ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

আস্ সালামু ওয়ালাইকুম,

ADs by Techtunes ADs

কেমন আছেন সবাই? আশাকরি ভালোই আছেন। আজ আমি আপনাদের সামনে আলোচনা করব কিভাবে প্রসেসরের মান ভালো কি-না চেক করবেন। প্রসেসরের পারফর্মেন্স কি কি বিষয়ের উপর নির্ভর করে তেমন কিছু টিপস নিয়ে হাজির হলাম। আশাকরি আপনারা উপকৃত হবেন। তো চলুন......(সবাইকে আমার পার্সোনাল সাইট tech4bd.com এ ভিজিট করার অনুরোধ করলাম।)

মোবাইল কেনার ক্ষেত্রে সবারই একটা সংশয় কাজ করে যে, কোন প্রসেসর নিলে ভালো হবে, কার স্পিড বেশি, ব্যাটারি চার্জ ভালো থাকবে ইত্যাদি। আসলে একটা প্রসেসরের উপর অনেক কিছুর পারফরম্যান্স নির্ভর করে(আনুষঙ্গিক আরো হার্ডওয়ার থাকে যার উপর পারফরম্যান্স নির্ভর করে কিন্তু আমরা শুধু প্রসেসরের অংশ নিয়ে আলোচনা করব)।  প্রসেসরকে একটা ডিভাইসের হার্ট বলা যায়। ভালো মানের প্রসেসর সমৃদ্ধ মোবাইল চেনা আসলেই একটা দুরূহ কাজ এবং এর জন্য অবশ্যই আমাদের প্রসেসর সম্বন্ধে কিছু জ্ঞান থাকতে হবে। মোবাইল প্রসেসরের নির্মাতারা হচ্ছে কোয়ালকম, এক্সিনোস, মিডিয়াটেক, হিসিলিকন, অ্যাপল ইত্যাদি। কিন্তু প্রসেসরটির আর্কিটেকচার যে কোম্পানি সরবরাহ করে তার নাম হচ্ছে ARM(Advanced Risc Machine)। ARM এর নাম নিশ্চয় শুনেছেন আপনারা? মোবাইলের কনফিগারেশন দেখার সময় আপনারা Cortex A9, Cortex A53(আর্কিটেকচারের বিভিন্ন ভার্সন) বা এমন কিছু দেখে থাকবেন। সিপিইউ এর এই মডেলের আর্কিটেকচার ARM সরবরাহ করে। মূল আলোচনায় যাওয়ার ARM নিয়ে কিছু কথা আপনাদের জানিয়ে দিচ্ছি।

ARM(Advanced Risc Machine)

ARM, আগে ছিল Acorn RISC Machine, পরে Advanced RISC machine নামকরন করা হয়েছে। এটা Reduced Instruction Set Computing (RISC) architectures এর একটা অংশ যেটা কনফিগারেশন বা ডিভাইস ভেদে কম্পিউটার বা মোবাইলের প্রসেসর তৈরি করে থাকে। ব্রিটিশ কোম্পানি ARM Holdings, অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের জন্য প্রসেসরের জন্য নকশা তৈরি করে এবং সেই কোম্পানিগুলোকে লাইসেন্স প্রদান করে, যারা তাদের নিজস্ব ডিভাইস ডিজাইন করে এবং ARM এর আর্কিটেকচার তাদের ডিভাইসে ইমপ্লিমেন্ট করতে চায়। এছাড়াও এতে থাকে সিস্টেম-অন-চিপ (SoC) এবং সিস্টেম-অন-মডিউল (SoM) যার মধ্যে সংযুক্ত থাকে মেমরি, ইন্টারফেস, রেডিও ইত্যাদি। আমরা মোবাইলের স্পেসিফিকেশনে দেখি যে মোবাইলটি কর্টেক্স এ৫, এ৭, এ৯, এ৫৩, এ৭২ এবং আরো অনেক ভার্সনে পাওয়া যায়, মুলত এইগুলো আর্কিটেকচারের বিভিন্ন ভার্সন যার উপর ভিত্তি করে প্রসেসর তৈরি হয়ে থাকে। আর্কিটেকচারের ভার্সন যত বৃদ্ধি পাবে সেই প্রসেসর তত ভালো হবে। কারন যত দিন বাড়বে আর্কিটেকচারের উপর R&D(Research and Development) তত বেশি হবে এবং প্রসেসরের মানও বাড়বে। আপনারা অনেক সময় কনফিগারেশনে kryo লেখাটি দেখতে পান। এটা আসলে মাইক্রো আর্কিটেকচারের একটা সিরিজ যা কোয়ালকোম তৈরি করেছে এবং তাদের ARMv8-A 64-bit ভার্সনে ইমপ্লিমেন্ট করেছে। এটা পুরাতন 32-bit Krait এর পরিবর্তে(উত্তরাধিকারসূত্রে) ব্যবহার করা হচ্ছে। আর Krait হল একটি ARM ভিত্তিক সিপিইউ যার মধ্যে রয়েছে কোয়ালকোম স্ন্যাপড্রাগন এস৪ এবং স্ন্যাপড্রাগন ৪০০/৬০০/৮০০/৮০১/৮০৫ (ক্রাইট ২০০, ৩০০,৪০০ এবং ৪৫০) সিস্টেম অন চিপ(SoC)। Krait হল Kryo এর পূর্বপুরুষ।

এখন নামিদামি যেসব কোম্পানি আছে যেমনঃ কোয়ালকোম, মিডিয়াটেক, স্যামসাং, এনভিডিয়া, এদের প্রসেসর তৈরির জন্য যে নকশা দরকার হয় তা এই ARM(Advanced Risc Machine) কোম্পানি সরবরাহ করে থাকে। আপনি যখন কোন ফোন কিনতে যান তখন কিছু জিনিস ভাবেন যেমনঃ ল্যাগিং ইস্যু আছে নাকি, ফোন গরম হবে কি না, ব্যাটারি ইত্যাদি। এবং এই প্রত্যেকটা সমস্যা কিছুটা হলেও প্রসেসরের সাথে সম্পর্কিত। আর আরেকটি বিষয় ভাবি তা হচ্ছে প্রসেসর কি কোয়াড নাকি অক্টা এবং এর স্পিড কত। স্বাভাবিকভাবেই আমরা ভেবে নিই যে, যেই প্রসেসরের স্পিড এবং কোর বেশি সেটাই বেস্ট। কিন্তু এটাই মুখ্য বিষয় না দুইটা বা ততোধিক ব্র্যান্ডের প্রসেসরের মধ্যে তুলনা করার ক্ষেত্রে। এখন আমি আলোচনা করব আর কি কি বিষয় মাথায় রাখতে হবে প্রসেসরের মধ্যে তুলনা করার ক্ষেত্রে………আর সবাইকে আমার পার্সোনাল সাইট tech4bd.com এ ভিজিট করার অনুরোধ করলাম।

১. আর্কিটেকচারঃ প্রসেসরের তুলনা করার জন্য এটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এই বিষয়টা আমি আগেই বলে রেখেছি যে ARM কোম্পানি প্রসেসর তৈরির জন্য বিভিন্ন কোম্পানিকে লাইসেন্স ভিত্তিক নকশা দিয়ে থাকে। আমরা মোবাইলের কনফিগারেশনে যে দেখি সিপিইউ Cortex A7, Cortex A9, Cortex A53, Cortex A72 এগুলোই হচ্ছে ওই প্রসেসরের সিপিইউ এর আর্কিটেকচার যা ARM সরবরাহ করে। আর এগুলোর সংখ্যা মান যত বৃদ্ধি পাবে সেটার মান ততো ভালো হবে। যেমনঃ A9 এর চেয়ে A72 অনেক ভালো মানের আর্কিটেকচার।

২. টেকনোলজিঃ ২য় বিষয় আপনাকে দেখতে হবে যে, কোন টেকনোলজির উপর ভিত্তি করে প্রসেসর তৈরি করা হয়েছে। আমরা জানি প্রসেসরের মধ্যে লাখ লাখ, কোটি কোটি ট্র্যানজিস্টর থাকে। আর এই ট্র্যানজিস্টর যত ছোট হবে ততোই একই ক্ষেত্রফলে অনেক বেশি ট্র্যানজিস্টর ধরবে(যেহেতু সব প্রসেসরের ক্ষেত্রফল একই থাকে)। এখন স্যামসাং বা কোয়ালকোম বা মিডিয়াটেক তাদের টেকনোলজির ভিত্তিতে এই ট্র্যানজিস্টর ইমপ্লিমেন্ট করে থাকে। দেড় দুই বছর আগেও যেখানে স্যামসাং ব্যবহার করত 14nm(ন্যানোমিটার), কোয়ালকোম 20nm, মিডিয়াটেক 26/28nm ট্র্যানজিস্টর সেখানে প্রযুক্তির উৎকর্ষ সাধনে আজ বেশিরভাগ প্রসেসর কোম্পানি তাদের ট্র্যানজিস্টর এর সাইজ 10nm বা তার কাছাকাছি নিয়ে এসেছে। সংক্ষেপে মনে রাখবেন ট্র্যানজিস্টর সাইজ যত কম হবে স্পিড ততো বেশি পাবেন।

৩. কোর সংখ্যাঃ এটা নিয়ে বলার কিছু নেই সবাই জানে যে প্রসেসরের কোর যত বেশি থাকে স্পিড ততো বেশি পাওয়া যায়। সংক্ষেপে বোঝার জন্য বলি যে, কোর যত থাকবে প্রসেসর সেই পরিমান কাজ একসাথে একই সময়ে করতে পারবে। আরো জানতে চাইলে ক্লিক করুন এখানে

ADs by Techtunes ADs

৪. স্পিড(GHz বা গিগাহার্জ) : এটাকে আসলে ক্লক স্পিড বলে। এর মানে হচ্ছে একক সময়ে একটা প্রসেসর কি পরিমান বৈদ্যুতিক তরঙ্গ(যেটাকে আমরা কম্পিউটারের প্রসেসিং পাওয়ার বলতে পারি) তৈরি করতে পারে। যেমনঃ ১গিগাহার্জ মানে হচ্ছে প্রসেসরটি ১ সেকেন্ডে ১০কোটি বার বৈদ্যুতিক তরঙ্গ(বা ১০কোটি বার ঘুরতে পারে) তৈরি করতে পারে। সেভাবেই বলতে পারি  গিগাহার্জ যত বেশি হবে, একক সময়ে কাজ করার হার ততো বেশি হবে।

এখন মোট কথায় আসি। যা আলোচনা করলাম সব মিলিয়ে যদি কম্বিনেশন ঠিক থাকে তাহলে সেই প্রসেসরটিই হবে আপনার জন্য বেস্ট। আপনি কোর বেশি নিলেন কিন্তু আর্কিটেকচার বা টেকনোলজি কম নিলেন তাহলে হবে না। এখানে প্রত্যেকটা জিনিস একে অপরের উপর নির্ভরশীল আর তাই আশা করি এখন আপনাদের প্রসেসর চেনার ক্ষেত্রে একটু হলেও উপকার হবে।

বি. দ্র. অনুগ্রহ করে কষ্ট করে বানানো জিনিস কেউ কপি পেস্ট করবেন না। আর আপনারা প্লিজ টিউমেন্ট করুন এবং আপনাদের মতামত জানান। আপনাদের মতামত আমাকে আরো এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আপনাদের ভালো লেগেছে কিনা জানাবেন………
সবাইকে ধন্যবাদ।আর সবাইকে আমার পার্সোনাল সাইট tech4bd.com এ ভিজিট করার অনুরোধ করলাম।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি মোঃখালেদ মোশাররফ মিথুন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 19 টি টিউন ও 12 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 5 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

I like to share tech things with people. I don't know anything so i am student here. Also whatever i know ,want to share with you guys. Best of luck.


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস