ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

বাংলাদেশে ইউটিউব ব্যান কতটা যুক্তিযুক্ত: নিজেই বিচার করে দেখুন

আসসালামু আলাইকুম

ADs by Techtunes ADs

আমার মনে হয় লেখাটা অনেক আগেই লেখা উচিত ছিল। কিন্তু লেখার সাহস হারিয়ে ফেলেছিলাম। ইউটিউব বন্ধ হওয়ার পরে অনেক টিউনারই তা ব্যবহার করার বিকল্প পদ্ধতি নিয়ে টিউন করেন। আর সেই টিউনগুলোর কমেন্টে উনাদেরকে যেভাবে হেনস্তা করা হয়েছিল, তা দেখে কার সাহস থাকবে বলুন? বিশেষ করে, উনাদের অনেকেই হচ্ছেন অভিজ্ঞ ব্লগার। তাই আমার মত নবাগত দশম শ্রেণীর ছাত্র যদি এই বিষয়টি নিয়ে লেখে, ভয় পেয়ে গেছিলাম হয়ত আপনারা সবাই দেশছাড়া করে ছাড়বেন।

আমি কয়েক সপ্তাহ আগে আমার বিদেশী বেশ কয়েকজন বন্ধুর সাথে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করি। আমি আবার রাত্রে স্কাইপে কথা বলতে শুরু করলে ফজরের আজানের আগে শেষ করিনা। এমনভাবে, সেদিন রাত্রে একটি গ্রুপ কলে ছিলাম। আর কলটিতে আমরা ৮ দেশের ৮ জন ছিলাম Deniz (Germany), Fatima (Morocco), Siddique (Pakistan), Fasasi (Nigeria), Akbar (Kenya), Irfan (Saudi Arab), Iqbal (India) & Me (Bangladesh)। WWE, ফুটবল, আমেরিকার নির্বাচন ইত্যাদি নিয়ে কথা বলতে বলতেই আমি ইউটিউবের এই ভিডিওটির প্রসঙ্গটি চালু করে সবার মতামত চাই।  এবং তাদের প্রত্যেকেই আমার মত একই মতামত প্রকাশ করে যে এই ভিডিওটি নিয়ে মিশরে যুক্তিহীন বাড়াবাড়ি হয়ে গেছে। আর আমি লজ্জার সাথে প্রকাশ করলাম যে, আমাদের দেশেও মিশরের নকল করার পরিপ্রেক্ষিতে ইউটিউব বন্ধ করে দিয়েছে। শুনে সকলেই হাসল, আমিও হাসলাম কারণ আমিও মনে করি এটি একটি যুক্তিহীন পদক্ষেপ। আল্লাহর রহমতে তাঁরা সকলেই ভাল মুসলমান, তাই আশা করি তাদের মতামত উড়িয়ে দেওয়ার মত করে ভাববেন না।

যাই হোক, এই বিষয়টি নিয়ে অনেকের সাথে আলোচনা, মতামত ও বিচার-বিশ্লেষণ করে আমি এতটুকু নিশ্চিত যে আমার মনে যেসব চিন্তা ভাবনা এবং প্রতিক্রিয়া কাজ করছে, তা শুধু আমার একার নয়। বরং আপনারা সকলেই একটু ভেবে চিন্তে দেখলে আমার সাথে সম্মত হবেন। আজকে যখন মোবাইলে ব্রাউজ করতে করতে Nokia Asha 311 লিখে গুগল করলাম, দেখাল যে “Content blocked by operator upon request from Government Authority”! নাহ! আমারও সহ্যের একটি সীমারেখা আছে। এমন যুক্তিহীনভাবে ইউটিউব ব্যানের পরে এখন যদি Nokia Asha 311 কেও ব্ল্যাক-লিস্টে যোগ করে, তাহলে কারই বা ভাল লাগে বলুন?

এবার আসি মুল কথায়...

আমার মনে হয় ইউটিউব ব্যানের কারণটি আপনারা সকলেই খুব ভালভাবে জানেন। যারা এখনও স্পষ্ট জানেন না তাদের অবগতির জন্য সংক্ষেপে জানাই:

মহানবী (সা:) এর অবমাননা করে ইউটিউবে “Innocence Of Muslim” নামক একটি ইসলাম বিরোধী চলচ্চিত্রের Trailer এবং পরবর্তীতে সম্পূর্ণ ভিডিও চিত্রটি প্রকাশের ফলে, সারা বিশ্বের বেশ কয়েকটি মুসলিম প্রধান দেশে ব্যাপক বিক্ষোভ সমাবেশ ঘটে। বাংলাদেশেও এর ব্যতিক্রম কিছু ঘটেনি। বেশ কিছুদিন রাস্তায় নেমে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের পতাকা পুড়িয়ে এদেশের মুসলিম জনতা ইউটিউবের সেই চলচ্চিত্র নির্মাতার উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে (!)। এরই ফলশ্রুতিতে, বাংলাদেশ সরকার ইউটিউব ব্যান করে দেন।

মিশরেই মূলত বিক্ষোভের শুরু হয়। যদিও ভিডিওটি অনেক কয় মাস আগেই প্রকাশ পায়, কিন্তু সেটা নিয়ে কারই তেমন কারও মাথা ব্যথা হয়নি। মাথা ব্যথা শুরু হয় যখন মিশরের একটি চ্যানেল এর আরবি অনুবাদটি টিভিতে দেখায়। ব্যাপক বিক্ষোভ মিছিলের এক পর্যায়ে মিশরে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের গাড়িতে এবং অফিসে হামলা চালানো হয়, এতে রাষ্ট্রদূত এবং তাঁর কয়েকজন সহযোগী নিহত হন। পরে অবশ্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একে একটি সন্ত্রাসী হামলা হিসেবে চিহ্নিত করে যারা মুসলিমদের বিক্ষোভের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে হামলাটি চালায়।

এর কিছুদিন পরে টেকটিউনসেই দেখলাম যে গুগল নাকি ভিডিওটি ডিলিট করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের পাঠান আবেদন নাকচ করেছে। শুনে খুব রাগ হল। একটা ভিডিও যারই জের ধরে এত বিক্ষোভ সমাবেশ, এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পর্যন্ত নিহত হলেন; সেই ভিডিও ডিলিট করতে ওরা কিভাবে নাকচ প্রকাশ করে?

কিন্তু কিছুদিন পরে গুগলের কথা না ভেবে নিজেকেই প্রশ্ন করলাম, আমরা নিজেরা কতটা যুক্তিযুক্ত আচরণ করছি?

ADs by Techtunes ADs

এত বিক্ষোভ এবং প্রতিবাদ মিছিলের ফলে “Innocence Of Muslim” যতটুকু প্রচার পেয়েছে, বাস্তবে এটি তার ১% এরও যোগ্য নয়। আপনি কি মনে করেন যে, এটিই ইউটিউবে একমাত্র ইসলাম বিরোধী ভিডিও? আমার মনে হয়, যারা এই ভিডিওর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে রাস্তায় নেমেছিল তাদের অধিকাংশ এমনটিই মনে করে।

কিন্তু বাস্তবতা হল, ইউটিউবে এমন ভিডিওর কোন অভাব নেই। আপনি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত শুধু ইসলাম বিরোধী ভিডিওই খুঁজে খুঁজে দেখতে থাকেন, তবুও শেষ করতে পারবেন না। কারণ এমন প্রচুর ইউটিউব চ্যানেল এবং ইউজার আছে যারা কেবল ইসলাম সম্পর্কে মিথ্যার প্রচার করাকেই নিজেদের পেশা হিসেবে গ্রহণ করেছে। তাই আপনি একটি ভিডিও দেখা শেষ করতে করতে আর একটি প্রকাশ পেয়ে যাবে!

এখন, ধরলাম আপনার চোখে এই একটি ভিডিওই পরেছে। আর আপনি এর বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলবেনই তুলবেন। কিন্তু সেটা কি ইউটিউব বর্জন করে বা রাস্তায় নেমে সম্ভব?

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বলি: আমাদের দেশের ইন্টারনেট স্পীড এবং বহুমুল্যতার কারণে ইউটিউবে হাতেগোনা কয়েকজনই ভিডিও দেখে থাকেন। আমিই ইউটিউব নিয়ে প্রচুর ঘাটাঘাটি করি এবং অনেক সময় ব্যয় করি। এছাড়া নিয়মিত বেশ কিছু ওয়েব শো, সাম্প্রতিক ভাইরাল ভিডিও ইত্যাদি দেখে থাকি। কিন্তু কোনটাই ব্রাউজারে নয়, IDM দিয়ে ডাউনলোড করে তারপর দেখি। কারণ যেটা বললাম, ইন্টারনেট স্পীড। আমি Zoom Ultra 256 kbps ব্যবহার করি এবং এতে ১৮-২০ kbps ডাউনলোড স্পীড পাওয়া যায়। তাই অনলাইনে দেখার প্রশ্নই আসে না!

সেজন্যই, আমি নিশ্চয় বলতে পারি বাংলাদেশে যারা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেছিল তাদের ৭৫% ই আজ পর্যন্ত ইউটিউব ব্যবহার করেনি। অনেকে হয়ত বা ইন্টারনেটই ব্যবহার করেনা। তাহলে কোন হিসেবে তাঁরা দেশে ইউটিউব ব্যান করার দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করে?

আচ্ছা ধরে নিলাম আপনি উনাদের অন্তর্ভুক্ত নন বরং আপনি ইউটিউবের নিয়মিত একজন ব্যবহারকারী। আর এত কিছু শোনার পরেও আপনি ওই ভিডিওটির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে চান। কিভাবে তুলবেন? রাস্তায় নেমে, নাকি ইউটিউব ব্যান করে? ঘরের দরজায় খিল মেরে যুদ্ধ জয় করতে চান? বাহ!

ইউটিউবে ওই ভিডিওটিকে মাথায় তুলে মিশরের মুসলমানেরা যেই অহেতুক প্রচার ঘটিয়েছে, তাতে স্বাভাবিকভাবেই তার দর্শক সংখ্যা অনেক গুনে বেড়েছে। আর কেনইবা বাড়বে না, একটি ভিডিওর জন্য যখন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের হত্যা হয়ে যাচ্ছে তখন যেকোনো আমেরিকান বা ইউরোপ বাসীই কৌতূহলী হয়ে ভিডিওটি দেখতে যাবে। আমি নিজেই ওই ভিডিওর পেজটিতে বেশ কয়েকবার গিয়েছি, কিন্তু ভিডিওটি দেখিনি। ভিডিওর কমেন্টে ইসলাম বিরোধী অনেক কমেন্ট আছে, যা ভিডিওটির ইসলাম সম্পর্কে মিথ্যা প্রচার আরও বেশি জোরদার করে তুলছে। কিন্তু হায়, কেউ যে তাদের উদ্ধৃতি গুলোকে ভুল প্রমাণ করে সেগুলোর সঠিক ব্যাখ্যা দিবে, তেমন কোন মুসলমান সেখানে নাই। কোথায় আছেন আমাদের রাস্তায় নামা বাংলাদেশি মুসলমান ভাইয়েরা? তাঁরা এখন শান্তিতে বিছানায় শায়িত এই ভেবে, কেউ একজন ইসলাম বিরোধী ভিডিও পোস্ট করেছিল, আমরা তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে ইউটিউব ই বন্ধ করে দিছি বাংলাদেশে! Problem SOLVED!!!

হয়তবা আমার পোস্টটি একটু বেশিই দীর্ঘ করে ফেললাম, কিন্তু আমার মনে হয় সবকিছুই বলার প্রয়োজন ছিল। ইসলাম নিয়ে যারা ইন্টারনেটে এমন ভুল প্রচার করে, তাদের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলা কেবল ইন্টারনেটেই কার্যকরী হবে।

আর যদি রাস্তায় নামেতেই হয়, নামুন সেই সব নিরীহ মুসলমানদের জন্য আজও পশ্চিমা বিশ্বের কাল থাবার তলায় নিষ্পেষিত। যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলতে চাইলে, তুলেন যখন তাদের সহযোগিতায় ইসরায়েল হামলা চালায় আফগানিস্তানে; যাতে নিহিত হয় একটি নিষ্পাপ শিশু। কোথায় ছিলেন আপনারা যখন যুক্তরাষ্ট্র ৯/১১’র জের ধরে দখল করল ইরাক, আর একটি সুখী সমৃদ্ধ দেশকে ১০ বছরে বিধ্বস্ত মরুভূমি করে থুয়ে গেল। কতবার রাস্তায় নেমেছিলেন? কতগুলো আর্টিকেল লিখেছেন জনসচেতনতা তৈরি করতে? মুসলমান হিসেবে কোনই কি দায়িত্ব ছিল না আপনার? নিরীহ মানুষ নির্বিচারে মরলেও খবর নাই, আর এক ভিডিও নিয়ে এত তোলপাড়!

আমি কারও মনোভাবে আঘাত করতে লেখিনি, তাই কেউ আঘাত পেলে দয়া করে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন। আশা করি আমার লেখা এবং এর যুক্তিগুলোর সাথে সকলেরই সম্মতি থাকবে। এও আশা করি যে কর্তৃপক্ষ অতি শীঘ্রয়ই ইউটিউব থেকে ব্যান তুলে নিবেন। যাতে করে আমাদের প্রতিবাদী মুসলিম ভাইয়েরা সেই সব অমানুষদের মুখোমুখি জবাব দিতে সক্ষম হন। প্রতিজন মুসলিম দর্শক = আরও একটি ডিসলাইক, আরও একটি রিপোর্ট, আরও একটি জুতোর বাড়ি সেই অমানুষগুলোর মুখে যারা ইসলাম নিয়ে ভুল ধারণার সৃষ্টি করে।

ADs by Techtunes ADs

সকলকে ঈদের অগ্রিম শুভেচ্ছা এবং দাওয়াত জানিয়ে শেষ করছি। আল্লাহ হাফেজ 🙂

[আর্টিকেলটি ভাল লাগলে কমেন্ট এবং শেয়ার করুন। আপনার ব্লগেও প্রকাশ করতে পারেন 🙂 ]

ADs by Techtunes ADs
Level New

আমি Howard Robles। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 7 বছর 8 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 9 টি টিউন ও 125 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

ভাই, আমি একজন মনেপ্রানে হিন্দু ধর্মাবলম্বী…………আপনার পোষ্ট পড়ে ভালো লাগলো……………Youtube বন্ধ করে সরকার যে কাজ করেছে সেটা হয়ত ঠিক করেনি সেটা বললে অনেকেই ভাববে হিন্দু বলে এই কথা বলতেছি……………আর ওই ভিডিও টা আপলোড করে যে অন্যায় করেছে তাও ঠিক………ওই ভিডিওটার কথা ভেবে খারাপ লাগে………আমার ধর্মকে নিয়ে কিছু বললে আমারও খারাপ লাগতো…………আমাদের উচিত সকল ধর্মকে সম্মান জানানো এবং নিজ নিজ অবস্থান থেকে নিজ নিজ ধর্ম পালন করা………।

Level 0

@ বেলাল হসাইন, আপনার বেশ কিছু যুক্তি খুব এ গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু একজন মুসলিম হিসেবে অবশ্যই ইসলামের অপপ্রচারের প্রতিবাদ করতে হবে। আমার সামনে কেও আমার নবিকে অসম্মান করবে, আর আমরা এর থেকেও বড় অপরাধ হচ্ছে এই ভেবে সেটাকে ভুলে যাব, এটা ইসলামের শিক্ষা না। আর বাংলাদেশে Youtube বন্ধ করা হয়েছে গুগল কে ভিডিও সরিয়ে ফেলতে Request করার পর তারা তা না করায়। ভিডিও টি ভারত এবং আরও কিছু দেশে গুগল থেকে বন্ধ করা হয়েছিল। সেসব দেশে তো বন্ধ করেনি সরকার।
আরেকটি কথা, আমি মোসলমান আর তাই শুধু ইসলাম কে হেয় করলে আমার খারাপ লাগবে তা না। কেও যদি হিন্দু অথবা অন্য কোন ধর্মের কার উপর অবিচার করে, আমরা মুসলিমরাও তার প্রতিবাদ করব। এটাই আমাদের নবিজির শিক্ষা।

    Level 0

    @Sabbir: একজন মুসলমান হিসেবে আমদের নবীজী কে নিয়ে ব্যাঙ্গ করলে তার প্রতিবাদ করাটা আমাদের দায়িত্ব বলে আমি মনে করি। তবে সেটা রাস্তায় নেমে কিংবা Youtube এঁর মত সাইট বন্ধ করে নয়।

    আমি ইউটিউব এঁর অনেক বড় ফান। Youtube কে ওয়ার্ল্ড এঁর ২য় সার্চ ইঞ্জিন বলা হয়। ইসলাম সম্পর্কে জানার জন্য Youtube এ আছে লক্ষ লক্ষ ভিডিও। আবার অনেক অবৈধ ভিডিও ও আছে, যেমন পর্ণ ভিডিও গুলো, আর ইসলাম বিরোধী ভিডিও ও আছে হাজার হাজার। এখন আপনি Youtube কে কিভাবে ব্যবহার করবেন সেটা আপনার বাপার।

    Google এ আপনি “beauty of Islam” লিখেও সার্চ দিতে পারেন আবার “innocence of muslims” বলেও সার্চ দিতে পারেন। এখন আপনি ওই “innocence of muslims” এই result google দেয় বলে প্রতিবাদ করে, এখন গুগল কে কি ব্যান করতে বলবেন?

    Youtube তখন বন্ধ করলে হয়ত আমাদের দেশে কিছু সহিংসতা হতে পারতো, এই জন্যই সরকার Toutube বন্ধ করেছিল, কিন্তু পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর তা ঠিক করে দেয়াটা কি যুক্তিযুক্ত নয়?

      Level 0

      @hmmm: sorry for mistake,
      Youtube তখন বন্ধ ((( না ))) করলে হয়ত আমাদের দেশে কিছু সহিংসতা হতে পারতো

        ভাই আমি ধর্মীয় গোঁড়ামি পছন্দ করিনা কিন্তু আপনি একবার ভেবে দেখুন আমাদের প্রিয় নবী রাসুলুল্লাহ (সাঃ) কে যে সাইটের মাধ্যমে অপমান করা হয়েছে সেই সাইট ( আপনার কাছে ফান ) বর্জন করলে আমাদের মুসলমানদের আত্মসম্মান আর ভালবাসায় যে আঘাত করা হয়েছে তার চেয়ে বেশি ক্ষতি হত না ( অবশ্য আমাদের মুসলমানদের আত্মসম্মানবোধ প্রায় নেই !)। এখন আপনি বলবেন, তাহলে তো আমার কথা অনুযায়ী ইন্টারনেটই বর্জন করা উচিত , কিন্তু না আমি এমন এক সাইট বর্জন করতে বলছি যে সাইটের পোস্ট নিয়ে সারা পৃথিবী তোলপাড় হয়ে গেলেও তারা ভিডিওটি সরিয়ে দিতে অস্বীকৃতি জানায়। আমি নিজে যুক্তরাজ্য পড়াশোনা করেছি আমি বিশ্বাস করি সব পশ্চিমারা এক নয় কিন্তু যারা আমাদের ক্ষতি করবে তাদের বিরুধ্যে কিভাবে যৌক্তিক আর শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করবে এতা ছাড়া। ভেবে দেখেন আপনি হাজার যুক্তি দেখালেও আপনার আত্মসম্মানবোধ আর নবিজীর সম্মানের চাইতে একটা ”ফান পরিপূর্ণ” সাইট বেশি হয়ে গেল ?? দুঃখজনক !!

          Level 0

          @Black Dranzer: আপনি বললেন, আমাদের মুসলমানদের আত্মসম্মানবোধ প্রায় নেই, তাহলে কাদের আছে বলে আপনি মনে করেন?

          ধর্মীয় গোঁড়ামি বলতে আপনি কি বোঝাতে চেয়েছেন আমার কাছে বোধগম্য নয়।

          আমি Youtube এঁর Fan বলে এঁর পক্ষে বলেছি আপনি বোধহয় এই ধরনের কিছু মনে করছেন।
          কিন্তু আপনি একবার ভাবেন তো Google তো আমাদের সরকার এঁর অনুরধ অস্বীকার করলো, তাহলে Google কে কেন ব্যান করলো না, কারণ Google কে ব্যান করলে আমরা প্রায় সব ইন্টারনেট বাবহারকারি কমবেশি ক্ষতির সম্মুখীন হতাম, সরকার আমাদের কথা চিন্তা করে এই ধরনের পদক্ষেপ নেয়নি।

          ইসলাম এঁর বিরুদ্ধে এইটাই কি ইউটিউব এঁর প্রথম ভিডিও?
          এঁর আগেও তো এরকম হাজার হাজার ইসলাম বিরোধী ভিডিও upload হইছে, সেগুলো এখনও আছে, আর এই হাজার হাজার ভিডিও “innocence of muslims” এঁর চাইতে কোন অংশে কম না।
          Dailymotion, vimeo এই ধরনের অনেক ভিডিও শেয়ারিং সাইট এ এখনও এই ভিডিও আছে তাহলে এগুলো কেন বন্ধ করছে না সরকার? এগুলোতো কম জনপ্রিও না। ইসলাম বিরোধী অনেক পেজ কে তো গুগল, ইয়াহু, বিং Crawl করে তাহলে গুগল, ইয়াহু, বিং কে কেন ব্যান করসে না?

          কিছুদিন আগে Youtube বন্ধ করাটা যুক্তিযুক্ত ছিল কারণ, এঁর কারনে কিছু সহিংসতা দেখা দিতে পারতো। কিন্তু এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক, তাই সরকারের উচিৎ অতি দ্রুত Youtube এঁর পূর্ণ Access Open করে দেয়া।

      Level 0

      @hmmm: ঠিক বলেছেন ভাই আপনি। ইন্টারনেট বা ইউটিউব- গুগল কে আমরা কিভাবে ব্যাবহার করব সেটা নিজের উপর নির্ভর করে। কেও যদি আমার ভালবাসার মানুষটিকে একটি খারাপ মন্তব্য করে বা আমার বোনের সাথে খারাপ আচরণ করে, আমার উচিৎ হবে তার প্রতিবাদ না করে মুখ বুঝে চোখে কাল কাপড় বেধে চলাফেরা করা। কারন আমি সান্তি প্রিয় মানুষ। আমাদের নবীজি আমাদের ভালবাসার মানুষ, আমাদের প্রানের নবী। একমাত্র মানুষ যিনি কেয়ামতের দিনও আমাদের মত পাপীদের জন্য সুপারিশ করবেন। আমাদের কি উচিৎ হবে তার অপমানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা? আমরা তো ধর্মীও গোঁড়ামির নাম করে ইসলাম কে নিজেরাই অশান্তি পূর্ণ করে তুলছি। ইসলাম শান্তির ধর্ম, তাই শান্তিপূর্ণ ভাবে প্রতিবাদ করা হয়েছে ইউটিউব বন্ধ করে, তাতেও কিছু মানুষের আপত্তি। হায়রে মোসলমান, কেয়ামত এর পূর্বাভাস গুলো সব ই সত্যি হচ্ছে।

        Level 0

        @Sabbir: ভাই আপনার কাছে বিনীত অনুরধ, আমার সব কমেন্টস পড়ে তবেই Reply দিবেন। আমি বললাম কি আর আপনি Reply দিলেন কি? কথাও কোন মিল খুজে পেলাম না,

        ভাই আগে আমার কমেন্টস গুলো পরেন, তারপর টার প্রেক্ষিতে আপনার মতামত দিন।

          ভাই সব খবর তো প্রকাশ পায় না মাত্র কিছু প্রকাশ পায় তার মধ্য এই ভিডিওটিও একটি, আর একটি ভিডিওর শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করতে গেলে এত লাভ ক্ষতি বিবেচনা তাহলে তো সব ভিডিও প্রকাশ হলে একথাও শুনতে হত নবীজিকে খারাপ কথা বলেছে তো আমার কি ? আমাকে তো কিছু বলেনি ! আপনি আরও জানতে চেয়েছেন ঃ @Black Dranzer: আপনি বললেন, আমাদের মুসলমানদের আত্মসম্মানবোধ প্রায় নেই, তাহলে কাদের আছে বলে আপনি মনে করেন?

          ধর্মীয় গোঁড়ামি বলতে আপনি কি বোঝাতে চেয়েছেন আমার কাছে বোধগম্য নয়।

          উত্তরঃ ভাই এখন লিখতে গেলে ভয় করে আবার যদি মৌলবাদী বলে ধরে নিয়ে যায় (আগে থেকেই আমার মনোভাব বুঝিয়ে দিলাম আর কি) ! আর আত্মসম্মানবোধের কথা বললেন? এটা মুসলমানদের ব্যতিত সব ধর্মের লোকেরই আছে ( এমনকি নাস্তিকদেরও ), কারন fun আর সামান্য ক্ষতির জন্য নিজের বিশ্বাস আর ধ্যান-ধারনাকে বিসর্জন দেয় না। প্রমান চান, আজকে আমেরিকার বিরুধে ভিডিও না শুধু কটূক্তি করুক আমাদের দেশের কোনও নেতা, কালকে আমেরিকা এইদেশে সরাসরি হামলা চালাবে আর একেই বলে আত্মসম্মানবোধ। কিন্তু আমরা সামান্য YOUTUBE ত্যাগ করতে পারি না ( আমাদের আত্মসম্মানবোধ অনেক বেশি )!!
          Google এর কথা বলছেন ? আমার তো মনে হয় যেদিন গুগল ভিডিওটি সরাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল সে দিনই বন্ধ করা উচিত ছিল ( অবশ্য লাভ-ক্ষতি মাঝে নবীর প্রতি ভালবাসা কোথাহতে আসে )। Google এর বদলে আমরা Yahoo বা Being ব্যবহার করতে পারতাম একটু কষ্ট করে। আপনিই বলেছেন সরকার সার্বজনীন ক্ষতির কথা চিন্তা করে Google ব্যান করে নি , যাইহোক বড় ক্ষতি নাহয় সামলাতে পারব না কিন্তু সামান্য সমস্যা (Youtube ব্যান ) পর্যন্ত সহ্য করতে পারব না, লজ্জাজনক। ভাই আপনি আর আমি এইসব বাকবিতণ্ডা করে লাভ নেই তারচেয়ে বরং এই তর্কের ফলাফল হাশরের দিন পর্যন্ত রেখে দেই অইদিন ইনশাল্লাহ মহা জ্ঞানী আল্লাহতালা বলবেন কে সঠিক আর কে ভুল, কি বলেন ?

        Level New

        @Black Dranzer: আপনার কমেন্ট পরে সত্যি আশ্চর্য হচ্ছি! আপনি কি আমার লেখাটা পুরোপুরি পড়েননি নাকি বুঝেও না বোঝার ভান করছেন! কিয়ামত পর্যন্ত অপেক্ষা করার দরকার নেই, আল্লাহ পাক আমাদের ভাল এবং খারাপের মধ্যে পার্থক্য বোঝার তাওফিক দিয়েছেন।

        বার বার একই কথা, ইউটিউব ভিডিওটি ডিলিট করতে অস্বীকার করল আর আমরা এর পরেও সাইটটি বর্জন করতে পারছি না! কেমন মুসলমান আমরা? এইতো আপনার মতামত।

        এবার আমি বলি, ইউটিউব বর্জন করায় যদি সমস্যার কোন সমাধান হতো আমরা খুশি মনে সেটা করতাম। গুগল নাহয় ভিডিওটি ডিলিট করতে অস্বীকার করেছে। কিন্তু নিজেকে প্রশ্ন করুন, আমরা মুসলিমেরা কি এতই দুর্বল জাতি যে ওই ইতরগুলোর ভিডিও ডিলিট হওয়ার আগ পর্যন্ত হাত গুটিয়ে বসে থাকব? না, মোটেই না! আমরা সেই কুকুর গুলোর মুখে জুতা মেরে সায়েস্তা করতে চাই। অনলাইনের কুকর্মের প্রতিবাদ অনলাইনে গিয়েই সম্ভব, অফলাইনে রাস্তায় নেমে কোন কিছুই অর্জন হবে না।
        অমন লোক দেখানো ভালবাসা আমাদের মহানবী (সাঃ) কে আমরা বাসিনা। আমাদের ভালবাসা যেন সেই কুলাঙ্গার গুলোর কর্মের জবাব আকারে দেওয়া হয়, তেমনটাই আশা রাখি 🙂

        দয়া করে আমার লেখা এবং এর উদ্দেশ্য নিয়ে ভুল কোন ধারণা রাখবেন না। ঈদ মোবারক!

          ভাই YOUTUBE মানেই অনলাইন নয়, নবিজির প্রতি ভালবাসা পর্যাপ্ত থাকলে Youtube ব্যবহার বন্ধ রেখেও অনলাইনে প্রতিবাদ করা যায়। আর প্রতিবাদের শুরু তো এমনই হওয়া উচিত যে, আগে খারাপটা বর্জন করি তারপর প্রতিবাদের ভাষা তৈরি করি। আপনি একদিকে ক্রিমিনালদের পরোক্ষ সহযোগিতা করবেন ( YOUTUBE এর ভিসিটর বাড়িয়ে ) অন্যদিকে প্রতিবাদ করবেন এটা সম্পূর্ণ আরেকটি ভুল। আপনার মত হাজার হাজার মুসলিম যদি YOUTUBE ভিসিট নিজে থেকেই ( সরকার করেছে না হয় জোর পূর্বক ) বন্ধ করে দেন তাহলে এমনিতেই GOOGLE অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হবে আর বুঝতে পারবে Racism করলে ফলাফল ভাল হয় না এবং আমরা মুসলমানেরাও মানব জাতির অংশ।
          আমার মতে আপনাদের FUN এর ক্ষতি হওয়ায় প্রতিবাদের ভাষা পরিবর্তন করা YOUTUBE কে পুনরায় চালু করার একটি উসিলা মাত্র।
          আপনি তো Youtube ব্যবহারের পক্ষপাতী আবার আল্লাহর রাসুলকেও ভালোবাসেন তাহলে নিশ্চয়ই আপনি অন্য পন্থায় প্রতিবাদ করছেন এখন, সেটা কি একটু বলবেন আমরাও করি তাহলে …।
          আদ্ভুত লাগে আপনার কথার মানে হচ্ছে যে, দয়া প্রার্থী এক লোক একজন খাবার দানকারীর কথায় আপনাকে ( আরেক খাবার দানকারীকে ) কামড় দিল তাকে খাবার দিবেন, যত্ন নিবেন আবার তাকে শায়েস্তা করার কথাও বলবেন, এটা কি একি মাথায় দুটো মুখের মতন আচরণ না ?
          Youtube কে বর্জন করার কারন আপনি ভুল বুঝেছেন। কারন ২টি ঃ
          ১) Google কে অর্থনৈতিক ভাবে চাপে ফেলা এই ভিডিওটি না মুছার জন্য।
          ২) নিজেকে এইসব নোংরা ভিডিও দেখা হতে বিরত রাখা।

          শেষ কথাঃ
          আপনি বলেছেন ”আমরা সেই কুকুর গুলোর মুখে জুতা মেরে সায়েস্তা করতে চাই। অনলাইনের কুকর্মের প্রতিবাদ অনলাইনে গিয়েই সম্ভব, অফলাইনে রাস্তায় নেমে কোন কিছুই অর্জন হবে না।”
          আমি বলছি ঃ আমরা অনলাইনেই ( Youtube বাদে অন্য ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট ব্যবহারের মধ্য দিয়ে ) প্রতিবাদ করছি সাইটি বর্জন এর মাধ্যমে । এর চেয়ে বর জুতা কি হতে পারে ?

Youtube বন্ধ করায় আমার যে কত বড় ক্ষতি হল বলে বোজানো যাবে নাহ।

Level 0

মহানবী (সা:) বলেছেন ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি করো না।আমাদের সকলের উচিত যার যার ধর্ম সেই পালন করুক।অন্য কেউ ধর্ম নিয়ে কথা না বলে।

    Level 0

    @Imran bd: আপনি বাড়াবাড়ি বলতে কি বুঝলেন, আমাদের কিছু সত্য পাগলামি চোখের সামনে ফুটিয়ে তোলা নাকি সরকার এঁর Youtube বন্ধ করাটা?

    খুব হাসি লাগে আপনাদের মত চিন্তা ভাবনা করা মতামত দেখলে।

Level 0

ছোট ভাই তুমি আমার একবারে মনের কথাগুল বলছ, এই ধরনের বিষয়ে আমরা কি করি আমরা নিজেরাই জানি না, অনেক বিজ্ঞ TT তো আবার গুগল কেও ব্যান করার কথা বলছিল(কি ভয়ানক বাপার)।
তোমার এই টিউন পরে দেখবা অনেক Youtube বিরোধীরা আবার এখন Youtube এঁর পক্ষে বলছে। আসলে এঁরা এক ধরনের সাইকো বলে আমার মনে হয়।

He he he. Vai jan eto kisu bolar ki dorkar. Jara aj protibad e namce tara ki dekhe na aj bangladeshi kisu nastik ra allah r rasul ke niye koto aje baje page khule bose ase. Oneke abar nijeke allah bole niomito post kore. Tara to bd te thake. Tader biruddeh to ekta bar rastai namlen na. Ar erokom post deyar karone ke ke facbook use kora chere disen? Abar aj amader oneke usa ba boro kono islam birodhi country te thaki. Aj e sokol deshe islam ke kivabe obomano na kora hocce eta amra sokole jani. Kauke to sunlam na je esob karone tara usa theke bd te fire protibad korece! ar tuner vai er sathe ami ek mot je 75% lok youtube use kore na. Mane youtube thakle othoba ban korle tader kono lav ba khoti hobe na. Ja khoti hobe ta holo amader moto manusher jara youtube er regular user. Amar mone hoina google ei video ta youtube theke remove korbe. Tahole ki amader moto user ra ki ar youtube use korbe na. Jara boro boro kotha bole tara ki youtube use korbe na?

    Level 0

    @রাব্বি: রাব্বি ভাই, ওরা সবাই ভুল করছে, চলুন আমি আর আপনি সঠিক টা করি। নিজেকে শুধরাতে পারলেইত হয়েযায়। সবাই যদি নিজেকে বদলে ফেলি তাহলেই সবাই বদলে যাবে। মনে হয় বেশি বড় বড় কথা বলে ফেলছি।

Level New

আমার মতে ঐ সময় ইউটিউব বন্ধ করে সঠিক কাজ করেছে। না হলে ইসলামের নামে সুযোগ সন্ধানীরা অনেক খারাপ পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে পারত। তবে এখন যেহেতু পরিস্থিতি ভাল হয়ে গেছে সেহেতু বিষটি সুরাহা হওয়া দরকার।

Level 0

যদিও ইউটিউব বন্ধ করে আমাদের অনেক ক্ষতি হচ্ছে। তবুও যেহেতু আমি একজন মুসলমান আমি মনে করি ইউটিউব বন্ধ করে খুবই ভালো কাজ করেছে সরকার। কারন যখন গুগলকে এই ভিডিওটি বন্ধ করার জন্য সরকারের পক্ষ হতে বলা হয়েছে। তারপরও বন্ধ করেনি। সেহেতু ইউটিউব বন্ধ করা অবশ্যই ঠিক। উদাহরন স্বরুপ ব্রাজিলে কিছু দিন আগে সরকার বিরোধী কিছু ভিডিও প্রকাশ পায় ইউটিউবে তখন ঐ দেশের হাই কোর্ট থেকে গুগলকে একটি লিগাল নোটিশ দেওয় হয় এই বলে যে যদি .. দিন (নির্দিষ্ট দিনটি মনে নেই) এর মধ্যে ভিডিওটি না ডিলিট করা হয় তাহলে গুগলের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর এটা তো আমাদের মহানবী (স:) এর বিরুদ্ধে ভিডিও।

    Level 0

    @Shoptorshy: ভাই ইসলাম এঁর বিরুদ্ধে এইটাই কি ইউটিউব এঁর প্রথম ভিডিও?
    এঁর আগেও তো এরকম হাজার হাজার ইসলাম বিরোধী ভিডিও upload হইছে, সেগুলো এখনও আছে, আর এই হাজার হাজার ভিডিও “innocence of muslims” এঁর চাইতে কোন অংশে কম না।
    Dailymotion, vimeo এই ধরনের অনেক ভিডিও শেয়ারিং সাইট এ এখনও এই ভিডিও আছে তাহলে এগুলো কেন বন্ধ করছে না সরকার? এগুলোতো কম জনপ্রিও না। ইসলাম বিরোধী অনেক পেজ কে তো গুগল, ইয়াহু, বিং Crawl করে তাহলে গুগল, ইয়াহু, বিং কে কেন ব্যান করসে না?
    একজন মুসলমান হিসেবে তো এগুলোর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করাটা আমাদের দায়িত্ব, কিন্ত এঁর বিরুদ্ধে কি আপনি-আমি আজ পর্যন্ত কি একটাও আওয়াজ তুলেছি?

    কিছুদিন আগে Youtube বন্ধ করাটা যুক্তিযুক্ত ছিল কারণ, এঁর কারনে কিছু সহিংসতা দেখা দিতে পারতো। কিন্তু এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক, তাই সরকারের উচিৎ অতি দ্রুত Youtube এঁর পূর্ণ Access Open করে দেয়া।

      আপনার কথায় মনে হচ্ছে ওইসব ভিডিও যারা তৈরি করেছে তারা নিষ্পাপ আর যারা Youtube কে প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে ব্যান করেছে তারাই অপরাধী !! ভাই সব খবর তো প্রকাশ পায় না মাত্র কিছু প্রকাশ পায় তার মধ্য এই ভিডিওটিও একটি, আর একটি ভিডিওর শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ করতে গেলে এত লাভ ক্ষতি বিবেচনা তাহলে তো সব ভিডিও প্রকাশ হলে একথাও শুনতে হত নবীজিকে খারাপ কথা বলেছে তো আমার কি ? আমাকে তো কিছু বলেনি !

      আপনি আমাকে আরও বলেছেন ঃ @Black Dranzer: আপনি বললেন, আমাদের মুসলমানদের আত্মসম্মানবোধ প্রায় নেই, তাহলে কাদের আছে বলে আপনি মনে করেন?

      ধর্মীয় গোঁড়ামি বলতে আপনি কি বোঝাতে চেয়েছেন আমার কাছে বোধগম্য নয়।

      উত্তরঃ ভাই এখন লিখতে গেলে ভয় করে আবার যদি মৌলবাদী বলে ধরে নিয়ে যায় (আগে থেকেই আমার মনোভাব বুঝিয়ে দিলাম আর কি) ! আর আত্মসম্মানবোধের কথা বললেন? এটা মুসলমানদের ব্যতিত সব ধর্মের লোকেরই আছে ( এমনকি নাস্তিকদেরও ), কারন fun আর সামান্য ক্ষতির জন্য নিজের বিশ্বাস আর ধ্যান-ধারনাকে বিসর্জন দেয় না। প্রমান চান, আজকে আমেরিকার বিরুধে ভিডিও না শুধু কটূক্তি করুক আমাদের দেশের কোনও নেতা, কালকে আমেরিকা এইদেশে সরাসরি হামলা চালাবে আর একেই বলে আত্মসম্মানবোধ। কিন্তু আমরা সামান্য YOUTUBE ত্যাগ করতে পারি না ( আমাদের আত্মসম্মানবোধ অনেক বেশি )!!
      Google এর কথা বলছেন ? আমার তো মনে হয় যেদিন গুগল ভিডিওটি সরাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল সে দিনই বন্ধ করা উচিত ছিল ( অবশ্য লাভ-ক্ষতি মাঝে নবীর প্রতি ভালবাসা কোথাহতে আসে )। Google এর বদলে আমরা Yahoo বা Being ব্যবহার করতে পারতাম একটু কষ্ট করে। আপনিই বলেছেন সরকার সার্বজনীন ক্ষতির কথা চিন্তা করে Google ব্যান করে নি , যাইহোক বড় ক্ষতি নাহয় সামলাতে পারব না কিন্তু সামান্য সমস্যা (Youtube ব্যান ) পর্যন্ত সহ্য করতে পারব না, লজ্জাজনক। ভাই আপনি আর আমি এইসব বাকবিতণ্ডা করে লাভ নেই তারচেয়ে বরং এই তর্কের ফলাফল হাশরের দিন পর্যন্ত রেখে দেই অইদিন ইনশাল্লাহ মহা জ্ঞানী আল্লাহতালা বলবেন কে সঠিক আর কে ভুল, কি বলেন ?

    Level 0

    @Shoptorshy: দেখেন Youtube কে কেন বন্ধ করা হল, আমাদের নবিজীর প্রতি ভালবাসা থেকে, তাঁকে ব্যাঙ্গ কারার জন্য। একজন মুসলমান হিসেবে এটার তীব্র প্রতিবাদ করাটা আমাদের দায়িত্বের থেকেও আরও অনেক বেশী কিছু। কিন্তু এই প্রতিবাদ তা কি Youtube বন্ধ না করে করা যায় না? তারা Youtube এ এই ধরনের একটা ভিডিও Upload করেছে, আমরা মুসলমানরা যদি Youtube বন্ধ না করে সেই ভিডিও এঁর ভুল ব্যাখ্যাগুলো প্রমান করে কয়েক হাজার video Upload করে দেই, যেখানে আমরা দেখাতে পারি সত্য টা আসলে কি। Islam বিরোধী video গুলো আমারা search করে সেগুলোতে যে ব্যাপার গুলোকে ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে সেগুলোর সঠিক ব্যাখ্যা লিখে প্রতিবাদ করি তবে সেটা Youtube বন্ধ করে প্রতিবাদ
    করার চাইতে নিশ্চই অনেক ভালো হবে। আপনার আমার সেই ভিডিও Google একটাও Delete করে দিবেনা, এই বাপারে আপনি ১০০% নিশ্চিত থাকতে পারেন। কারণ Google Business এঁর জন্য Youtube খুলেছে, ধর্মের প্রচার কিংবা অপপ্রচার এর জন্য নয়। এতে অন্য অনেক ধর্মের লোকেরা ইসলাম ধর্মে সম্পর্কে কিছু স্পষ্ট ধারনা পেত। আর ওই ধরনের ভিডিওটি সবার কাছে গ্রহন যোগ্যতা হারাতো।

    আচ্ছা আজকে যদি হিন্দু ধর্ম নিয়া এই ধরনের কোন ভিডিও প্রকাশ পায় তবে আপনি কি এটা দেখার পর ভিডিও টাকে Like করবেন নাকি Dislike করবেন? নিশ্চই Dislike. ভাই “Innocence of muslims” এই ভিডিও টা যদি কোন সুস্থ মস্তিস্কের খ্রিস্টান, হিন্দু দেখে তবে সেও Dislike করবে।

    আমি আপনার সাথে তর্কবিতর্ক করছি না, আমার চিন্তাভাবনা গুলো শুধু আপানাদের সাথে শেয়ার করছি। আমার ও এখানে অনেক ভুল থাকতে পারে, আপনারা যদি আমার সেই ভুলগুলো ধরিয়ে দেন তবে আমি অনেক উপকৃত হব।

Level 0

@Black Dranzer: আমার কমেন্টস পড়ে যদি আপনার মনে হয় “ওইসব ভিডিও যারা তৈরি করেছে তারা নিষ্পাপ আর যারা Youtube কে প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে ব্যান করেছে তারাই অপরাধী” আমি এই ধরনের কিছু বুঝিয়েছি তবে ভাই আপনার সাথে কোন মতামত শেয়ার করাটা বোধহয় ঠিক হবে না। আপনি মনে হয় আমার কমেন্টস টি ভুল ভাবে বুঝছেন।

আর “আমেরিকার বিরুধে ভিডিও না শুধু কটূক্তি করুক আমাদের দেশের কোনও নেতা, কালকে আমেরিকা এইদেশে সরাসরি হামলা চালাবে আর একেই বলে আত্মসম্মানবোধ” এটাকে আত্মসম্মানবোধ বলে না, এটা হল ক্ষমতার অপব্যবহার। আমারা যদি আমেরিকার চাইতে অনেক বেশী ক্ষমতাধর আর শক্তিশালী দেশ হতাম তবে তাদের বিরুধে ভিডিও বের করলে তারা আমাদের মত চুপ করে বসে বসে দেখত, হামলা চালাত না, মানে ক্ষমতার অপব্যবহার করতে পারতো না। তাঁর মানে এই নয় যে তাদের আত্মসম্মানবোধে নেই। এখানে ধর্মের ব্যাপার তা আসে না, এটা হল রাজনীতি আর ক্ষমতা এঁর ব্যাপার।

সৃষ্টিকর্তা মানুষ কে সকল জীব এঁর থেকে সেরা হিসেবে পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন।
“অবশ্য লাভ-ক্ষতি মাঝে নবীর প্রতি ভালবাসা কোথাহতে আসে” ভাই আমি Youtube এ Business করি না, দেখেন Youtube কে কেন বন্ধ করা হল, আমাদের নবিজীর প্রতি ভালবাসা থেকে, তাঁকে ব্যাঙ্গ কারার জন্য। একজন মুসলমান হিসেবে এটার তীব্র প্রতিবাদ করাটা আমাদের দায়িত্বের থেকেও আরও অনেক বেশী কিছু। কিন্তু এই প্রতিবাদ তা কি Youtube বন্ধ না করে করা যায় না? তারা Youtube এ এই ধরনের একটা ভিডিও Upload করেছে, আমরা মুসলমানরা যদি Youtube বন্ধ না করে সেই ভিডিও এঁর ভুল ব্যাখ্যাগুলো প্রমান করে কয়েক হাজার video Upload করে দেই, যেখানে আমরা দেখাতে পারি সত্য টা আসলে কি। Islam বিরোধী video গুলো আমারা search করে সেগুলোতে যে ব্যাপার গুলোকে ভুল ভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে সেগুলোর সঠিক ব্যাখ্যা লিখে প্রতিবাদ করি তবে সেটা Youtube বন্ধ করে প্রতিবাদ
করার চাইতে নিশ্চই অনেক ভালো হবে। আপনার আমার সেই ভিডিও Google একটাও Delete করে দিবেনা, এই বাপারে আপনি ১০০% নিশ্চিত থাকতে পারেন। কারণ Google Business এঁর জন্য Youtube খুলেছে, ধর্মের প্রচার কিংবা অপপ্রচার এর জন্য নয়। এতে অন্য অনেক ধর্মের লোকেরা ইসলাম ধর্মে সম্পর্কে কিছু স্পষ্ট ধারনা পেত। আর ওই ধরনের ভিডিওটি সবার কাছে গ্রহন যোগ্যতা হারাতো।

আচ্ছা আজকে যদি হিন্দু ধর্ম নিয়া এই ধরনের কোন ভিডিও প্রকাশ পায় তবে আপনি কি এটা দেখার পর ভিডিও টাকে Like করবেন নাকি Dislike করবেন? নিশ্চই Dislike. ভাই “Innocence of muslims” এই ভিডিও টা যদি কোন সুস্থ মস্তিস্কের খ্রিস্টান, হিন্দু দেখে তবে সেও Dislike করবে।

আমি আপনার সাথে তর্কবিতর্ক করছি না, আমার চিন্তাভাবনা গুলো শুধু আপানাদের সাথে শেয়ার করছি। আমার ও এখানে অনেক ভুল থাকতে পারে, আপনারা যদি আমার সেই ভুলগুলো ধরিয়ে দেন তবে আমি অনেক উপকৃত হব।

    ভাই আসল ব্যপার হচ্ছে আমার মনে হয় Youtube বন্ধ করাই ছিল সবচেয়ে সহজ আর শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ ( কিন্তু অবশ্যই সমাধান নয়, আসলে সমাধান আছে কিনা সন্দেহ ) আমার মনে হয় আর আপনার মনে হয় যুক্তিযুক্ত অন্য কিছু করা উচিৎ ছিল তাই এটা নিয়ে আমি আর কথা বাড়াব না কারন তাহলে কথা আর যুক্তি বাড়তেই থাকবে (এর কোনও সমাধান নেই )। তবে আমি আমার কমেন্ট সম্পরকে আপনি যে ভুল ধারনা পোষণ করেছেন তা পরিবর্তন করতে চাচ্ছি। আপনি বললেন ,
    আমেরিকার বিরুধে ভিডিও না শুধু কটূক্তি করুক আমাদের দেশের কোনও নেতা, কালকে আমেরিকা এইদেশে সরাসরি হামলা চালাবে আর একেই বলে আত্মসম্মানবোধ” এটাকে আত্মসম্মানবোধ বলে না, এটা হল ক্ষমতার অপব্যবহার।
    আমি বুঝিয়েছি ঃ ভাই আমেরিকানদের এই ক্ষমতার অপব্যবহার পরে আসে আগে কথা তাদের আত্মস্মমানে লাগে আর তারপর তার ব্যবস্থা হিসেবে তারা ক্ষমতা ব্যবহার করে সাধ্যমত আর আমরা সব (আত্মসম্মান) হারিয়েও সামান্য YOUTUBE ছাড়তে রাজি নই (ভিন্ন প্রতিবাদের পন্থার খোঁজে মোরা)। !!

    আরও বললেন ঃ আচ্ছা আজকে যদি হিন্দু ধর্ম নিয়া এই ধরনের কোন ভিডিও প্রকাশ পায় তবে আপনি কি এটা দেখার পর ভিডিও টাকে Like করবেন নাকি Dislike করবেন? নিশ্চই Dislike. ভাই “Innocence of muslims” এই ভিডিও টা যদি কোন সুস্থ মস্তিস্কের খ্রিস্টান, হিন্দু দেখে তবে সেও Dislike করবে।

    আমার কথা ঃ ভাই আমি আপনার সাথে এই ব্যপারটাতে পুরপুরি একমত কারন আমি অন্য ধর্মের লোকদের খুব কাছ থেকে দেখেছি প্রথম বিশ্বের একটি দেশে।

      Level 0

      @Black Dranzer: আচ্ছা ভাইয়া আমরা আর কোন কথা না বাড়াই, আমার আর আপনার কথার মাঝে কিছু পার্থক্য আছে, এঁর পক্ষে-বিপক্ষে অনেক যুক্তি দেয়া যায় আমরা আর সেদিকে না যাই। ঈদ মোবারক!!!

        ধন্যবাদ ভাই আপনাকেও ঈদ মুবাররাক।

Level 0

************************* TECH TUNES Moderator **********************
আমার কিছু জায়গায় ভুলে ২বার দিয়ে দিছি। Plz Duplicate কমেন্টস গুলো মুছে দেন।

amar mone hoy.. Amar theke youtube kom manush use kore…. Tarporeyo ami chai ytb bondo thakuk… Rasuler name keo apobad dile rasuler kisu jay asena…. Jay ase amader, karon tar suparish chara keo jannate jete parbena….

    Level New

    @মিয়াজী (IIUC): আপনার কি মনে হয় না নবীজি (সাঃ) এর অবমাননাকারির মুখ দেখা বন্ধ করার চাইতে তার মুখে জুতা মারা আমাদের বেশি শোভা পায়?

      Level 0

      @বেলাল হোসাইন: ভাই তুমি তো টিউন টা করে সারাদিন কোন Reply দিলানা, আমি সকাল থেকে যে কত কি Example দিয়া বুঝানোর চেষ্টা করছি, কিন্তু এরা সবাই বুঝেও না বুঝার ভান করছে। বলি একটা না বুঝে reply দেয় আরেকটা। এই ছোট্ট বয়সে তুমি যে ব্যাপার গুলো তোমার যুক্তি দিয়া বুঝতেছ, এরা এত বড় হয়েও সহজ ব্যাপার বুঝেও এড়িয়ে যাচ্ছে।

      তোমার এই অসাধারণ টিউন এঁর জন্য অনেক ধন্যবাদ।

        Level New

        @hmmm: আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ ভাই। আসলে ব্যপার টা হচ্ছে, আমি সিটিসেল নাইট প্যাকেজ (রাত ১টা – সকাল ৮টা) ব্যবহার করি। যদিও আমি সারাদিন প্রতি ঘণ্টায় আমার মেইল বক্স চেক করে কমেন্টগুলো দেখছিলাম, কিন্তু কাউকে কোন রিপ্লে করতে পারিনি। সেজন্য দুঃখিত!
        রিপ্লে করতেই বা হবে কেন ভাই, আমি টিউনে যে কথাগুলো বলেছি এখনও সেই কথাই বলছি। এখন কেউ যদি ইচ্ছা করেই না বোঝার চেষ্টা করে তাহলে আমরা কি কিছু করতে পারি।

        যাই হোক, ঈদের সকালে আর কারও সাথে যুদ্ধে নামতে চাই না। ঈদ মোবারক 🙂

          Level 0

          @বেলাল হোসাইন: !!! ঈদ মোবারক !!! সিটিসেল নাইট প্যাকেজ, আমি জানি না তুমি জানো কিনা জিপি তে Unlimited ফ্রী ব্যবহার করা যায়, যদি এটা তোমার কাছে ভালো লাগে তবে তুমি এটা ব্যবহার করতে পার। মানে চুরি করে নেট ব্যবহার করা আর কি।

          ভাই আপনারা আবার আমাকে এই চুরি নিয়া অন্য কোন জ্ঞানের কথা শুনাইয়েন না।

        Level New

        @hmmm: তাই নাকি! কিভাবে করছেন দয়া করে জানাবেন! আমাকে ইমেইল করে দিয়েন [email protected] 🙂

    @মিয়াজী (IIUC): ami mone kori na tumi youtube theke valo kisu shikso! gan dheka ba funny jinish dhekar mane ai nah tumi youtube use korso!! youtube use korar mane holo youtube theke tumi ki shikso ja tumi kono kaje lagate parbe…. ar akane onekei ache jara all time youtube use kore shikar jonno and kaoke shikhabar jonno!! sharadin youtube khola reke hindi song dhekar maje youtube use kora bojai nah!

এই বিষয় নিয়ে যত কথা বলতে থাকবেন ততই যুক্তি তর্ক বাড়তে খাকবে। আপনি বিষয়টি আর একটু স্পষ্ট করে লিখতে পারতেন। আমি বলছিনা যে খারাপ লিখেছেন। অবশ্যই টিউনটি অনেক ভাল হয়েছে। তবে কিছু বিষয় অস্পষ্ট রয়ে গিয়েছে। যেমন ধরুন, ফেসবুকে কেউ যদি আপত্তিকর কোন ছবি প্রকাশিত করে তবে তার বিরুদ্ধে রিপোর্ট দেওয়ার ব্যবস্থা আছে। তেমনি ইউটিউব এ ভিডিওর নিচে লাইক এবং ডিসলাইক লেখা দুইটি অপশন রয়েছে। যে ভিডিও নিয়ে এত তর্ক বিতর্ক সে ভিডিওটি গুগল বা ইউটিউব বন্ধ করতে অস্বিকৃতি জানিয়েছে শুধু বাংলাদেশকে। তাহলে কেন ইন্ডিয়াতে ওই ভিডিওটি বন্ধ রেখে ইউটিউব খোলা রাখা হয়েছে। ইন্ডিয়া তো একটি হিন্দু সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ, তবেুও তারা ভিডিওটি বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছে। আমাদের দেশে পুরো ইউটিউবই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তবে এত তাড়াতাড়ি বন্ধ করে দেওয়াটার পক্ষে আমি সহমত নই। কারন আমাদের দেশে ইউটিউব বন্ধ করার আগে প্রতিবাদ জানানোর জন্য সুযোগ দেওয়া উচিত ছিল। আমাদের দেশের বর্তমান জনসংখ্যা কত আমার জানা নেই তবে আমরা যতজন কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট ব্যবহার করি প্রত্যেকে যদি ওই ভিডিওটিতে ডিসলাইক দিতাম এবং তীব্র প্রতিবাদ জানাতাম তাহলে ইউটিউব ভিডিওটি বন্ধ করতে বাধ্য হত। তাছাড়া ওই ভিডিওতে যে ভুল বিষয়গুলি দেখান হয়েছে তার সঠিক ব্যাখ্যা এখন পর্যন্ত কোন মুসলমান ভাইকে দিতে দেখলাম না। সবাই শুধু তর্ক বিতর্ক করছে। আমরা কারো ধর্মকে নিন্দা না জানিয়ে আমাদের ধর্ম নিয়ে যে ভুল ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে আমরা ত চাইলে তার সঠিক ব্যাখ্যা দিয়ে আমাদের ধর্ম এবং প্রিয় নবীজিকে নিয়ে যে আপত্তিকর বিষয়গুলো প্রকাশিত হয়েছে তার সঠিক ব্যাখ্যা এবং ইসলামের সত্য এবং সুন্দর দিকগুলোর আলোকে হাজার হাজার ভিডিও আপলোড করতে পারতাম। তখন কি করত ইউটিউব বা গুগল? ইউটিউব কি এখনও পুরোপুরি বন্ধ হয়েছে? না হয়নি এখন ও বাংলাদেশ থেকে অনেক পদ্ধতি ব্যবহার করে ইউটিউব এ ঢুকা যায়। কিন্তু তাতে কি লাভ? এখনও বাংলাদেশ থেকে ইউটিউব এ ওই আপত্তিকর ভিডিও দেখা যায়। একবার কি ভেবে দেখেছেন যারা ইউটিউবে এমন ভিডিও প্রকাশ করেছে বা যারা তৈরী করেছে তাদের উদ্দেশ্য একেবারে ১০০% সফল। একটি ভিডিও সারা বিশ্বে মুসলিম সমাজকে সত্যি সত্যি টেররিষ্ট বানিয়ে দিয়েছে। আরে একটা বিষয় কেউ বুঝতেই চায়না এই লড়াই আমাদের ইন্টারনেটেই করতে হবে। আমরা যদি আমাদের দেশে এই বিষয় নিয়ে দাঙ্গা,হাঙ্গামা করে,ভাংচুর করে, মারামারি করি তাহলে কি সমস্যার সমাধান হবে? হবে না। পেরেছে কি বাংলাদেশ সরকার ইউটিউব থেকে ওই ভিডিও বন্ধ করতে? আমরা চাই ওই ভিডিও নাম চিহ্ন ইন্টারনেট থেকে সরিয়ে ফেলতে। আর যদি সেটা করতে হয় তবে ইউটিউব কিংবা গুগলেই আমাদের প্রতিবাদ জানাতে হবে। সারা বিশ্বের সকল মুসলমান ভাই বোনেরা যদি প্রতিবাদ করে তাহলেই এই কাজ করা সম্ভব হবে। আমাদেরই গুগল বা ইউটিউবকে বাধ্য করতে হবে ওই ভিডিও মুছে দিতে। ধর্ম যার যার আমাদের পরিচয় একটাই আমরা মানুষ। আমাদের সৃষ্টিকর্তা একজন। কেউ যদি ভুল করে তাহলে তাকে বোঝাতে হয় মেরে ফেললে ত আর সমাধান হয়ে গেল না। আর একটা বিষয় আমার খুবই অপছন্দ তা হল অনেকেই লিখছেন আমি হিন্দু বা অন্য ধর্মের হয়েও নিন্দা জানাই। হ্যাঁ এটা সত্য যে কারো ধর্মকে নিয়ে কেউ খারাপ মন্তব্য করলে কোন ধর্মের মানুষই সেটা পছন্দ করবে না। আমরা কে কোন ধর্মের সেটা ত আমাদের পরিচয় নয়,আমাদের পরিচয় আমরা বাংলাদেশী। এবং আমরা প্রত্যেক বাংলাদেশী ওই ভিডিওটি অপছন্দ করি। আমি সকল ধর্মের মানুষকে শ্রদ্ধা এবং সম্মান করি এবং সেই সাথে একজন বাংলাদেশী হিসেবে ওই ভিডিওটি অপছন্দ করি এবং প্রতিবাদ জানাই। কিন্তু প্রতিবাদ জানাব কাকে? ইউটিউবকে? যারা ওই ভিডিওটি এখনও মুছেনি তাদের? কিভাবে প্রতিবাদ জানাব প্রতিবাদ জানানোর মাধ্যমকেই ত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আমার একটা প্রশ্ন যেই পরিচালক ছবিটা বানালো তার কি করেছেন? আগে creator কে ধরেন তারপর media(youtube) কে ধইরেন । facebook এ অনেকে ইসলাম বিরধি পেজ খুলেন । এখন আগে আপনি কোনটা করবেন ? ১। যে খুলসে তাকে ধরবেন নাকি ২। জুকারস বারগ এর ফেসবুক ছেরে দিবেন ? আমরা youtube ছেরেছি তাতে youtube এর কয় টাকা লোকসান হইসে? উল্টা video টা পপুলার করে আমরা youtube এর ভিজিটর বারিয়ে দিয়েছি । যে যাই বলেন যখন কোন কিছু সার্চ দিয়ে দেখেন google এ রেজাল্ট হিসেবে একটা youtube video আসছে এবং আপনি youtube banned দেখে ঢুকতে পারছেন না তখন মনে মনে একটা গাল দিবেন “ধুর দেখতে পারলাম না” । এটা আপনার একটা অতি প্রয়োজনীয় video হতে পারে । youtube বন্ধ করে ওদের জা ক্ষতি হচ্ছে তার থেকে বেশি ক্ষতি আমাদের হচ্ছে । তারপর দেখেন এই video remove করার জন্য আন্দলনে কত গুলা মানুষ মরল । কি লাভ হল? ইসলাম কি বলসে আন্দোলন করতে গিয়ে মানুষ মেরে ফেল? বাহ! এই আমাদের মুসলিমদের অবস্থা । আন্দোলন করতে গিয়ে গুলি খেয়ে সেই মুসলিম ই মরে । কথায় আছে মারের বদলে মার হত্যার বদলে হত্যা । তো আমরা একটা video এর বদলে অন্য video দিয়ে প্রতিবাদ করতে পারি । ভিডিও তে unlike, report , comment এগুলা করতে পারি । আমরা যা এখন করতেসি ঠিক এই জিনিস টাই ঐ পরিচালক চেয়ে ছিলেন । সে জানতো এই ভিডিও বের হলে এমন হবেই । জেনে শুনে এমন কাজ কেউ কেন করবে ? নিশ্চুই তার কোন প্ল্যান আছে। আমরা ঐ প্ল্যান এর পথেই পা দিয়েছি । আমার youtube দরকার আছে । টা খুলে দেয়া হোক । আপনারা আমার এই কমেন্ট এ আমাকে যাই ভাবুন বলুন আমি জানি আমি কেমন মুসলিম এবং আমার মধ্যে কত টুকু নবী ভক্তি আছে । আর একটা প্রশ্ন যারা নবী ভক্তি দেখিয়ে আন্দোলন করে রক্তা রক্তি ঘটাল তারা কয়জন নবীর কয়টা সুন্নত পালন করেন? ইবাদত এর বেলায় আমরা নেই কিন্তু যেইখানে মারামারি হানাহানি আছে ঐ খানে ঝাপায়া পড়ি । (আমার কমেন্ট শুধু youtube এর উপর নয় এমনকি ঐ রক্তাক্ত আন্দোলন গুলোর উপরও)

youtube theke amra koto tutorial dhekte partam…. koto kisu shikte partam but now I can’t!! uft! jara ar birodita korse tara shudo youtube theke gan shune ba fun kore!! valo kono kisu grohon kore nah!! youtube bondo korar maddome promanito holo bangali hojoge!!

sharadin kono namaj kalam nai, atutoko nobijir ssunnot palon kore nah! but youtube bondho korai lafaitese!! mone rakben youtube shudo gan shunar jonno or movie dhekar jonno nah! okhan theke onek sikhar ache ja amader onek upokar hoi, jobless job pai youtube theke tutorial dheke, hajar manus online a taka kamai, ora ki ashikhar korbe tar youtube theke kisu shike nai????

ashole kar ki korar ache??? buet a na poreo jara buet ar michile join kore and ask korle bole boet a comarce pore 😀 tader moto manushder kas theke ki asha kora jai??? allah bolsen, age nije valo hote try koro than onno ke shikka dao!! and nobiji bolse shikkhar jonno china jao, china Muslim country nah, tai bole chinate valo pora-shuna hole ki amra china k avoid korbo??? valo -kharap nia shob kisu create hoi, valo ke grohon korte hobe, kharap ke borjon korte hobe!!

Level New

আমাদেরকে সবসময় মনে রাখতে হবে ইহুদী নাসারা আমাদের বন্ধু নয়, তারা ইসলামের চির দুশমন। শুতরাং শুধু গুগলকে নয় , ইহুদি নাসারার সকল পন্য একান্ত প্রয়োজন নাহলে ব্যবহার করা উচিত না। কারন তারা আমাদের কাছে প্রোডাক্ট বিক্রি করে, সেই টাকা দিয়ে মুসলিমদের উপর গণহত্যা চালাচ্ছে, নারীদের ধর্ষন করতেছে, বেহায়াপনা ছড়িয়ে দিচ্ছে, সুদি কারবার চালু করতেছে ইত্যাদি। তাদের কয়েকটি কোম্পানীর নামঃপ্রান,আর এফ এল,কোকাকোলা,পেপসি,উনিলিভার,ডানো,স্কয়ার প্রভৃতি অন্যতম।