ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

Xiaomi(শাওমি) Mi A1 রিভিউ এবং ফার্স্ট ইম্প্রেশন | গুগলের সফটওয়্যার এবং শাওমির হার্ডওয়্যার !!

Level 6
এডমিন প্রতিবেদক, স্মার্টবিশ্ব

লো কষ্ট লাইন এর এন্ড্রয়েড ফোনের জন্য গুগল এর বিশেষভাবে তৈরি এন্ড্রয়েড ওয়ান অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে শাওমি নিয়ে এল তাদের নতুন সিরিজের শাওমি মি এ ওয়ান স্মার্টফোন।স্মার্টফোনটি একটি মিড বাজেটের স্মার্টফোন। এর ডুয়াল ক্যামেরা আপনাকে মিড বাজেটের স্মার্টফোনে এক প্রিমিয়াম ফিল দিবে।

ADs by Techtunes ADs

যা যা ভালো থাকছেঃ

  • কমদামেই ডুয়াল ক্যামেরা।
  • পুরোপুরি গুগলের সফটওয়্যার; সাথে গুগলের সময়মত আপডেট।
  • শক্তিসালী হার্ডওয়্যার।

বিপরীতেঃ

  • রেডমি নোট ৪ এর থেকে কম ব্যাটারি
  • অমৌলিক ডিজাইন

যখন কম বাজেট বা মিডিয়াম বাজেট এর স্মার্টফোনের কথা আসে; তখন নিঃসন্দেহে আমরা তাকাই চাইনিজ ইলেকট্রনিক্স নির্মাতা প্রতিস্ঠান শাওমি এর ফোন গুলোর দিকে।এমনকি বিগত কয়েক বছর যাবত এটি গরিবের আইফোনের ও খেতাব কুড়িয়ে নিয়েছে। সর্বপরি লো বাজেট ও মিড বাজেট সোসাইটিতে শাওমি হল চাইনিজ আইফোন।

এক নজরে শাওমি এ-ওয়ান

  • ডিসপ্লেঃ ৫.৫" LTPS IPS ডিসপ্লে (১৬মিলিয়ন কালার),৪০৩ পিপিআই,১০৮০*১৯২০ পিক্সেল(রেজুলেশন) এবং গরিলা গ্লাস প্রোটেকশন।
  • সফটওয়্যার/ওএসঃ এন্ড্রয়েড 7.1.2 নগাট
  • ক্যামেরাঃ (প্রাইমারি) ডুয়াল ১২ মেগা পিক্সেল (২৬ মিলিমিটার, f/২.২ এবং ৫০ মিলিমিটার, f/2.6) ফেস (Phase)ডিটেকশন অটোফোকাস,2x অপটিকাল জুম,ডুয়াল এলইডি ফ্লাশ,জিও ট্যাগিং,টাচ ফোকাস,এইচডিআর ইত্যাদি।ভিডিও রেকর্ডিংঃ (২১৬০পিক্সেল ৩০ এফপিএস এ এবং ৭২০ পিক্সেল ১২০ এফপিএস এ)। (সেকেন্ডারি) ৫ মেগা পিক্সেল সেলফি ক্যামেরা, ১০৮০ পিক্সেল।
  • সেন্সরঃ ফিংগারপ্রিন্ট,জাইরোস্কোপ,প্রোক্সিমিটি,কম্পাস,এক্সেলেরোমিটার
  • মেমোরিঃ ৪ জিবি র্যাম, ৬৪ জিবি স্টোরেজ,১২৮ জিবি পর্যন্ড এসডি কার্ড সাপোর্ট।
  • হার্ডওয়্যারঃ কুয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫, এডরিনো ৫০৬ গ্রাফিক্স প্রোসেসিং ইউনিট।
  • ব্যাটারিঃ ৩০৮০ এম এ এইচ লিথিয়াম আয়ন  ব্যাটারি।

 দামঃ

ভারতে এই ডিভাইসটি লঞ্চ করা হয়েছে ১৫ হাজার রূপিতে। তাই ১মাস বা ১.৫ মাস পর আমাদের দেশে এর দাম হবে ২২ থেকে ২৩ হাজার টাকা।

শাওমির ফোনগুলো আইফোন এর ৩ থেকে ৪ ভাগ দামেও এটি আইফোনের প্রায় ৯০% ইউজার এক্সপেরিয়েন্স দেয়।শাওমি এর নতুন এই মি এ ওয়ান এর স্লোগান হল " Created by Xiaomi,Powered by Google"। শাওমি বাজারের এক বিরাট অংশ তাদের আনুগত্য বা করায়ত্ব করে নেয়ার পরও; তাদের চাচ্ছিল আরও নিখুত কিছু!। শাওমি ইউজাররা যেন নিয়মিত আপডেট পায়, সিকিউরিটি নিয়ে যেন কোন ইস্যু না থাকে। তাই শাওমি তাদের MiUi থেকে বের হয়ে সম্পূর্ন গুগল দ্বারা নিয়ন্ত্রিত " এন্ড্রয়েড ওয়ান " ব্যবহার করেছে। এতে করে সফটওয়্যার জনিত সকল আপডেট এবং সিকিইউরিটি নিয়ন্ত্রিত হবে সরাসরি গুগল থেকে।লিকুইড ফ্লুইড ইউজার এক্সপেরিয়েন্স পাবে এই ফোনের ইউজাররা।

শাওমি এর এই এ-ওয়ান স্মার্টফোনটিতে তারা গুগল এর " এনড্রয়েড ওয়ান " ব্যবহার করে এনট্রি লেভেল এর ব্যবহারকারীদের জন্য একটি খুবই ভালো হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার এক্সপেরিয়েন্স এর ব্যবস্হা করে দিচ্ছে। সুতরাং এটি বোঝা গেল, শাওমি কতৃক কোন আপডেট বা MiUi এখানে থাকছে না, যা আপডেট এবং ইউজার ইন্টারফেস থাকবে তা সরাসরি গুগল থেকে। হাতের নাগালের দাম হয়ে এটি হতে চলেছে স্মার্টফোন জগতের একটি হাইড্রোজেন বোম।

ডিজাইন ও লুকঃ

এর ডিজাইন হল দুটি জনপ্রিয় স্মার্টফোনের সংমিশ্রন। রেডমি নোট ৪ এবং ওয়ানপ্লাস ৫ এর আদলে সম্পূর্ন ডিভাইসটির ডিজাইন। তাই একে অমৌলিক ডিজাইন ও বলা যাবে। কেননা কোন নতুনত্ব থাকছে না।সামনের দিক থেকে একদম রেডমি নোট ৪ এর মতন। আর পেছনের দিক থেকে একেবারে ওয়ান প্লাস ৫ এর ডিজাইন। যাইহোক, এই দুইয়ের সংমিশ্রনে খুবই সুন্দর একটা স্মার্টফোন এটি। ডিভাইসটি ৭.৩ মিলিমিটার পুরু এবং ১৬৫ গ্রাম ওজন সম্পন্ন।এর ফলে ডিভাইসটি তুলনামূলত স্লিম এবং লাইট একটি স্মার্টফোনের খ্যাতি পাচ্ছে। ব্যাক সাইডে থাকছে একটি ফিংগারপ্রিন্ট স্ক্যানার আর একহাতে কোন সমস্যাই হবে না। বটম প্যানেলে থাকবে সিঙ্গেল লাউড স্পিকার,ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট,৩.৫ এমএম হেডফোন জ্যাক।বিপরীতপাশে আপার প্যানেলে থাকছে একটি আইআর ব্লাস্টার; যা এখন অনেক দামি দামি ফোনেও দেখা যায় না।

হার্ডওয়্যার ও এক্সপেরিয়েন্সঃ

স্মার্টফোনটির মূল হার্ডওয়্যার এর দিকে তাকালে দেখা যাবে; এটি রেডমি নোট ৪ এর অনুরূপ। যেমনঃ ১৪ ন্যানোমিটার প্রযুক্তির স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ প্রোসেসর,৪ জিবি র্যাম, ৬৪ জিবি অন বোর্ড স্টোরেজ,৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে যাকে প্রোটেকশন দিচ্ছে করনিং গরিলা গ্লাস এসব থাকছে। তবে হ্যা সফটওয়্যার/অপারেটিং সিস্টেম জনিত কারনে পারফর্মেন্স অবশ্যই রেডমি নোট ৪ এর থেকে ভালো হবে; যেমনঃ অ্যাপস লোডিং, অ্যাপস সুইচিং,মাল্টিটাস্কিং ইত্যাদি।

ADs by Techtunes ADs

যদি হেভি ডিউটি টাস্ক বা গেমিং কথা আসে; তবে ডিভাইসটি হাই রেজুলেশন এর গেমস গুলোকে হ্যান্ডেল করতে পারবে খুব সহজে। হাই কোয়ালিটি গ্রাফিক্সে এসপাল্ট ৮ এইচডি, ডেড ট্রিগার ২, নোভা ৩ এসব গেমস খেলা যাবে নাকি ভালোভাবেই!

এসব গেমিং এক্সপেরিয়েন্স এর জন্য ডিসপ্লেটি খুব সুবিধা করে দেবে। ৫.৫ ইঞ্চি এর হাই রেজুলেশন ডিসপ্লে এসব গেমিং এর জন্য যথেষ্ঠ।

নোট ৪ এবং এ ওয়ান এর ভেতর যে পার্থক্যটি চোখে পড়ার মতন; তা হল এদের ব্যাটারি ক্যাপাসিটি। মি এ ওয়ান এর ব্যাটারি ৩০৮০ এমএএইচ যেখানে নোট ৪ এর ব্যাটারি ৪০০০ এমএএইচ। তবুও যেহেতু গুগল অপটিমাইজড তাই পারফর্মেন্স গড়ে রেডমি নোট ৪ এর মতই হবে।

আশা করি এই টিউনটি ভালোই লেগেছে। নিচে টিউমেন্টে মতামত জানান।বেশি বেশি করে শেয়ার করুন। টেকটিউনস এর সাথেই থাকুন।

ADs by Techtunes ADs
Level 6

আমি আমি মাহিন। এডমিন প্রতিবেদক, স্মার্টবিশ্ব বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 4 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 214 টি টিউন ও 88 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 13 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 1 টিউনারকে ফলো করি।

ভালোবাসি প্রযুক্তি নিয়ে লিখতে, ভালবাসি প্রযুক্তি নিয়ে ভাবতে।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

প্রথমেই দামটা বলে দিবেন।