। যা আগে পারতাম না, এখন পারি। একটা উদাহরণই দিয়ে ফেলি, জানালা-৭ এর ওয়ালপেপার চেঞ্জারটা আমার খুব ভালো লাগতো। আমি আবার অরিজিনাল জানালা ব্যাবহারকারী, রীতিমত টাকা খরচ করে। যাইহোক, পরে যখন জানলাম ছোট্ট একটা এপ্লিকেশান (Drapes অথবা Wally) ব্যাবহার করে জুলিয়ার ওয়ালপেপারও চেঞ্জ করা যায়, ডার্লিং এর প্রতি আমার ভালোবাসা কেবল ধনাত্মক রুপ ধারণ করা শুরু করলো। (এজাতীয় অসংখ্য কাস্টমাইজেশানের কথা আর নাই বললাম।)

কী পাইনি? পেয়েছি সবই, যা চেয়েছি; তাও আবার মনের মত করে। জানালায় উকি মেরেও পেতাম; তবে মনের মত করে না। যখন যেটা প্রয়োজন হচ্ছে, প্যাকেজ ম্যানেজারে গিয়ে সিলেক্ট করে ইনষ্টল করে নিলেই হল। মজাই মজা। শুধু জানতে হবে, কী চাই? শুরুতে আমি অবশ্য কী চাইতে হবে, কিভাবে চাইতে হবে তা জানতাম না। ঐযে বললাম, শিখতে শিখেছি। আমি ভাই একটা জিনিস বুঝি, টাকা দিয়ে ল্যাপ্পি কিনে কাস্টমাইজ করতে পারবোনা, এটা হবে না। জানালায় উকি দিয়ে শুধু ব্যাবহারই করেছি, ইচ্ছেমত বা প্রয়োজনমত পরিবর্তন করতে পারিনি, জুলিয়া ডার্লিং দিয়ে এখন পারি। একটা স্যাম্পল দেই, জানালায় শুধু "Start" দেখে যেতে হয়েছে, আর জুলিয়া'র 'মেনু' হয়েছে "বাংলার নবাব"। ডার্লিং প্রতি আমার ভালোবাসা জোয়ারের পানির মত ফুঁসতে শুরু করেছে।

অবশ্যই বলবো, ড্রাইভারের সমস্যা। জানালায় যতদিন থেকেছি, হাজারও রকমের ড্রাইভার ইনষ্টল দিতে দিতে পাগল হয়ে গিয়েছি। আহ কি মজা! এখনকার কথা বলছি। আমি ভাই মোবাইল দিয়ে নেট ইউজ করি, কোন পিসি সুট বা অভিসুটের আমার দরকার হয় না। শুধু ক্লিক কানেক্ট, আর কানেক্টেড। কতকিছু যে না চাইতেই পেয়েছি! পিডিএফ ক্রিয়েটর-এর কথা বলতেই হবে। অনেক সাধ্যি (আমার সাধ্যি ঐ খোজঁখুজির মধ্যেই সীমাবদ্ধ) করে জানালার জন্য একখান পিডিএফ ক্রিয়েটর পেয়েছিলাম, সেও আবার এক নাচুনে বুড়ি। জুলিয়া ডার্লিং আমারে সেই আস্পর্ধা এমনি এমনিই দিয়ে দিলো। ব্যাস, যখন যে ওয়েবপেজ গুরুত্বপূর্ণ মনে করি, সাথে সাথেই পিডিএফ প্রিটিং। মজাই মজা। জুলিয়ার প্রতি আমার ভালোবাসার বান ডেকেছে।

ভাবছেন, প্রেম করলাম কিন্তু প্রেমিকার অনলবর্ষী বাক্যবাণে জর্জরিত হলাম না, সেকি হয়! হয়ও নি। যে ভালোবাসা বান ডেকেছিলো, তা এখন বিধংসী বন্যার রুপ ধারণ করেছে। একটু খুলেই বলি। গুগলিং বলেন আর ফোরামিং বলেন, কোথাও কিভাবে হার্ডডিস্ক থেকে সফটওয়্যার ইনষ্টল করতে হয়, তা স্পষ্ট করে বলা নেই। তাই শিখতেও পারলাম না। সমস্যা দিয়েই শুরু করি, ফায়ারফক্স থেকে ডার্লিং এর উপযোগী Tar.baz2 এক্সটেনশানের ল্যাটেস্ট ভার্সনটা নামিয়েছিলাম। ডাবল ক্লিক হোক আর প্যাকেজ ম্যানেজারে যেয়েই হোক, সেটা ইনষ্টল করার কোন উপায় খুঁজে পাইনি। ফায়ারফক্সের ওয়েবসাইটে অবশ্য ইন্সট্রাকশান্স দেয়া আছে, কিন্তু সেটা কমান্ড লাইন ব্যবহার করে। গ্রাফিক্যাল কোন ইন্সট্রাকশান্স দেয়া নেই। আচ্ছা বলুন তো, আমি একজন হোম ইউজার। আমি কোন দুঃখে কমান্ড লাইন মুখস্ত করতে যাবো? আমার চাই কমপ্লিট গ্রাফিক্যাল ওয়ে। ক্লিক আফটার ক্লিক-- ডান। ব্যাস! তা কিন্তু খুব সহজে পাচ্ছি না। ডার্লিং এর মুখ থুবড়ে পড়েছে।

কমান্ড লাইনের ক্ষেত্রে আমার অবস্থান খুবই শক্ত। সেটা সাধারণ ইউজারদের জন্য অনুপোযুক্ত, তাই জানালা সে প্রযুক্তি ছেড়ে গ্রাজুয়ালী গ্রাফিকাল কমান্ডের উপর জোর দিয়েছে। আমার মত মুর্খ ইউজাররা নির্বিঘ্নে শুধু ক্লিক করেই প্রয়োজনীয় কাজ সারছেন। লিনাক্স ডেভেলপাররা যদি ভেবে থাকেন, তারা গোয়ার্তুমি করে কমান্ড লাইন নির্ভর হয়ে থাকবেন, তাহলে তারা কিন্তু ৫০০০ বছর পিছিয়ে আছেন। অতএব, হয় জুলিয়া ডার্লিং আমার গ্রাফিকাল কমান্ডের ব্যাবস্থা করে দেবে, নতুবা সম্পর্কোচ্ছেদ- চিরতরে।

কেউ কেউ বললেন, .deb এক্সটেনশানের ফাইল দিয়ে সরাসরি ডাবল ক্লিক করেই ইনষ্টল করা যায়। অন্য একটা সফটওয়্যারের ক্ষেত্রে .deb এক্সটেনশানের ফাইলে ডাবল ক্লিক করে দেখি তা এক্সট্রাক্ট-এ চলে যায়। ইনষ্টল হয় না। কি করি বলুন? তবে, লিনাক্স ইউজাররা একটা ফাঁকি দেয়া কথা বলে থাকেন। আজ আমি ফাঁস করে দিই। লিনাক্স ডার্লিং-এর সুবিধার কথা বলতে গিয়ে উনারা বলেন, "এটা ওপেন সোর্স আর তাই সোর্স কোড পরিবর্তন করে ইচ্ছেমত কাস্টমাইজেশান করতে পারেন আপনি।" এখন আপনি আমাকে বলুন, সারা পৃথিবীতে কতজন কম্পু-ব্যাবহারকারী প্রোগ্রামিং জানেন? একজন ব্যবহারকারী হয়ে আপনি প্রোগ্রামিং জানবেন না অর্থাৎ সোর্স কোড এডিট করতে পারবেন না এটাই স্বাভাবিক। অবশ্য এটা স্বীকার্য্য যে আপনি আনলিমিটেড গ্রাফিকাল কাস্টমাইজেশানের সুবিধা পাচ্ছেন।

সর্বশেষ, একটা ঘটনা দিয়েই শেষ করি। জুলিয়ারে ভালোবেসে ল্যাপ্পির হার্টে জায়গা দেয়ার সপ্তাহখানেকের মধ্যেই আমার একটা সেমিনার কন্ডাক্ট করার কথা ছিলো। কিছু প্রেজেন্টশান ফাইল আমি অপেন অফিস দিয়ে রেডি করে আমার ল্যাপ্পিখানা বগলদাবা করে সেমিনার রুমে হাজির হই। নিয়মানুযায়ী প্রজেক্টারের কানেকশান দিয়ে দেখি ল্যাপ্পির কোন ভাবান্তর নেই। যেন কিছু কানেক্টই করা হয়নি। বুঝতেই পারছেন- এসির মধ্যেও আমার শরীর বেয়ে দরদর করে ঘাম পড়তে লাগলো। যদি ফাইল শো করতে না পারি, তাহলে কী হবে? রিলিফ! প্রজেক্টার কানেক্টেড অবস্থায় ল্যাপ্পিখানা রিস্টার্ট দিয়ে দেখি সবই ফকফকা।

১. নোটা বেনেঃ টিটি তে এটা আমার প্রথম টিউন।
২. নোটা বেনেঃ বানানজনিত সমস্যা ক্ষমার্হ হবে আশা করি।
৩ নোটা বেনেঃ জুলিয়ারে বড় ভালোবেসেছি, তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ, সফটওয়্যার ইনষ্টল করাটা একটু শিখিয়ে দেন। জুলিয়ারে না ছাড়িবারে চাই।

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি বাংলার নবাব। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 2 টি টিউন ও 39 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

ভেরি ইন্ট্রিকেট টু মেনশান।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

ভাই ফন্ট টা এত বড় যে চশমা দিয়ে পড়েত পারলাম না ………………………………

    ভাইয়া, আমার ব্রাউজারে তো আর দশটা টিউনের ফন্টের মত ফন্টই দেখাচ্ছে। আমি ঠিক বুঝতে পারছিনা যে প্রব্লেম টা কার। আমি মীন, আপনার ব্রাউজারের নাকি এই টিউনের। যদি সমস্যাটি টিউনের হয়, তাহলে একটু বিপদ। আমি নতুন টিউনার, জানিনা কিভাবে টিউনের ফন্ট বড় করতে হয়। আশা করি শিখিয়ে দেবেন।

    কারণ এটা Vrinda দিয়ে দেখাচ্ছে। আপনি ডিফল্ট ফন্ট চেঞ্জ করে সিয়াম রুপালি কিংবা সোলায়মান লিপি দিন। সব ফকফকা

    Thank you শাওন ভাই।

কেমন আছেন? সেই টিউনে বলেছিলাম কিভাবে সফটওয়্যার ইন্সটল করতে হয়। অবশ্য কিছু ক্ষেত্রে আলাদা নিয়ম আছে। টিউন অত্যন্ত চমৎকার এবং প্রশংসনীয়। থাম্বস-আপ 🙂

    ফায়ারফক্স এর সোর্স ইন্সটল করতে হবে বলেছিলাম তো, এক্সট্র্যাক্ট করে সেই ফোল্ডারে firefox লেখা স্ক্রিপ্টে ক্লিক করলেই সুন্দর করে ফায়ারফক্স চালু হবে। চালু হলে ডিফল্ট ব্রাউজার সিলেক্ট করে দিন।

    ভালো আছি, আপনি কেমন আছেন? হুম, ফায়ারফক্স ইনষ্টল করে ফেলেছি। কিন্তু এই ফায়ারফক্স উইন ৭ এর ফায়ারফক্স এর মত উপরের স্ক্রীন তুলে দেইনি। তাই, ক্রোম ইউজ করতেছি।

    আরেকটা ব্যাপার, টিটিতে প্রোফাইল পিকচার দিতে পারছিনা। কিভাবে দিতে হয় একটু জানাবেন প্লিজ।

    টিউন এডিটিং এ নিয়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু ফন্ট কালার চেঞ্জ করার অপশান পেলেও ফন্ট চেঞ্জ করার অপশান পাই নি। এটাও একটু জানাবেন প্লিজ।

    টিটি-তে ফন্ট চেঞ্জ করার অপশন নেই। তবে আপনি মনে হয় স্টাইল চেঞ্জ করে ফেলেছেন। এডিট প্যানেলে বামে উপরের কোণায় দেখেন Paragraph, Italic, Preformatted ইত্যাদি কয়েকটা ফরম্যাট আছে। আপনি সব টেক্সট প্যারাগ্রাফ আকারে দিয়ে দেখেন তো কি হয়! আর টিটি-তে ছবি চেঞ্জ করতে চলে যান http://en.gravatar.com এ, তারপর টিটি-তে রেজিস্টার করা ইমেইল দিয়ে লগিন করে ছবি লাগিয়ে দিন 🙂

জুলিয়ার ছেয়ে কাতিয়ারে ভালা পাই।

    নিউ ইউজার হিসেবে লিনাক্স মিন্ট ১০ ইউজ করা শুরু করেছি। মুলত ফিলিংসটা জানালাম। ধন্যবাদ আপনাকে।

জুলিয়ার চেয়ে কাতিয়ারে ভালা পাই।

আমার পোস্টে আপনার কমেন্ট দেখে আমিতো ভেবেছিলাম লিনাক্স আপনাকে টানতে পারবেনা কিন্তু এখন দেখি আপনি জুলিয়ার প্রেমে পাগল হয়ে গেছেন। 😆 আপনি যে সমস্যাগুলোর কথা বলেছিলেন সেই সমস্যায় আমি কখনো পড়িনি (না পড়ার কারণ লিনাক্সে নেট ব্যবহার করা হয় না ওয়াইম্যাক্স এর কারণে,তাই ব্রাউজার আপগ্রেড,ফাইল ডাউনলোড-ইন্সটলেশান সম্পর্কে অভিজ্ঞ নই) তাই উত্তর দিতে পারিনি।পরে বাবর ভাই আর শাওন ভাইকে অনুরোধ করেছি আপনার প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য।আমিও আপনার মত নতুন লিনাক্স ব্যবহারকারী।কমান্ড লাইনেরও অনেক বিশেষত্ব আছে।এটাতো উইন্ডোজের রান কমান্ড এর মতো।এটার গুরুত্ব না থাকলে ডেভেলপাররা নিশ্চই এটার প্রতি গুরুত্ব দিতেন না।নিচের লিংক এ টার্মিনালের উপর বাংলা টিউটোরিয়াল আছে।পড়লে অনেক কিছু ক্লিয়ার হবে আশাকরি।

http://forum.linuxdesh.org/forum-27.html

Level 2

Tar.baz2 এক্সট্রাক্ট করলেই ইন্সটল করার জন্য ফাইল পাবেন।
.deb তে ডাবল ক্লিক করলেই ইন্সটল করবে কিনা জানতে চায়। আপনার সমস্যাটা বুঝলাম না। আমিও জুলিয়া ইউজার এক বছর ধরে প্রায়।
কমান্ড লাইন মুখস্ত করবেন কেন 😮 আমি নেট সার্চ দিয়ে কপি করে টার্মিনালে পেস্ট দেই।
শেষ পর্যন্ত শো করতে পারছেন প্রজেক্টরে এইটাই অনেক। নাহলে তো জুলিয়ার মান সম্মান নিয়া টানাটানি লাগত।
আর যদি বিশেষ কিছু উইন্ডোজ সফটওয়ার লাগবেই মনে তবে অয়াইন তো আছেই। এক পেগ নিয়ে নিবেন :p

xp সাথে চালাতে চাই কিন্তু পারি না সেটাপ দিতে একটু সাহায্য করবেন?

    উবি দিয়ে চালাতে পারেন।একবারেই সোজা সিডিটা ডুকিয়ে রান করে Install Inside Windows এ ক্লিক করে ড্রাইভ এবং একাউন্টের নাম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে ইন্সটল লেখাটে ক্লিক করলে ইন্সটল হওয়া শুরু হবে।এরপর পিসি রিস্টার্ট করে বুট থেকে লিনাক্স সিলেক্ট করে দিলে একবারে ইন্সটল হয়ে যাবে।এরপর প্রতিবার পিসি ওপেন হওয়ার সময় আপনার সাথে অনুমতি চাইবে আপনি কোনটি চালাতে চান তার জন্য।লিনাক্স সিলেক্ট করলে লিনাক্স আর এক্সপি সিলেক্ট করলে এক্সপি।সমস্যা হলে নিচের পোস্টটি ঘুরে আসুন।

    http://adnan.quaium.com/blog/760

    এছাড়া বুট করে ইন্সটল করতে চাইলে নিচের লিংক ঘুরে আসুন।

    http://adnan.quaium.com/blog/1236

    এখানে উবুন্টু নিয়ে দেখেনো হয়েছে,এটা মিন্টের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।

মিন্ট জুলিয়ার সিডি আছে আমার কাছে কি ভাবে সেটাপ দিব

আমি বিজয় এর মতো অভ্রতে লিখতে পারছিনা প্লিজ হেল্প মি। আর হ্যাঁ আমার লিনাক্স এ অভ্র কাজ করছেনা ব্যাপার কি?

vai linux er projonio sob software er kono package akstahe zip kore keu upload korte paren na? tahole notunder khub subidhe hoto.