ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

International vs National Brand [মোবাইল]

আসসালামুয়ালাইকুম
•    International Brand বলতে Sony,Samsung,Htc ইত্যাদি
আর
•    National Brand বলতে Symphony,Walton আরকি
আজকে এই দুটির মধ্যে আমার নিজের কিছু অভিজ্ঞতা আপনাদের কাছে শেয়ার করব।
Sony আমার প্রিয় Brand।২০১৩ তে আমি Sony Xperia T কিনি second hand.মোবাইলটি Root করে আমার ইচ্ছে মত চালাতে থাকি। দিনে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অন্তত ১০ ঘণ্টা সময় আমি মোবাইল নিয়ে busy থাকি। মাদক এর প্রতি আমার নেশা না থাকলেও মোবাইল এর প্রতি আমার চরম নেশা। যাইহোক প্রতিদিন ২বার ফুল চার্জ দেওয়া লাগে। এভাবে আমি ১০ মাস  ব্যাবহার করি। এই ১০ মাসে আবার ৩ বার মোবাইলটা Flash মারি। কোন রকম সমস্যা ছাড়া ১০ মাস  পর মোবাইলটা বিক্রি করে দেই।

ADs by Techtunes ADs

তারপর কিনি Symphony w92 second hand.যার কাছ থেকে কিনি সে ৬ মাস ব্যাবহার করেছে। সে ব্র্যান্ড নিউ কিনে ছিল ১২ মাসের  warranty সহ। তাহলে আমিও বাকি ৬ মাসের Warranty পাব কিন্ত তার কাছ থেকে warranty card টি নিতে আমি ভুলে যাই। যেই দিন কিনি সেইদিনই মোবাইলটি  root করে ফেলি। আমি ভুলে একটি system app ডিলেট করে ফেলি ফলে মোবাইল এর IMEI নাম্বারটি চলে যায়। Flash মারার জন্য servicing দোকানে গেলাম কিন্ত তাদের কাছে অরিজিনাল রম পেলাম না। ভাবলাম  কাস্টমার কেয়ার এ দেখে আসি। গেলাম এক ভদ্রলোক বলল কি সমস্যা ? বললাম সিম সাপোর্ট করছেনা imei নাম্বার মুছে গেছে। root করেছিলাম সেটা বলেনি কারন রুট করলে warranty বাতিল হয়ে যায়। উনি বললেন মাদার বোর্ড এর সমস্যা। মাদার বোর্ড পালটাতে হবে। যদি warranty থাকে তাহলে বিনামূল্যে আর না থাকলে ৫০০০ টাকা পে করতে হবে। আমি মনেমনে ভাবলাম উনি ত সমস্যাই ঠিক ভাবে বুঝলনা কাজ কিভাবে করবে। আমি customer care থেকে চলে আসলাম। servicing দোকানে গিয়ে আবার রম খোঁজতে থাকলাম একপরযায়ে পেলাম এবং Flash মারলাম। মোবাইল ঠিক হয়ে গেল। সপ্তাহ ২ পর অন্যরকম সমস্যা হতে লাগলো। মোবাইল পকেটে থাকলে মাঝে মাঝে অফ হয়ে যায় পাওয়ার বটন চাপলেও মোবাইল অন হতনা ব্যাটারি খুলে আবার লাগানর পর অন হত। আবার লক অবস্থায় আনলক বাটন চাপলে স্ক্রীন সাথে সাথে জ্বলে ঊঠতনা কয়েকবার চাপার পর জ্বলত। এরকম ভাবে ১ সপ্তাহ ব্যাবহার করি। পরে দেখি আরেক সমস্যা মোবাইল কোন কারনে বন্ধ করলে মাঝে মাঝে অন হয় আবার মাঝে মাঝে অন হয় না। কিছু দিন পর মোবাইল আর অন হয় না। servicing দোকানে গেলাম মোবাইল মিটার দিয়ে মেপে দেখলো সব ঠিক আছে। উনি বলল ফ্ল্যাশ মারতে হবে। ফ্ল্যাশ মারতে নিলাম কিন্ত ফ্ল্যাশ নিচ্ছেনা। তখন বলল হিট দিতে হবে এক হলে মোবাইল ঠিক হবে তা না হলে আর কখনো ঠিক হবেনা। আমি হিট মারালামনা ভাবলাম ঢাকায় নিয়ে দেখাব। এই ভেবে বাসায় মোবাইলটা ফেলে রাখলাম। ১ মাসও ঠিক ভাবে ব্যাবহার করতে পারলাম না।

এখন বলব Walton Primo X2 এর কথা।কি বিরক্ত হচ্ছেন! বিরক্ত না হয়ে পড়েন আসা করি কিছু বুঝতে পারবেন।আমি সাধারণত পুরান মোবাইলই কিনে থাকি কারণ money is problem for me।  Primo X2 মোবাইলটি পুরান কিনি। যার কাছ থেকে কিনি সে ৩-৪ মাস ব্যাবহার করেছে। মোবাইল পুড়ো নূতনের মতো। ২ দিন পর মোবাইলে CUSTOM ROM install করতে গিয়ে মোবাইলের imei মুছে ফেলি। ফলে এই মোবাইলটির ও ফ্ল্যাশ মারার প্রয়োজন পরে। ফ্ল্যাশ মারি। ইতি মধ্যে একটি সমস্যা মনে হল টাচ ঠিক ভাবে কাজ করছেনা। notification panel টি নামাতে গেলে একদম উপর থেকে নিচ পর্যন্ত আঙ্গল দিয়ে নামানো লাগে তা না হলে notification panel টি অর্ধেক নেমে আবার উপর এ চলে যায় । ডানে – বামে যেতে হলে আঙ্গল পুরো ডান থেকে বামে নিয়ে যেতে হয়। এক কথায় টাচ properly কাজ করতনা। ৪-৫ দিনপর  সমস্যা বাড়তে থাকল। আগের symphonir মত সমস্যা হতে লাগলো। লক অবস্থায় আনলক বাটন চাপলে স্ক্রীন সাথে সাথে জ্বলে ঊঠতনা কয়েকবার চাপার পর জ্বলত। আবার মাঝে মধ্যে মোবাইল এর সাউন্ড হত না restart দিলে ঠিক হত আবার কিছু সময় পর আবার চলে যেত। এই সমস্যা দেখে আমি তারাতারি মোবাইলটা বিক্রি করে দেই। যা দিয়ে কিনি তার থেকে ৩ হাজার টাকা কমে। যাক টাকাটা তো ফিরে পেলাম তা না হলে Symphonir মত Dead হয়ে যেত।

তারপর কিনি Samsung Glaxy S4. অসাধারন Performance। Root করে ২মাস ধরে ব্যাবহার করছি বিন্দু মাত্র সমস্যা পাইনি।

আমার পরিচিতদের কিছু  তথ্য:
আমার এক বন্ধু Symphony w150 নতুন ক্রয় করে। সে ভাল ভাবে মোবাইল ব্যাবহারও করেনা। শুধু কল করে আর গান শুনে আর মাঝে মধ্যে গেম খেলে। ৬-৭ মাস পর তার মোবাইল এর টাচ এ সমস্যা দিল। warranty থাকার কারনে সে Symphony কেয়ার থেকে সে বিনামূলে্য ঠিক করে আনে। আরেকটা কথা সে যখন মোবাইল টা নতুন ক্রয় করে আমি তখন Xperia T মোবাইল ব্যাবহার করি। সে আমাকে বলল বন্ধু তর মোবাইলএ কি আছে যা আমার মোবাইল এ নাই, আমি তখন তার কথার উত্তর দিতে পারিনি। আমি শুধু বলি তুই এটা পরে বুঝতে পারবি।

এলাকার এক ছোট ভাই Symphony 140 নতুন ক্রয় করে। মোবাইলে গেম খেললে নাকি মোবাইল নষ্ট হয়ে যায় সে ভয়ে সে কখনো গেম খেলত না।  তারপর ও  তার  মোবাইলের টাচ ৩ মাস পর সমস্যা দেয়া শুরু করে।

আমার অভিজ্ঞতা:

১. ১০০০ টাকার জিনিসে ১০০০ টাকারই কাঁচামাল দিবে আর ৫০০০ টাকার জিনিসে ৫০০০ টাকারই কাঁচামাল দিবে।
২. যদিও দেশী ব্রান্ডের দাম কম সাধে্যর মধ্যে কিন্ত তা সিমিত সময় ভোগ করার জন্যে।
৩. Symphony,Walton মোবাইল গুলো একবার flash মারলেই Processor দুরবল হয়ে পরে।
৪. অনেকখন ব্যাবহার করলে মোবাইল স্লো হয়ে যায়।

আমি ভাল বাংলা লিখতে পারিনা। অনেক কষ্টে টিউনটা করলাম। আশা করি আপনাদের ভাল লাগবে।

ADs by Techtunes ADs

ADs by Techtunes ADs
Level New

আমি সাজ্জাদ হোসেন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 13 টি টিউন ও 101 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

আপনার লেখা অনেকের কাজে আসবে…এগুলোকে বলা হচ্ছে দেশী ব্র্যান্ড, আসলেই কী তাই ? তবে হ্যাঁ অনেক নামী দামী ব্র্যান্ডও এখন লো কস্টের কারনে চায়না থেকে তৈরী করে। চায়নার তৈরী মানসম্মত অনেক কিছুই আছে। চায়নার নিজস্ব কিছু ব্রান্ড Huawei,ZTE’র অনেক পন্য SAMSUNG,SONY,HTC’র মত শীর্ষস্থানীয় এশিয় ব্রান্ডের সাথে আর্ন্তজাতিক বাজারে প্রতিযোগিতা করছে । তবে Non Brand হিসাবে বহু ফোন তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন দেশের বাজারে একই রকম কনফিগারে একই রকম দেখতে তবে ভিন্ন ভিন্ন নামে। আমাদের প্রফেশনে Symphony,Walton,Micromax ..বা x y z ব্র্যান্ডগুলোকে ধইঞ্চা বলা হয়ে থাকে

১০০০ টাকার জিনিসে ১০০০ টাকারই কাঁচামাল দিবে আর ৫০০০ টাকার জিনিসে ৫০০০ টাকারই কাঁচামাল দিবে
-Sony, Samsung , HTC এর সাথে ওদের তুলনা !!!!!!!!!!!!!!!
Camera Experience টা একটু Share করবেন ?????

Akdom tik kota likcen.

Level 0

chomotkar likha . valo laglo.

Level 0

true!!! amr o same experience!!! amr 2 ta Chinese tab!
1 tao kajer na ….root korsi.. .kono valo custom rom khuje paina even stock rom a o bug a vora..
-battery charge a problem
-hang hoe jay..
-karone okarone restart hoy..
But 2012 a HTC One V kini only 512 ram.. oita akhono pura fatafati choltese…iccha moto use kortesi …root , custom rom, every kind of experiment chalai..tao kisu hoy na..Now running Cyanogenmod 11 means KITKAT 4.4.4 on my htc.

সুন্দর লিখেছেন। তবে ভয় লাগছে Walton gh2 খুব ব্যাবহার করা পড়ে।

Second hand set kenar somoy set ki original na mastercopy…, seta bujhen kivabe ??

symphony’র touch panel খারাপ- সে বিষয়ে সন্দেহ নেই । কিন্তু Walton অনেক ভালো Brand- সহজে নষ্ট হয় না।
আমি দেখেছি Symphony তে যে problem সেই একই problem হয়েছে Samsung এঁর ৩ টা মোবাইল-এ । আমি সাধারন দৃষ্টিতে Brand আর non-Brand এঁর মধ্যে তফাৎ পাইনা । সমস্যা হবার হইলে তাতে হবেই ।
এবার আসি আপনার প্রসঙ্গে । আপনি প্রতিবার -এ কিন্সেন Second Hand Mobile যা স্বভাবতই সসমসসার মুল কারণ , আপনি একবারও কি ভেবেছেন যে মানুষটা টাকা গুছিয়ে সাধের Phone টা কিনেছে সে কেন লস করে সেতা আবার বিক্রি করে ? কারণটা খুব স্বাভাবিক , -কারণ উনি কনভাবে ওটাতে সমস্যা করে ফেলছেন, আর ওনার মন অতা রাখতে সাঁই দিচ্ছে না। আর আপনার দ্বিতীয় সমস্যা হচ্ছে- আপনি ROm Flash করার আগে CWM দিয়ে ফোন ব্যাকআপ করে নেন না । ব্যাকআপ করলে আপনি জাই করেন না কেন Restore এঁর পর সেইভাবে আবার Phone On হবে । এমনকি COntact Num, Message, Call Log হুবহু সেরকম থাকবে ।
বেশী দামের মোবাইল এ যে কোন সমস্যা হবে না , তা ঠিক না । আমার গ্রামের এক ভাইয়ের iPhone 4 এঁর charge IC সমস্যা , আমার এক বন্ধুর 15 হাজার টাকা দামের Samsung Mobile এঁর Camera আজ ও on হইনি -নেটে দেখলাম এই সমস্যা অনেকের হইসে ।
মূল কথা হল বাবহারের SkiLL , ভালভাবে ব্যবহার করুন , China ব্রান্ড আর Original China ব্রান্ড ব্যাপার না …

Level New

Amar Friend Galaxy Grand 2 kinar 1 mash por set er ordhek touch r kaj korena. pore CC te dawar por thik kore dise. Electronics jinise problem thaktei pare, seta brand hok or non brand.

ভাই আমার ছোটো ভাই রমযানের ঈদের পূর্বে walton d3 কেনে। দিনের মধ্যে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১২ ঘন্টা বা তার বেশি ব্যবহার করে । এখনো কোনো সমস্যা হয় না। কয়েক বার হাত থেকেও পড়েছে। ভালোই চলছে।

আসলে ডিফেক্টিভ ডিভাইস হলে সমস্যা হতেই পারে। আমি ওয়ালটনের প্রিমো (একদম প্রথম এন্ড্রয়েড সেট) টা ব্যবহার করেছি প্রায় ১ বছর। রুট করে কাস্টম রম ইন্সটল করে অনেকদিন ব্যবহার করার পর তা বিক্রি করে দেই। আমার বন্ধুও একই সেট কিনেছিল আমার সাথে সেটাও ভালই চলেছে। তারপর সেটি বিক্রি করে কিনলাম সিম্ফনি ডব্লিউ৩৫ সেটটি একটু ব্যবহারেই প্রচুর গরম হত কিন্তু পুরো ৮ মাস ব্যবহার করেছি দুর্দান্ত ভাবে এবং কোন ধরনের সমস্যা হয়নি সেটিও বিক্রি করে দেই। দেন একটা এক্সপেরিয়া মিনি কিনি যা ১৩ মাসে যেয়ে সমস্যা শুরু করে, মেমরি কার্ড সাপোর্ট করা বন্ধ করে দেয়। আর এর ৫ মেগা পিক্সেলের ক্যামেরার দিন দিন ভিজিএ ক্যামেরার মত হয়ে পড়ে। পরে নাম মাত্র মূল্যে বিক্রি করে দেই। এর পর কিনি স্যামসাং এস ডুয়োস ২ যা বেশ ভালোই ব্যবহার করছিলাম কিন্তু বারবার চার্জ করতে করতে অবস্থা খারাপ সেই সাথে গেমিং এ সমস্যা। এরপর সিম্ফোনির ডব্লিউ ১৫০ সেটটি কিনি সেটি নিয়ে বিভিন্ন কায় কারবার করার পর একদিন ব্রিক করে ফেলি তারপর কাষ্টমার কেয়ারে দিলে তারা ১৫ মিনিটের কাজের জন্য প্রায় ১৮ দিন সময় নেয় (মহাখালী কেয়ার), যা হোক সেটি ফেরত পাওয়ার পর দেখি তারা সেটে স্ক্রাচ ফেলে দিয়েছে। তাই মন খারাপ হয়ে যায় এটিও বিক্রি করে দেই। তবে এই ফোন নিজে থেকে আমাকে কোন পেইন দেয়নি। আর ১৮০০ মিলি এম্পিয়ারের ব্যাটারী হওয়া সত্ত্বেও খুব ভাল ব্যাকআপ দিত। তার পর একটা চাইনিজ ট্যাব কিনি সেটিও খুব ভাল পারফর্ম করছিল কিন্তু এর রেজ্যুলেশন লো হওয়া আর দিনে দুই বার চার্জ দিতে বিরক্ত বোধ করছিলাম তাই সেটিও বিক্রি করি, গেম খেলার জন্য সিম্ফোনি ডাব্লিউ ১৩০ ব্যবহার করছি এখন তবে সেটটি কিনার ২ মাসের মধ্যে এর দাম ২হাজার টাকা কমে গেল এটাই এক মাত্র আক্ষেপ তবে আমি খুব বেশি দামী ব্রান্ড মোবাইল ব্যবহার করিনি তারপরেও আমি আপনার পোষ্টের সাথে একমত হতে পারছিনা। কেননা আমি বেশ কয়েকটি দেশি ব্রান্ড (রিব্রান্ড) সেট ব্যবহার করেও তেমন কোন সমস্যার সম্মুখিন হইনি। তবে ব্রান্ডফোনের রেডিয়েশন মাত্রা এই সব সেটের চাইতে অনেক কম এটা অবশ্যই একটা বিশাল ফ্যাক্ট। মানুষ তার সামর্থ্য অনুযায়ী যেই সেট কিনবে তা ফল্ট লেস হলেই হল। যেমন ধরেন এখন গ্যালাক্সি Ace nxt পাওয়া যাচ্ছে মাত্র ৮৯০০ টাকায় কিন্তু এটি ইন্টারন্যাশনাল ব্রান্ডের ন্যাশনাল ফোন কেননা এটি শুধু মাত্র বাংলাদেশ ভারত মালেয়শিয়া’র মত দেশের বাজারেই ছাড়া হয়েছে অন্য কোন উন্নত দেশে এই হ্যান্ডসেট ছাড়া হয়নি।

আপনার কথা সম্পুর্ন ভুল তা বলবো না, তবে মোবাইল টা আমি মনে করি লাক এর উপর নির্ভর করে, ভালভাবে ব্যবহার করলেও কোন প্রবলেম হওয়ার কথা না, আমি ওয়াল্টন NX and X2 mini একেক তা এক বছর করে ব্যবহার করেছি, Root থেকে start করে মোবাইল গুলা একেক্টা 10 বারের বেশি নিজেই Flash করেছি, আমার কোনো প্রবলেম হয় নি্‌ ।
NX টা বিক্রি করে এখন X2 mini use করতেছি। যাই হোক Than you কস্ট করে আমাদের জন্য এই Post টি করার জন্য।

Level 0

You are a newbie, U should learn more how to use custom rom safely

সবাইকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমার টিউনিটতে আপনাদের মূল্যবান মতামত তুলে ধরার জন্য। আর কোন জিনিসে প্রতিদন্ধিতা না থাকলে সে জিনিস থেকে ভাল কিছু আশা করা যায়না।
আমি এক এক করে সবার মতামত অনুযায়ি একটু কথা বলব ….

# xahin ভাইঃ ধন্যবাদ। China মানে খারাপ তা কিন্তু না। আমাদের হয়তো জানানেই Apple এর Iphoneও কিন্ত China তে তৈরী হয়।

# নীলোৎপল বেদী ভাইঃ অবশ্যই Camerar মধ্যে পার্থক্য আছে তবে সেটা দিনে বুঝা না গেলেও রাত্রে অথবা অল্প আলোতে এর পার্থক্য বুঝা যায়। তখন ছবি গুলো বেশি Darken মনে হয়। তাছাড়া প্রাকিতিক দৃশ্য গুলো তেমন ফুটে ওঠেনা।

# রাসেল হোসেন ভাইঃ ধন্যবাদ।

# CAKS ভাইঃ ধন্যবাদ।

# rafa ভাইঃ আপনাকেও আপনের অভিজ্ঞতা সেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

# mdmasumbillah ভাইঃ ভয় পাবার কিছু নাই চালায়তে থাকেন।

# Md. Abdullah Al Mamun ভাইঃ যদি IB [International Brand] কথা বলি তাহলে এদের IMEI নাম্বার http://www.imei.info এই ওয়েবসাইট এ চেক করলে বলে দিবে এই মোবাইলটা কি Original নাকি Duplicate। আর যদি NB [National Brand] কথা বলি এগুলোর দাম এবং চাহিদা এমনি কম সুতরাং Duplicate করার প্রয়োজন পরে না।

# Tanjamin ভাইঃ মোবাইল নষ্ট হয়ে গেলেই যে মানুষ তা বিক্রি ফেলে তা কিন্ত ১০০% নয়। আর দেখে শুনে কেও নষ্ট মোবাইল কিনবেও না। আমি যত গুলো মোবাইল কিনেছি একটিতেও কোন সমস্যা ছিল না। সমস্যা হয়েছে ব্যবহারের পর।
আর আমি Walton Primo X2 মোবাইলটির অরিজিনাল রম CWM বেকাআপ রেখেই কাস্টম রম ইন্সটল করেছিলাম। কিন্ত অরিজিনাল রম রিস্টর করার পরও imei নাম্বার ফিরে আসেনি।

# Parish ভাইঃ আপনার কথাটাও ঠিক আছে।

# রহস্যময় অভিযাত্রী ভাইঃ ধন্যবাদ আপনার অবিজ্ঞতা শেয়ার করার জন্য।

# Rakib Islam ভাইঃ আপনাকেও ধন্যবাদ।

# bdboy999 ভাইঃ আশা করি আপনার কথার ব্যাপারটা বুঝতে পেরেছেন Tanjamin ভাইয়ের কথার উত্তর থেকে।

সবশেষে এতটুকু বলব আপনি যদি International Brand এবং National Brand দুটোই ব্যাবহার করে থাকেন তাহলে নিশ্চই অনেক পার্থক্য খুজে পাবেন।
আমি শুধু আমার নিজের অভিজ্ঞতা আপনাদের কাছে শেয়ার করেছি।