ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

সফটওয়ার ডেভেলপার হতে কি CSE পড়তেই হবে?

টিউন বিভাগ ওয়েব ডেভেলপমেন্ট
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

সফটওয়ার ডেভেলপার হতে কি CSE পড়তেই হবে? প্রশ্নটি আপেক্ষিক, পক্ষে বা বিপক্ষে অনেক মত আসতে পারে। বাস্তবতার নিরিখে আমার কিছু মত আলোচনা করতে চাই।

ADs by Techtunes ADs

CSE পড়লেই কি সফটওয়ার ডেভেলপার হওয়া যায়?

এই প্রশ্নটাও আপেক্ষিক, কারন বাংলাদেশে CSE পড়ে কেউ কেউ গুগল, ফেচবুক সহ বিশ্বের বড় বড় প্রতিষ্ঠানে চাকরী করছে। আবার অনেকেই চাকরীর অভাবে বসে আছে বা ১০-১৫ হাজার টাকায় কোন রকম একটি চাকরী নিয়েই সন্তুষ্ট আছে। তবে ২য় দলের মানুষের সংখ্যাই সবচে বেশি।

কম্পিউটার সাইন্সে পড়ে সফটওয়ার ইন্জিনিয়ার হওয়ার পূর্বশর্ত হচ্ছে প্রগ্রামিং এ ভাল হওয়া। কিন্তু প্রগ্রামিং এর সুযোগ কোথায়? ভার্সিটির এসাইনমেন্ট, ক্লাস টেষ্ট, পরীক্ষার চাপে প্রগ্রামিং এর সময় কোথায়! তার উপর আবার অধিকাংশের মতে ক্লাসে প্রগ্রামিং ভাল বোঝায় না। স্বাভাবিক ব্যাপার, যারা প্রগ্রামিং এ ভাল, তারা ভাল বেতনে বিভিন্ন সফটওয়ার কম্পানিতে চাকরী করছেন। আর যারা পরীক্ষার খাতায় খুব ভাল লিখে ভাল সিজিপিএ নিয়ে বের হচ্ছে, চাই প্রগ্রামিং এ Hello world লিখতে পারুক বা না পারুক, তারাই শিক্ষক হচ্ছেন।

তবে এসব চাপ থাকা সত্বেও অনেকেই বেশ ভাল করছে তাদের আগ্রহের কারনে, লেগে থাকার কারনে।  CSE পড়লে সবচেয়ে বড় সুবিধা যেটা পাবেন, পরিবেশ, নেটওয়ার্ক। সমমনা অনেকের সাথে আপনার পরিচয় হবে, আড্ডা হবে, বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় যাওয়ার সুযোগ পাবেন। হাজার অসুবিধাকে যারা পেছনে ফেলতে পারবে, ছোট ছোট পাওয়াকে একত্র করে না পাওয়াকে ভুলতে পারবে, তারা এই ক্ষেত্রে সফলতার মুখ দেখবে ইনশাআল্লাহ।

আমি কি পারব?

অবশ্যই আপনি পারবেন, চাই আপনি  CSE পড়ুন বা না পড়ুন। শুধু দরকার ইচ্ছাশক্তি। আপনার কি মনে আছে, ছোটবেলায় টেবিলঘড়ি, লাইট, ব্যাটারি নিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা ব্যায় করে কিছু একটা বানাতেন। কত মজাই না পেতেন ব্যাটারি জোড়া লাগিয়ে লাইট জ্বালাতে। কিন্তু এখন আর কোন কিছুতে তেমন মজা পান না। কারন, আপনার মজার জায়গা জুড়ে রয়েছে হতাশা, অপ্রাপ্তির বেদনা। না পাওয়া, না থাকাকে আপনি অনেক বড় ভেবে বসে আছেন। কিন্তু এই না পাওয়ার মধ্যেই আল্লাহ তাআলা আপনার কল্যান রেখেছেন। আপনি যতটুকু পেয়েছেন ততটুকুই আপনার জন্য সবচেয়ে ভাল।  সুতরাং হতাশ হয়ে বসে থাকার কিছু নেই, জেগে উঠুন, নতুন করে শুরু করুন।

 কি শিখব?

আপনি যদি আপনার বুকে সফটওয়ার ডেভেলপার হওয়ার ইচ্ছা লালন করেন, কম্পিউটারে ঘন্টার পর ঘন্টা বসে থাকতে ভাল লাগে, তাহলে আপনি সফটওয়ার ডেভেলপমেন্ট শেখা শুরু করতে পারেন। এজন্য আপনাকে যে কোন একটি  প্রগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ভাল ভাবে শিখতে হবে। আপনি শিখতে পারেন Python, Java, Php, C, C++, Ruby এগুলোর যে কোন একটি। তবে আমার পছন্দের প্রগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হচ্ছে পাইথন।

কেন পাইথন শিখবেন?

পাইথন শেখার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে শেখা সহজ।  এছাড়া বর্তমানে সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে পাইথন। জ্যাঙ্গো হচ্ছে পাইথনের সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েব এপলিকেশন ডেভেলপমেন্ট ফ্রেমওয়ার্ক। জ্যাঙ্গো শিখে খুব সহজেই আপনি একজন ওয়েব এপলিকেশন ডেভেলপার হতে পারবেন। এছাড়া  ডাটা সাইন্স, ম্যাশিন লার্নিং, IOT, ইত্যাদি কাজও পাইথনের জনপ্রিয়তা অনেক।

কিভাবে পাইথন শিখবেন?

পাইথন শেখার জন্য অনলাইনে প্রচুর রিসোর্স পাবেন। বাংলায় তামিম শাহরিয়ার সুবিন ভায়ের টিউটোরিয়াল, বই পাবেন। এছাড়া ঝংকার মাহবুব, মাটিন, জাকির ভাইদেরও পাইথন টিউটোরিয়াল রয়েছে। গুগলে সার্চ করলে ইংরেজিতেও অনেক ভিডিও, বই, টিউটোরিয়াল পেয়ে যাবেন। Python Bangladesh ফেচবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে পাইথন প্রেমিকদের সাথে আড্ডা দিতে পারেন।

আর যদি মনে করেন কোন ট্রনিং সেন্টারে অভিজ্ঞ বড় ভায়ের তত্বাবধানে শিখবেন, তাহলে আমাদের ট্রেনিং সেন্টারটি পরিদর্শন করে যেতে পারেন।

আপনার সফটওয়ার ডেভেলপার হওয়ার পর সহজ হোক, দুনিয়া ও আখিরাতে আল্লাহ তাআলা আপনার কল্যান দান করুন সেই দোয়া করছি।

ADs by Techtunes ADs

আমার ফেচবুক পেজঃ বাংলায় জ্যাঙ্গো

ট্রেনিং সেন্টারের ফেচবুক পেজ: Science Fidelity

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি হারুনুর রশিদ। Python Trainer, Science Fidelity, Mohammadpur, Dhaka। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 1 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস